2018-02-25


মিরন নাজমুল  : পরীক্ষায় অংশগ্রহণ না করেও ভুয়া সার্টিফিকেটের মাধ্যমে স্প্যানিশ পাসপোর্টের আবেদন করে নাগরিকত্ব নেয়ার চেষ্টায় গ্রেফতার আতঙ্কে আছেন স্পেনের বহু প্রবাসী বাংলাদেশি। ২২ ফেব্রুয়ারি স্পেনের ভ্যালেন্সিয়া শহরে ভুয়া পরীক্ষার্থী সেজে স্প্যানিশ ভাষার ওপর পরীক্ষা দেবার প্রাক্কালে পাকিস্তান ও রোমানিয়ার ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ তাদের তল্লাশি করে অপরাধচক্রের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষাকারী মোবাইল ডিভাইস, পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য নেয়া নগদ টাকা ও ১৮টি ভুয়া স্প্যানিশ রেসিডেন্ট কার্ড পায়। এ কার্ডগুলোর মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিকের কার্ডও আছে বলে জানা গেছে। এখন ক্লোন করা এ রেসিডেন্ট কার্ডের সূত্র ধরে নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হতে পারে এমন আতঙ্কে আছেন অপরাধে জড়িয়ে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
এ ক্লোন করা কার্ডের মাধ্যমেই এ অপরাধীচক্রের পৃষ্ঠপোষকতায় একজনের হয়ে আরেকজন স্প্যানিশ ভাষায় অভিজ্ঞ ব্যক্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার জন্য পরীক্ষা দেয়। অপরাধী চক্রের সঙ্গে যুক্ত আছেন প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনেকে। স্পেনের বার্সেলোনায় ও মাদ্রিদসহ অন্যান্য শহরের আনুমানিক ১০/১২ জন দালাল সরাসরি যুক্ত আছে এ চক্রের সঙ্গে।
তারা আগ্রহী ব্যক্তির কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে মূল অপরাধী চক্রের সঙ্গে চুক্তি করে এবং মধ্যস্বত্বভোগী হিসেবে অর্ধেক টাকা নিজে ভোগ করে। এর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী নেটওয়ার্ক স্পেনের বার্সেলোনায়। ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রায় ৫ জন সক্রিয় দালালের নাম পাওয়া গেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে কথা হয়। তারা বলেন, দালালরা সার্টিফিকেট করিয়ে দেবার লোভ দেখিয়ে ৪ লাখ ইউরো প্রবাসীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়।
কাতালোনিয়ার বার্সেলোনা ও মাদ্রিদসহ অন্যান্য শহর মিলে আনুমানিক শতাধিক বাংলাদেশি এ দালালদের খপ্পরে পড়েছেন। এর মধ্যে অনেকে ইতোমধ্যে সার্টিফিকেট নিয়ে নিয়েছেন। আবার অনেকে অর্ধেক টাকা দালালের হাতে দিয়ে এখন সেটা টাকা খোয়ানোসহ জিজ্ঞাসাবাদ, হয়রানিসহ গ্রেফতার আতঙ্কে সময় পার করছেন।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সাল থেকে স্প্যানিশ পাসপোর্টের আবেদন-সংক্রান্ত ইমিগ্রেশন আইন পরিবর্তন করে স্প্যানিশ ভাষা ও ইতিহাস-সংস্কৃতির ওপর ‘ডেলে’ ও ‘সেসেএসএ’ নামক দুটি পরীক্ষা উত্তীর্ণ হবার বাধ্যবাধকতা করে দেয়া হয়। প্রবাসীদের অনেকে স্বল্প শিক্ষিত হবার কারণে এ পরীক্ষায় অংশ্রগ্রহণ করতে অনীহার কারণে অর্থের বিনিময়ে সার্টিফিকেট সংগ্রহে অপরাধে যুক্ত হয়ে পড়ছেন।

ফ্য়জুল হক রানা : ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেস উপলক্ষ্যে স্পেনের রাজা ফিলিপে VI এর বার্সেলোনা আগমনের পক্ষে এবং বিপক্ষে মিছিল ও পথসভার মধ্যে বার্সেলোনায় উত্তপ্ত রাজনৈতিক পরিস্হিতির মধ্যে উদ্বোধন হলো ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেস ২০১৮ ।
বিশ্বের মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন জিএসএম এ আয়োজিত এবারের ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেস ২৬ ফেব্রুয়ারী হতে ১ মার্চ পযর্ন্ত অনুষ্টিত হবে     Creating a better  fufure  এ থিমকে সামনে রেখে বিশ্বের প্রায় দুই শতাধীক দেশের অংশগ্রহনে দুই হাজার তিনশত প্রদর্শক এবং প্রায় একলক্ষ দশ হাজার দর্শনার্থী জড় হয় । 
5G নেট ওয়ার্কের ডেমো ভার্সন এবারের WMC  এর প্রধান আকর্ষন যা বর্তমানের 4G নেটওয়ার্ক থেকে ১০০ গুন বেশী দ্রুত হবে । এছাড়া সামসাং এর S9 ছাড়াও সনি, হাওয়াই, এলজি, আসোস,রোবট টেকনোলজি এবং নকিয়া সহ অন্যান্য কোম্পানী তাদের নতুন ভার্সন প্রদর্শন করে । বিশ্বের নামি দামি মোবাইল কোম্পানীদের CEO ছাড়াও বিভিন্ন দেশের সরকারের প্রতিনিধি ,মিনিষ্ট্রিয়াল প্রোগ্রামের সেমিনারে যোগদান করেন ।
প্রযুক্তির অপব্যবহার রোধ, জলবায়ুর বিরুপ প্রভাব কমাতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার সহ বিভিন্ন এজেন্ডার উপর আয়োজিত সেমিনারে যোগ দিতে বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বারের নেতৃত্বে ৬ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দল অংশগ্রহন করে ।


বাংলাদেশ দুতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর নাভিদ শফিউল্লাহ সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এবারের কংগ্রেসে প্রদর্শিত বিভিন্ন কোম্পানীর উন্নত প্রযুক্তি এবং নেটওয়ার্ক সহ বিভিন্ন এ্যাপ দেশীয় প্রযুক্তি খাতে ভুমিকা পালন করবে ।

সেলিম উদ্দিন,পর্তুগাল থেকে : বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিসংগ্রামে আমাদের ভাষা আন্দোলনের ভূমিকা এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ও মাইলফলক হয়ে আছে। আমাদের মুক্তিসংগ্রামের বীজ নিহিত ছিল এ ভাষা আন্দোলনে।
ভাষা আন্দোলনের ধারাবাহিকতার পথ ধরেই আমরা অর্জন করেছি আমাদের স্বাধীনতা। বাংলা ভাষা আমাদের মাতৃভাষা। মাতৃভাষার প্রতি সব জাতিরই গভীর ভালোবাসা বিদ্যমান। মায়ের প্রতি ভালোবাসার মতোই মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা সবারই থাকে। আমরা মাতৃভাষাকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছি তা বিশ্বব্যাপী অনন্য ইতিহাস হয়ে রয়েছে। তবে খুব কম জাতির মানুষ মাতৃভাষা রক্ষার জন্য প্রাণ দিয়েছে।
আমাদের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের সূচনা সেই ৫২ সালেই শুরু হয়েছিল। এই আন্দোলনই আমাদের জাতীয় ইতিহাসে ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক ও স্বাধীনতাসংগ্রামের ইতিহাস হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে। এ জন্য আপসহীন সংগ্রাম করেছেন আমাদের পূর্বসূরিরা। বুকের রক্তে প্লাবিত হয়েছে রাজপথ। আত্মাহুতি দিতে হয়েছে ভাষা শহীদ বরকত, সালাম, রফিক, সফিক প্রমুখকে। রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন শুধু আমাদের মাতৃভাষা মর্যাদাকে প্রতিষ্ঠিত করেনি বরং অমর একুশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে জাতিসংঘের স্বীকৃতি লাভ করেছে। বিশ্বমানচিত্রে বাংলাদেশের জন্য এটা বিরাট অর্জন। অমর ২১সে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি বাংলাদেশ এসোসিয়েশন পর্তুগাল নর্থের পক্ষ থেকে মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব রুহুল আলম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে পর্তু প্রবাসীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফারুক হোসেন ,কাজল আহমেদ ,নজরুল ইসলাম (শরীফ), ইদ্রিস মাদবর,মোহাম্মদ রাকিব , আবুল কালাম আজাদ,মোহাম্মদ মুবিন দেওয়ান , আব্দুল রাজ্জাক , মোহাম্মদ শরিফুজ্জামান খোকন , আব্দুল হাই, মজিবর রহমান , হাবিবুর রহমান হবি , মনির সোহেল , হাসিবুল হাসান এবং মহিলা শিশুসহ প্রায় দুই শতাধিক প্রবাসী।
আটলান্টিকের পাড়ে নয়নাভিরাম ইউরোপের অন্যতম পর্যটক শহর পর্তুর স্থায়ী শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পর্তুতে বসবাসরত প্রবাসী বাঙালীরা। পরে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন পর্তুগাল নর্থের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে পর্তুর স্থানীয় হোটেল এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধমে পালন করা হয় মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করা হয় মহান বীর ভাষাসৈনিক ও শহীদদের।আলোচনা সভায় বাংলাদেশ এসোসিয়েশন পর্তুগাল নর্থের নেতৃবৃন্দরা বলেন একুশের চেতনা আমাদের আত্মমর্যাদাশীল করেছে। একুশ মানেই অন্যায়ের বিরুদ্ধে দ্রোহ, প্রতিবাদ আর যাবতীয় গোঁড়ামি ও সংকীর্ণতার বিরুদ্ধে শুভবোধের অঙ্গীকার।একুশের সেই শক্তি ও প্রত্যয় নিয়ে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন পর্তুগাল নর্থের যাত্রা শুরু হয় গত ২২শে ফেব্রুয়ারী ২০১৭ সালে।

কবির আল মাহমুদ ,মাদ্রিদ  : ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী অনিল দাশ গুপ্তের স্বাক্ষর জাল করে যুদ্বাপরাদীদের মুক্তি দাবীকারী এস আই রবিন কর্তৃক ভুয়া কমিটির গোষনার নামে গোপনে নাটক করার অভিযোগ এনে স্পেন আওয়ামী লীগ সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছে।
গত ২৩ ফ্রেব্রুয়ারী শুক্রবার সন্ধ্যায় স্পেন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে স্পেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রিজভি আলম লিখিত বক্তব্যে জানান, যেখানে জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে কলঙ্কমুক্ত করে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন, সেখানে সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের অব্যাহতি প্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম হক এস আই রবিন কে সভাপতি করে ভুয়া কমিটি গোষনা করে স্পেন তথা ইউরোপে আওয়ামী লীগকে কলঙ্কিত করছেন। সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন স্পেন আওয়ামীলীগের সভাপতি আক্তার হোসেন আতা। লিখিত বক্তব্যে রিজভি আলম বলেন দীর্ঘ দিন পর ত্যাগী ও সক্রিয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ,তরুণলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও সাবেক ছাত্রনেতাদের নিয়ে প্রবীণ ও নবীনের সমন্বয়ে লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির মাধ্যমে স্পেন আওয়ামীলীগ যখন ঐক্যবদ্ধ ঠিক তখনই স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা সব সময়ই চায় দেশের উন্নয়নকে ব্যহত করতে, তারা এখনো দেশের ভেতরে এবং বাইরে সোচ্চার। সংবাদ সম্মেলনে আ:লীগ নেতারা বলেন, যুদ্দাপরাদীদের মুক্তিদাবীকারীরা স্পেন আওয়ামী লীগের ভুয়া কমিটির নামে নাটক করছে।সংবাদ সম্মেলনে নেতারা আরো বলেন, কোন ষড়যন্ত্র আমাদের অদম্য যাত্রাকে থামাতে পারবে না, কোন ব্যক্তি বিশেষের ইচ্ছার উপর সংগঠন চলবে না। আমরা জাতির জনকের মহান আদর্শের অকুতোভয় সৈনিক, জননেত্রী শেখ হাসিনার অসীম সাহসী নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল। এ ব্যাপারে স্পেন আওয়ামী লীগের সভাপতি আক্তার হোসেন আতা দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা ও সর্ব ইউরোপিয়ান সভাপতি ,সাধারণ সম্পাদকসহ শীর্ষ নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্পেন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি বোরহান উদ্দিন ,শামীম আহমেদ ,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসান ,সাংগঠনিক সম্পাদক সায়েম সরকার ,রুবেল খান ,ইফতেখার আলম ,এনাম আলী খান ,দপ্তর সম্পাদক বাবু তাপস দেব নাথ ,অভিবাসন সম্পাদক এডভোকেট তারেক হোসাইন ,তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এম এ আই আমিন ,বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এ এফ ফারুক পাভেল ,মাহবুবুল আলম ,জালাল হুসেন ,সুমন নূর ,মাসুম বিল্লাহ ,সাঈদ খান ,নাজিম উদ্দিন ,সাইদুল আলম সুহেদ ,মোঃ সেলিম ও ইসলাম উদ্দিন প্রমুখ।

নিম্নে সদ্য প্রকাশিত অল ইউরোপীয়ান আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক রিপোর্ট প্রদান করা  হল।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget