2018-03-25


জনপ্রিয় ডেস্ক : যুক্তরাজ্যের পাশাপাশি ব্যতিক্রমী এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ঢাকাতেও পথ চলা শুরু করলো নিউজ 71। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের অডিটোরিয়ামে আমন্ত্রিত অতিথি ও গণমাধ্যমকর্মীদের উপস্থিতিতে ব্যতিক্রমী এই উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ করার পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের মাঝে বাংলা ভাষা, বাংলাদেশ ও এর গৌরবময় ইতিহাস এবং সমৃদ্ধ সংস্কৃতি তুলে ধরতেই মূলত কাজ করবে নিউজ ৭১।

উদ্বোধন উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় গণমাধ্যমকর্মীরা নিউজ 71 কে শুভকামনা জানানোর পাশাপাশি প্রবাসীদের সংযুক্ত করতে নানা ধরনের পরামর্শ দেন।
পত্রিকাটির বাংলাদেশ সম্পাদক রনক হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।
বিশেষ অতিথি ছিলেন এড. সানজিদা খাতুন এমপি ও অ্যাড. সোহরাব উদ্দিন এমপি।

কবির আল মাহমুদ , স্পেন: স্পেনের মাদ্রিদে প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘মুক্তিসেনার মুখে মুক্তিযুদ্ধের গল্প’ শোনার আসর।  সোমবার  (২৬ মার্চ) রাত ৮টায় মাদ্রিদের একটি রেস্টুরেন্টে  আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে এক  জন প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধা ৭১-এর সেই বিভীষিকাময় দিনগুলো তুলে ধরেন। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যক্ষদর্শীরাও যুদ্ধের স্মৃতি রোমন্থন করেন।
মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান বলেন, আমাদের ঘর থেকে আমাদের মা বোনকে নিয়ে গিয়ে আমাদেরই দেশের রাজাকাররা পাকিস্তানিদের হাতে তুলে দেয়, আমাদের সামনে আমাদের ঘর পুড়িয়ে দেয়, বাপ চাচাদের হত্যা করে। সেটা কার ভালো লাগে? আমি অস্ত্র হাতে নিই। যুদ্ধ করি কুমিল্লায় ২নং সেক্টরে। খাবারবিহীন কত দিন রাত পার করেছি। পান করেছি গোমতি নদীর পানি। পানিতে রক্ত, ভেসে যাচ্ছে লাশ আর লাশ। মাইলের পর মাইল হাঁটি। লক্ষ্য অর্জনে আমরা থাকি অটুট।
কেননা  আমাদের উদ্দেশ্যই ছিল দেশকে শত্রুমুক্ত করা। জীবন বাজি রেখে চেয়েছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা হোক। আমরা বেঁচে আছি। কিন্তু যুদ্ধে আমরা হারিয়েছি অনেক সঙ্গী। তাদের জন্য আজো মন কাঁদে।
মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যক্ষদর্শীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্পেন রাজনীতিবিদ ও সাবেক ফটবলার আব্দুল কাইয়ুম পংকী, জাকির হোসেন ও তালাত মাহমুদ উজ্জ্বল ।
স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা মিনহাজুল আলম মামুনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য কবির আল মাহমুদ ও সাইফুল আমীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে স্বাগত বক্তব্য দেন স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সিনিয়র সহ সভাপতি কাজী এনায়েতুল করিম তারেক, সহ সভাপতি দুলাল সাফা, জাকির হোসেন, সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, আওয়ামীলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম নয়ন, ফয়জুর রহমান, বিএনপি নেতা সোহেল আহমদ সামসু, তালাত মাহমুদ উজ্জ্বল, মুখলেসুর রহমান দিদার, সোহেল ভূঁইয়া,  নাজমুল ইসলাম নাজু, ফজির আলী নাদিম, নোয়াখালি সমিতির সভাপতি মাসুদ রানা, কমিউনিটি নেতা এডভোকেট তারেক হোসেন, আবুল কাসেম মুকুল, আব্দুল হাসেম মেম্বার, নাহিদ আনোয়ারুল, দিদারুল ইসলাম, আফজাল হোসেইন, সাব্বির আহমদ প্রমূখ।তাঁরা স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের এ আয়োজনকে স্পেনে মাইলফলক উল্লেখ করে বলেন, স্পেন বাংলা প্রেস ক্লাব কর্তৃক দ্বিতীয় বারের মতো স্পেনে মুক্তিযুদ্ধাদের নিয়ে অনুষ্ঠান হলো। জীবন বাজি রেখে যাঁরা আমাদের একটি স্বাধীন মানচিত্র উপহার দিয়েছেন, সেইসব বীরদের মুখে মুক্তিযুদ্ধের বর্ণনা শুনার উপলক্ষ সৃষ্টির জন্য উপস্থিত সুধীরা স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের ধন্যবাদ জানান।

প্রবাস ডেক্সঃ ফেনী জেলার দাগনভূইয়া উপজেলায় চাঞ্চল্যকর ফখরুল উদ্দিন চৌধুরীর হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে স্পেনের বার্সেলোনায় প্রতিবাদ সভা করেছে বার্সেলোনা প্রবাসী বাংলাদেশীরা। গত ২৬ মার্চ বিকেল ৫টায় রামলা রাভালের একটি রেস্তোরাঁয় ‘আমরা প্রবাসী’ ব্যনারে উক্ত প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 
সংগঠক শফিক খান ও সালাহ উদ্দিনের উপস্থাপনায় উক্ত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠন এসোসিয়াশিয়ন কুলতুরাল ই উমানেতারিয়া দে বাংলাদেশ এন কাতালোনিয়া-এর সভাপতি মাহারুল ইসলাম মিন্টু। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বার্সেলোনার বাংলা স্কুলের সভাপতি আলাউদ্দিন হক নেসা, স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আফাজ জনি, সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান হোসেন, প্রচার সম্পাদক লায়েবুর রহমান, এটিএন বাংলার বার্সেলোনা প্রতিনিধি সালেহ আহমদ সোহাগ, এসোসিয়াশিয়ন কুলতুরাল এর সহ সভাপতি উত্তম কুমার, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি শাহ আলম স্বাধীন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল দেওয়ান, ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক জাফার হোসাইন, সংগঠক সাহাব উদ্দিন, শিমুল চৌধুরী, মোহাম্মদ হাসান, জাহাঙ্গির আলম প্রমুখ।
সভায় বক্তারা নিহত ফখরুলের স্মরণে ১ মিনিট নিরাবতা পালন করে। বক্তারা এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানায়।  এই হত্যায় জড়িত আসামীরা যত ক্ষমতাশালীই হোক না কেন তাদেরকে গ্রেফতার করে অতি দ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, ও স্পেনের রাষ্ট্রদূতের কাছে আবেদন জানায়।
উক্ত প্রতিবাদ সভায় নিহত ফখরুলের ভাই হত্যাকাণ্ডের বিবরণ দিতে গিয়ে বলেন- ‘হত্যাকাণ্ডের কয়েকদিন আগে ফখরুল তার বন্ধু হিসেবে জানতো এমন কয়েকজন তার কেনা একটি নতুন মোটরসাইকেল চালানোর কথা বলে নিয়ে যায়। কিন্তু সেই মোটর সাইকেল ফেরত দেয়া নিয়ে তাদের সাথে ফখরুলের বাকবিতণ্ডা হয়। পরে গত ১৯ জানুয়ারী আনুমানিক রাত সাড়ে এগারোটায়  ফখরুলকে তার মা ও সন্তানের মাঝ থেকে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে মোটরসাইকেল ফেরত দেবে বলে ফখরুলকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর ফখরুল আর বাসায় ফেরেনি। পরের দিন এলাকাবাসী তার ক্ষত বিক্ষত লাশ স্থানীয় একটি ব্রীজের পাশে পড়ে থাকতে দেখে। এই ঘটনায় নিহতের ভাই নাজিম উদ্দিন চৌধুরী বাদী হয়ে হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন ৮জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এদের মধ্যে গ্রেফতার হওয়া জাহিদ হাসান হিরো ও আমির হোসাইন বাহাদুর আদালতে ১৬৪ ধারা জবানবন্ধীতে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে অন্যান্য যারা হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল তাদের নাম প্রকাশ করে। এদের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের সন্দেহভাজন মূল হোতা সাইদুল হক পারভেজ এলাকার রাজনৈতিকভাবে প্রভাবশালীর ব্যক্তির ভাই’। তিনি আরো অভিযোগ করেন, হত্যাকাণ্ডের মূল আসামী এই সাইদুল হক পারভেজ এলাকায় প্রকাশ্যে ঘোরাফের করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছে না।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget