2017-10-15

জনপ্রিয় অনলাইন : স্পেনের কাতালোনিয়া অঞ্চল এতদিন ধরে যে স্বায়ত্তশাসন ভোগ করছিল সেটি স্থগিত করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। আগামী শনিবার থেকে স্বায়ত্তশাসন স্থগিত করার প্রক্রিয়া শুরু করবে স্পেন। খবর বিবিসির ।

স্পেনের কাছ থেকে আলাদা হয়ে কাতালোনিয়ার নেতারা স্বাধীনতা ঘোষণা করার যে হুমকি দিয়েছিলেন, সে প্রেক্ষাপটে এখন স্বায়ত্তশাসন স্থগিতের কথা বলা হচ্ছে।
স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর জানিয়েছে, দেশটির সংবিধানে ১৫৫ অনুচ্ছেদ কার্যকরের মাধ্যমে কাতালোনিয়ার স্বায়ত্তশাসন স্থগিত করে সে অঞ্চলের কর্তৃত্ব নেওয়া হবে।
এ ঘটনার প্রেক্ষিতে অনেকে আশংকা করছেন, স্পেন সরকারের এ সিদ্ধান্ত সে অঞ্চলকে অস্থির করে তুলতে পারে।
স্পেনের প্রধানমন্ত্রী এক বিবৃতিতে বলেছেন, দেশটির সংবিধানে ১৫৫ অনুচ্ছেদে যা বলা আছে সে অনুযায়ী কাতালোনিয়ার নিজস্ব শাসন ব্যবস্থার উপর আইনগত কর্তৃত্ব ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা নেবে স্পেনের সরকার।
১৯৭৮ সালে প্রণীত স্পেনের সংবিধানে ১৫৫ ধারায় গণতান্ত্রিক শাসনের ভিত্তি তৈরি করা হয়েছে।
সংবিধানের ১৫৫ ধারা অনুসারে স্পেনের সরকার যে কোন সংকটময় অবস্থার সময় কাতালোনিয়ার উপর সরাসরি শাসন জারির ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু অতীতে এটি কখনো প্রয়োগ করা হয়নি।
স্পেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জনের জন্য গত ১ অক্টোবর কাতালোনিয়ায় গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। সে গণভোটে বেশিরভাগ কাতালোনিয়ার বেশিরভাগ মানুষ স্পেনের কাছ থেকে স্বাধীন হবার জন্য 'হ্যাঁ' ভোট দিয়েছে।
সে গণভোট নিয়ে স্পেন এবং কাতালোনিয়া অঞ্চলের নেতাদের মধ্যে তীব্র মতপার্থক্য এবং অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়।

সুত্র : দৈনিক আমাদের সময় ।

লায়েবুর খাঁন : গত ৮ই অক্টোবর বার্সেলোনার স্হানীয় এক রেষ্টুরেন্টে স্পেন কাতালোনিয়া প্রবাসী সুনামগঞ্জ বাসীর সংগঠন এসোসিয়েশন কুলতোরাল দে সুনামগঞ্জ এন কাতালোনিয়া এর ৯৫ সদস্য পুর্নাঙ্গ ঘোষণা করা করেন সদ্য নির্বাচিত কমিটির সভাপতি মনোয়ার পাশা ।
উল্লেখ্য, গত ১২ই মার্চ প্রবাসী সুনামগঞ্জ জেলা বাসীর সম্মিলিত ঐক্যের মতে ৪ সদস্য কমিটির নির্বাচন করা হয়। এতে বিজয়ী ৪ সদস্য সকলের মতামত নিয়ে পুর্নাঙ্গ গঠন করেন । ঘোষণাকৃত
এসোসিয়েশন কুলতোরাল দে সুনামগঞ্জ এন কাতালোনিয়ার নব গঠিত কার্যকরী পরিষদে-সভাপতি মনোয়ার পাশা,সিনিওর সহসভাপতি কবির উদ্দিন,সহসভাপতি হারুন রশিদ,সহসভাপতি শাহাদত হুসাইন,সহসভাপতি এমরান হুসাইন,সহসভাপতি রেজাউল করিম শহিদ,সহসভাপতি আযমান আলী,সহসভাপতি আবু সুফিয়ান,সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম আবির,
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক : শাহজান আহমেদ,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক :মির্জা সালাম,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক :দিলাল হোসেন,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক : আব্দুল ওয়াকিব,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক :রুবেল মিয়া সুহেল,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক :বিয়াদ ফকির সালেক,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক :আব্দুর রহমান মুজিব,সাংগঠনিক সম্পাদক :কামাল মিয়া,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক :আব্দুর রকিব স্বপন,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক :সুজন আলী,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক :আবু শাহেন,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক : সালু মিয়া,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক : গুলজার আহমেদ,যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক : সাইফুর রহমান মুজাহিদ,অর্থ সম্পাদক :আশিদুর রহমান, সহকারী অর্থসম্পাদক : নজরুল ইসলাম,সহকারী অর্থসম্পাদক : জয়নাল আবেদীন,সহকারী অর্থসম্পাদক : তোরন আহমদ,সহকারী অর্থসম্পাদক : কবির মিয়া,দপ্তর সম্পাদক : এখলাছুর রহমান,সহকারী দপ্তর সম্পাদক : আফতাবুল ইসলাম,প্রচার সম্পাদক :সমশের আলী,সহকারী প্রচার সম্পাদক : শামসুল ইসলাম,সহকারী প্রচার সম্পাদক : আরব আলী,ক্রীড়া সম্পাদক :জাবেদুর রহমান রাজন,সহকারী ক্রীড়া সম্পাদক : জুবেদ মিয়া,সহকারী ক্রীড়া সম্পাদক : রবিউল মিয়া,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক :ইসলাম : ইস্রাক ইসলাম,
সহকারী ধর্মবিষয়ক সম্পাদক : ইসলাম : সালেহ আহমদ,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক : সনাতন: স্বন্দীপ রায়,সাংস্কৃতিক সম্পাদক : কয়েছ আহমদ,সহকারী সাংস্কৃতিক সম্পাদক : মামুন কবির,সমাজ কল্যান সম্পাদক : জয়নাল আবেদীন,সহকারী সমাজকল্যান সম্পাদক :আলী হুসেন,শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক :আবু মনসুর,সহকারী শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক :মাসুদ মিয়া,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক :নাজমুন নাহার মনি,সহকারী মহিলা বিষয়ক সম্পাদক :শিল্পী রানী দাস,বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক :আলী জাবেদ,সহকারী বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক : রোশন আলী, মানবাধিকার সম্পাদক :একরাম আলী, সহকারী মানবাধিকার সম্পাদক : আব্দুল ওয়াতির ফিরুজ,আইন বিষয়ক সম্পাদক: জাহিরুল ইসলাম লিমন, সহকারী আইন বিষয়ক সম্পাদক :আলী আহমদ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক : রাজু নেছা এমরান, সহকারী আন্তর্জাতিক সম্পাদক: হাবিবুর রহমান,তথ্য বিষয়ক সম্পাদক : জামিল আহমদ,সহকারী তথ্যবিষয়ক সম্পাদক :আতিকুর রহমান সুইট, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক : আলী হাসান আজমল,সহকারী সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক :নাসির উদ্দীন আখতার,প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক :সিরাজুর রহমান মিঠু,সহকারী প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক :আব্দুল বাতির সাজু,গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক :নাসির উদ্দীন রিংকু,সহকারী গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক : রুবেল আহমদ,গণযোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক : নজরুল হক শাহীন,সহকারী গণযোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক : হুমায়ুন মিয়া,স্বাস্হ্য বিষয়ক সম্পাদক : মাসুদ আলী,সহকারী স্বাস্হ্য বিষয়ক সম্পাদক : আবু সাইদ,যুব বিষয়ক সম্পাদক : শাহীন মিয়া,সহ যুব বিষয়ক সম্পাদক মাসুক মিয়া ।

সম্মানিত সদস্য বৃন্দ :
আবু সালেহ,আঃ রহিম,হাবিবুর রহমান,গোলাম রহমান নাসির,মতিউর রহমান,সুজন মিয়া,আলাউর রহমান,মোঃ মামুন,শামীম মাহমুদ,শামীম উদ্দীন বকুল খাঁন,নিজামুল ইসলাম,কমল দাস,মনির আলী,মোতাহর হুসেন মোশারফ,আঃ মনির,সঞ্জব আলী ।
সাধারণ সদস্যবৃন্দ :

শফিকুন্নুর,ফয়সল আহমদ,হুসেন আলী,আঃ রাজ্জাক,আঃ মুকিত,মইন উদ্দীন,হিমেল উদ্দীন,শাহীন উদ্দিন,সাজুর মিয়া ।

মাদ্রিদ থেকে সাইফুল আমিন : স্পেন আওয়ামীলীগ এর মত বিনিময় সভা গত ১৬ই অক্টোবর মাদ্রিদের বাংলাদেশি অধ্যাসিত মাতৃভুমি রেস্টুরেন্টে এক মতবিনিময় সভা অনুস্টিত হয় ।
বাংলাদেশ এসোসিয়েশন এর সাবেক সভাপতি এবং স্পেন আওয়ামীলীগ এর বিশিষ্ট নেতা,এস আই রবিনের সভাপতিত্বে ও এফ এম ফারুক পাবেল এর সঞ্চহালনায় সভায় বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বংগবন্ধু পরিষদের সভাপতি জাকির হুসাইন।
এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন
,আলমগির হুসাইন,সিলেট বিভাগীয় আওয়ামীলীগ এর সমন্নয়ক কমিটির সভাপতি লুতপুর রহমান,আতাউর রহমান আতা,ফারবেজ আলম,ফারুক আহমেদ মুবিন,এডভোকেট তারিক হুসেন,বদরুল ইসলাম মাস্টার,মনির মিয়া,সহ আওয়ামীলীগ এর অংগ সংঘটন এর নেতৃবৃন্দ বক্তারা গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মাদার অফ হিউম্যানিটি জননেত্রী শেখ হাসিনার সাফল্যে, তারমধ্য বিশেষ করে ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার সজীব ওয়াজেদ জয়ের ডিজিটাল কার্যক্রমের উপর আলোচনা ও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জননেত্রীর ভুমিকার বিষয়াদি নিয়ে আলাপ করেন বক্তারা আরও বলেন,আওয়ামীলীগ নদির স্রুতে ভেসে আসা কোন দল নয়।আওয়ামীলীগ হচ্ছে বাংলাদেশ এর সর্ব বৃহৎ ও সবচেয়ে পুরুনো দল,আওয়ামীলীগ এর ইতিহাস ঐতিহ্য ধরে রাখতে স্পেন আওয়ামীলীগ বদ্ধপরিকর,স্পেন আওয়ামীলীগ এর সম্মেলন সম্পর্কে এস আই রবিন বলেন,আওয়ামীলীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ উর্ত্তীর্ণ হয়ে গেছে সেই কবে।তিনি বিগত কমিটির নানা ব্যর্থতা ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে ধরে বলেন আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে দেখি কিছু কিছু আওয়ামী নামধারী কিছু জামাতি সেল্ফি তুলে নিজেকে আওয়ামীলীগ নেতা দাবি করে ফেইসবুকে ছবি পোস্ট করেন।আসলে ই খুব হাস্যকর বিষয়,আমি তাদের কে বলতে চাই,আওয়ামীলীগ এর নেতা হতে গেলে,কর্মি বান্ধব নেতা হতে হবে।
সেল্ফি বান্ধব নেতা হলে হবেনা।যারাই স্পেন আওয়ামীলীগ এর নেতা হতে চান
,তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে কাজ করতে হবে, দলকে ভালবাসতে হবে,কর্মিকে ভালবাসতে হবে তিনি আরও বলেন,আপনারা যারা স্পেন আওয়ামীলীগ এর কমিটি নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছেন,অচিরেই সাংগঠনিক ভাবে তাদের বিরুদ্ধে স্পেন আওয়ামীলীগ তার ভুমিকা নিবে,গুজবে কান না দেয়ার জন্যে উপস্থিত সবার প্রতি তিনি অনুরুধ জানান।

স্পেন আওয়ামীলীগ এর কোনদিনই পকেট কমিটি হবেনা,স্পেন আওয়ামীলীগ এর কমিটি সুস্থ সুন্দর একটি সম্মেলন এর মাধ্যমে ই হবে,এবং ইউরুপিও সকল নেতা কর্মিদের সাথে তিনি সবাইকে সাথে নিয়ে সম্মেলন সম্পর্কে আলাপ করবেন বলে সবাই কে আশ্বাস দেন। পড়ে নৈশভোজ ও মোনাজাত এর মাধ্যমে সভার সমাপ্তি করা হয়।

জনপ্রিয় অনলাইন : কাটালুনিয়ান নেতা কার্লেস পুইদেমনকে আরো তিন দিন সময় দিলেন স্পেন সরকার৷ তার মধ্যে পুইদেমনকে বলতে হবে, এলাকাটি স্বাধীনতা ঘোষণা করেছে কিনা৷
কাটালান নেতা কার্লেস পুইদেমন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাখয়ের সঙ্গে সরাসরি আলাপ-আলোচনা কামনা করেছিলেন৷ স্পেনের উপ-প্রধানমন্ত্রী সোরাইয়া সায়িঞ্জ দে সান্তামারিয়া সে অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে বৃহস্পতিবার অবধি একটি নতুন চরমপত্র দিয়েছেন, যার মর্ম হলো, কাটালুনিয়াকে সেই সময়ের মধ্যে তাদের স্বাধীনতা প্রাপ্তির প্রচেষ্টা পরিত্যাগ করতে হবে৷
সায়িঞ্জ দে সান্তামারিয়া মাদ্রিদে সাংবাদিকদের সমীপে বলেন যে,কাতালোনিয়া স্পেন থেকে বিছিন্ন  হয়ে যাওয়ার কথা ঘোষণা করেছে কিনা, সে বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকার সোমবার স্থানীয় সময় বেলা দশটার মধ্যে পুইদেমনের কাছ থেকে একটি সহজ ‘‘হ্যাঁ বা না'' উত্তর কামনা করেছিলেন৷ কিন্তু পুইদেমন সেরকম কোনো উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়েছেন৷ ‘‘হ্যাঁ বা না বলাটা খুব শক্ত ছিল না,'' সায়িঞ্জ দে সান্তামারিয়া বলেন, ‘‘আগামী তিন দিনে যৌক্তিকতায় ফেরাটাও শক্ত নয়৷''
পুইদেমনের চাল: রাখয়ের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা সোমবারের চরমপত্রের মেয়াদ শেষ হবার আগেই পুইদেমন যে দু'পাতার চিঠি পাঠান, তাতে তিনি স্পষ্ট করে দেননি, তিনি স্পেন থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা  করেছেন কিনা৷ পরিবর্তে তিনি বিষয়টি নিয়ে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাখয়ের সঙ্গে দু'মাসের আলাপ-আলোচনা কামনা করেছেন৷
আগামী দু'মাসে আমাদের মূল লক্ষ্য হলো, আপনার প্রতি সংলাপের'', এবং আন্তর্জাতিক, স্পেনীয় ও কাটালান'' মধ্যস্থদের আলাপ-আলোচনার পথ খোলার সুযোগ দেওয়ার অনুরোধ জানানো, পুইদেমন রাখয়কে লিখিত তাঁর পত্র বলেছেন৷ তাঁর সরকার যে স্বাধীনতা ঘোষণার রাজনৈতিক সনদ মুলতুবি'' রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, এ থেকে তাঁর সরকারের দ্বন্দ্বের পরিবর্তে সমাধান সৃষ্টির দৃঢ় অভিপ্রায়'' প্রমাণিত হয় লিখেছেন পুইদেমন৷
কিন্তু পুইদেমনের চিঠিতে এ-ও বলা হয় যে, পয়লা অক্টোবরের গণভোটের পর কাটালুনিয়ার সংসদ স্বাধীনতা ঘোষণার গণতান্ত্রিক সনদ'' পেয়েছে৷ বিতর্কিত গণভোটটি স্পেনীয় কর্তৃপক্ষের ইচ্ছার বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত হয় এবং অর্ধেকের চেয়ে কম ভোটার অংশগ্রহণ করলেও প্রায় ৯০ শতাংশ ভোট পড়ে স্পেন থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার পক্ষে৷
গত মঙ্গলবার পুইদেমন একটি প্রতীকী স্বাধীনতা ঘোষণা প্রকাশ করার কিছু পরেই তা আবার স্থগিত রাখেন ও বলেন যে, তিনি স্পেন সরকারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার পথ খুঁজবেন৷ সেই যাবৎ কাটালুনিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে৷

এসি/ডিজি (রয়টার্স, এএফপি, এপি, ডিপিএ)

লাবেবুর খাঁন : গত ১৪ই অক্টোবর বার্সেলোনার স্হানীয় এক রেষ্টুরেন্টে প্রবাসী বাংলাদেশী যুব সমাজের ঐক্যের সংগঠন বার্সেলোনা ফ্রেন্স ক্লাব এর আত্মপ্রকাশ করেছে ।
এই সংগঠন প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঐক্য,সমাজ সেবা,সংস্কৃতি ভিনদেশীদের মধ্যে তুলে ধরবে এমন প্রতিক্ষা নিয়ে এ সংগঠনের আত্ম প্রকাশ করা হয়েছে । সংগঠনের মুল আদর্শের সাথে মিল রেখে এ সংগঠন পরিচালিত হবে বলে উপস্হিত আয়োজন বৃন্দ মত প্রকাশ করেন ।সংগঠনের লিমন আহমদের সভাপতিত্বে ও ফয়ছল আহমেদ এর উপস্হিত সদস্য নিজ নিজ মতামত প্রকাশ করেন ।সকলের উপস্হিতিতে  ৩১সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষনা করা হয়।

সদস্য বৃন্দরা হলেন,লিমন আহমদ, নিজামুল রহমান রাজু হোসেন ( সৈয়দ), ফয়ছল আহমদ,আযমল মিয়া, মোঃ উজ্জল হোসাইন ইমরান আহমদ, সন্দ্বীপ রায় মোঃ জাবেদুর রহমান ( রাজন), মোঃ কিরন মিয়া, মোঃ ফিরুজ আলী, মোঃ ফয়সল উদ্দিন, মোঃ আসহাদ আলী, মোঃ ছামছুল আলী, মোঃ সোহাগ মিয়া,জাবেদ মিয়া, মোঃ ইকবাল হোসেন, মোঃ আক্তার আলী, মোঃ মনু মিয়া,লায়েবুর সহ আরো অনেকে ।এ সংগঠনকে প্রতিষ্টিত করার জন্য সকল প্রবাসীদের সহযোগিতা কামনা করেছেন আয়োজক বৃন্দ ।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget