"সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ ভক্ত একজন সক্রিয় কর্মীর খোলা চিঠিঃ


মোঃ ছালাহ উদ্দিন : মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভানেত্রী, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। আপনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কোটি কোটি তৃনমূল নেতা-কর্মীর একমাত্র বিশ্বস্ত ঠিকানা।

আপনাকে দেখে শত বাধা ও প্রতিকূলতার মাঝে ও আমরা স্বপ্ন দেখি সাহসী হই। আপনার কাছে সবিনয়ে অনুরোধ করব আগামী ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে সত্যিকারের মুজিব আদর্শের সৈনিক,কর্মীবান্ধব ও নিবেদিত প্রান নেতাদের হাতে স্বাধীনতার প্রতীক নৌকা মার্কা তুলে দেন। কারন বর্তমানের অধিকাংশ এমপি ও মন্ত্রীরা জনবিচ্ছিন্ন। কর্মীদের সাথে উনাদের বিশাল দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে।

১১ তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পূনঃরায় বর্তমান এই সকল এমপি'রা যদি নৌকা প্রতীক পেয়ে যান তাহলে প্রত্যেক আসনে বিদ্রোহী প্রার্থী দেখা দিবে।
কোন কারনে বহিস্কারের ভয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী না হলেও নৌকা পতিকের প্রার্থীকে হারানোর জন্য সব ধরনের চেষ্টা চালাবে।

ফলে সারা বাংলাদেশে আওয়ামীলীগ নির্বাচনে বিজয়ী হতে পারবে না।
প্রিয় নেত্রী আপনি জানেন, আমাদের সিলেটের কৃতি সন্তান, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জন্য নিবেদিত প্রান,রাজপথের লড়াকো সৈনিক,সারা বাংলাদেশের ছাত্র সমাজের অহংকার, সাবেক ডাকসু ভিপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ,  বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণ এখনো মন থেকে ভালবাসেন উনাকে।।
সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ এর ভক্ত আছেন সেই টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া, সিলেটের সুনামগঞ্জ থেকে সুন্দরবন,  সারা বাংলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছেন সারা পৃথিবীতে।

এমন নেতাকে দলের বাহিরে রেখে আপনি হাইবিড আর বাম নেতাদের দিয়ে দল পরিচালনা করতেছেন, একদিন হয়তো এই হাইবিড আর বামরাই আপনাকে নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হবে,আর সবসময় তারা গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন।
 আমরা বাহিরে থেকে তা উপলব্ধি করতে পারছি,কিন্তু প্রিয় নেত্রী আপনি তা দেখবেন না বুঝবেননা আর বুঝতেও দিবেনা এরা কারন কিছু স্বাধীনতা বিরুধী চক্র আপনার চারপাশে সবসময় ঘিরে আছে।

এই স্বাধীনতা বিরুধী চক্র যতদিন আপনার চারপাশে থাকবেন তথদিন আপনাকে নিয়ে তথা আমাদের প্রানের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে বিতর্কিত করার চেষ্টায় লিপ্ত থাকবে।আমরা জানি আপনি যতদিন বেচে থাকবেন বাংলাদেশকে নিয়ে তথা আওয়ামীলীগকে নিয়ে কেউ সড়যন্ত্র করতে পারবেনা, কিন্তু প্রিয় নেত্রী আপনি যদি এই ত্যাগী নেতাদের দলে ফিরিয়ে নেন তাহলে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে আর কেউ বাধা গ্রস্থ করতে পারবেনা।আর আপনার সাহসী নেতৃত্ত্বে দেশ যেভাবে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে সেভাবে এগিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
 একটা কথা আপনি সবসময় বলেন ত্যাগীরা অভিমান করে কিন্তু দলের সাথে কোনোদিন বেঈমানী করেনা আর আমরাও বলি এই সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ এর মত ত্যাগী নেতারা কোনোদিন আপনার সাথে বা আমাদের দলের সাথে বেঈমানী করেনা বা করতে পারেনা তারা অভিমান করে বসে আছে। একবার আপনি মমতার ডাকে ডাক দিয়ে দেখেন বা আপনি বিপদে পড়ে দেখেন এরাই আপনার পাশে এসে দাড়াবে সুতরাং এরাই আপনার আপনজন এরাই আপনার দূঃসময়ের সাথী।
আপনার নিশ্চয় মনে আছে ১৯৭৫ এর ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা বিরুধী ঘাতকরা যখন জাতির পিতা সহ আপনার সহপরিবারকে হত্যা করে তখন এই সুলতানরাই রাস্তায় বেরিয়েছিলো প্রতিবাদ আর আন্দোলনে।তখন কোথায় ছিলো এই বাম নেতারা যারা আজ আপনার চারপাশে বড় বড় মন্ত্রী আর এম পি  হয়ে বসে আছেন।?
 প্রিয় নেত্রী" আজ একটা ধাবি জানাচ্ছি আপনার কাছে আপনি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর এর মতো নিবেদিত প্রান মুজিব আদর্শের ত্যাগী নেতাদের হাতে,আমাদের মুক্তিযোদ্ধের প্রতিক নৌকা মার্কা  উপহার দেন। এদের হাতে কুনোদিন নৌকার ভরাডুবি হবেনা ইনশাআল্লাহ।

 আমাদের নেতাকে যদি আপনি নৌকা প্রতিক দিয়ে আবার নির্বাচন করার সুযোগ করে দেন সিলেটের যে কুনো আসন থেকে তাহলে ১০০% গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ, বিশাল ভোটে বিজয় লাভ করবেন,ইনশাআল্লাহ।।  রাজপথের একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে আমার বাস্তব অভিজ্ঞতা তুলে ধরলাম।
আমার দৃঢ় বিশ্বাস মাননীয় নেত্রী আপনি সবকিছু বিবেচনা করে সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হবেন, ইনশাআল্লাহ।
জয় বাংলা  -জয় বঙ্গবন্ধু। জয় হোক রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার। জয় হোক মুজিব আদর্শের নিবেদিত প্রান সকল সৈনিকদের।

লেখক পরিচিতি :
মোঃ ছালাহ উদ্দিন
সাবেক,সভাপতি,বাংলাদেশ ছাত্রলীগ
৩ নং নিজ বাহাদুর পুর ইউনিয়ন ।
সাংগঠনিক সম্পাদক,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ  কাতালোনীয়া (বার্সেলোনা)  স্পেন শাখা।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget