2017-04-30

এম লায়েবুর : গত ৩রা মে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের নেতা কর্মীদের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও দেশে গণতন্ত্র ফিরে দেয়ার দাবিতে  প্রতিবাদ সভা করেছে  কাতালোনিয়া জাতীয়তাবাদীদল বিএনপি  । বার্সেলোনা  স্থানীয় একটি হল রুমে সংগঠনের  সাধারণ সম্পাদক আজমান আলী, মামুনুর রশিদ মামুন ও এ.আর লিটুর যৌথ সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন, কাতালোনিয়া বিএনপির সভাপতি শফিউল আলম (শফি) । আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সেচ্ছাবিষয়ক সম্পাদক জনাব এডঃ সামসুজ্জামান জামান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমদ সাজা ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথী  বলেন, বাংলাদেশে এখন, গুম, খুন, সন্ত্রাসী, চাদাঁবাজি এবং ধর্ষণের দেশে পরিণত হয়েছে, বিএনপির জননেতা এম.ইলিয়াস আলীর জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে তাকে দীর্ঘ ৫বছর ধরে গুম করে রেখেছে  এছাড়া ও আরো শত শত, বিএনপি যুবদল, সেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দকে গুম করে রেখেছে অবিলম্বে তাদের ফিরিয়ে দেওয়ার আহবান জানাচ্ছি। এবং হাজার হাজার বিএনপি,যুবদল, সেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদলের কর্মীকে হত্যা করেছে এই স্বৈরাচার সরকার, আশা করি সকল জাতীয়তাবাদী শক্তির ঐক্য আন্দোলনে, এই ভারতীয় দালালদের অচিরেই পতন ঘটানো সম্ভব হবে।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন কাতালোনিয়া  জিয়া পরিষদের সভাপতি নজরুল ইসলাম,কাতালোনিয়া যুবদলের সভাপতি শফিক খাঁন, সান্তাকলমা বিএনপির সভাপতি হাবিব উল্লাহ আনিস, কাতালোনিয়া বিএনপির প্রচার সম্পাদক এম.লায়েবুরর রহমান, কাতালোনিয়া বিএনপি নেতা সুমন আহমদ, দপ্তর-সম্পাদক আজমান আহমেদ, সেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি আক্কাছ মিয়া, ভয়েস অব বার্সেলোনার সভাপতি ফয়ছল আহমদ,বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম আবির,কমিউনিটি নেতা লুৎফুর রহমান সুমন,ব্যবসায়ী রফিক মিয়া প্রমূখ ।


উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন  কাতালোনিয়া যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ফয়ছল আহমদ, কাতালোনিয়া যুবদলের সাবেক সাধারণ-সম্পাদক আমু আহমেদ, সুইট, মজিদ আহমদ, বুরহান রাজু,আলম হোসেন,সাবের হোসেন,কামাল আহমেদ,বিদু দা,জুয়েল,মুকিত,শেখ সুমন,কামরুল ইসলাম,সামারুল ইসলাম,শাহিন আহমেদ সহ আরো অনেকে ।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস, ফ্রান্স : ফ্রান্স সরকার অনুমোদিত বাংলাদেশী সৃজনশীল সাংবাদিকদের একমাত্র সংগঠন প্যারিস- বাংলা প্রেসক্লাবের ২০১৭-  ২০১৯ সালের কার্য নির্বাহী পর্ষদ গঠন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে প্যারিসের গার দু নর্দের প্যারিজিয়ান ক্যাফে হলে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেস ক্লাবের সদস্যের স্বতঃস্ফূত অংশগ্রহণে এ কমিঠি গঠন করা হয়। 

 বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স ,প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত ফ্রান্সে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে প্যারিস- বাংলা প্রেস ক্লাবের দ্বি- বার্ষিক সাধারণ সভার প্রথম পর্বে ক্লাবের সভাপতি আবু তাহির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন সোহেলের পরিচালনায় সংগঠনের বিগত দু বছরের কার্যক্রম ও আগামী কর্ম পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, ক্লাবের  সিনিয়র সহ সভাপতি শামসুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফুর রহমান বাবু ,কোষাধক্ষ্য ফেরদৌস করিম আখনজি, প্রচার সম্পাদক নয়ন মামুন, সদস্য জাকির হোসেন, আব্দুল আজিজ সেলিম, আবুল কালাম মামুন, নজরুল ইসলাম, রেজাউল করিম, আব্দুল করিম, গোলাম মোস্তফাসহ সংগঠনের সদস্যরা।
এসময় সভায় বাংলাদেশে সাংবাদিক নির্যাতনের তীব্র প্রতিবাদ ও জানান সাংবাদিক নেতারা। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি শামসুল ইসলামকে নির্বাচন কমিশনার ও  নয়ন মামুন ও আব্দুল আজিজ সেলিমকে সদস্য করে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। নির্বাচন কমিশন সকলের সাথে আলাপ আলোচনার ভিত্তিতে সর্বসম্মতিক্রমে আগামী ২০১৭-২০১৯  সালের এনায়েত হোসেন সোহেলকে (চ্যানেল আই ইউরোপ / মিলিনিয়াম টিভি) সভাপতি, লুৎফুর রহমান বাবুকে (সময় সংবাদ,বাংলাটিভি ইউকে) সাধারণ সম্পাদক  ও  নয়ন মামুনকে (এনটিভি/ নবকণ্ঠ) সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কার্য নির্বাহী পর্ষদ গঠন করেন।
কার্য নির্বাহী পর্ষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা হলেন যথাক্রমে  সিনিয়র সহ সভাপতি শামসুল ইসলাম (মোহনা টিভি/ফ্রান্স বাংলা দর্পন),সহ সভাপতি ফেরদৌস করিম আখনজি(নিউজ২৪,/টিবিএন ২৪),সহ সভাপতি  গোলাম কিবরিয়া খালেদ (দেশপ্রিয় নিউজ),সহ সভাপতি ওমর ফারুক(আমাদের সময় /যুগান্তর ), সহ সাধারণ সম্পাদক আব্দুক আজিজ সেলিম(সাহিত্য জমিন),সহ সাধারণ সম্পাদক শাহ মোহাম্মদ জাকারিয়া সাইমন,( ডেইলি ষ্টার ), সহ সাংগঠনিক সম্পাদক(জাকির হোসেন, বিয়ানীবাজার নিউজ ২৪ ডটকম),কোষাধ্যক্ষ  সেলিম চৌধুরী (এনটিভি ইউরোপ), দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম মামুন (ডেইলি সিলেট(,প্রচার সম্পাদক রেজাউল করিম (ইউরো বাংলাটিভি),প্রকাশনা সম্পাদক ফারজানা আকসা (আমাদের কথা)  সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল করিম (জনপ্রিয় ডটকম)।

কার্য নির্বাহী সদস্যরা হলেন, আবু তাহির (নবকন্ঠ), আব্দুল আজিজ (সুরমা মেইল),নজরুল ইসলাম (ফ্রান্স বাংলা দর্পণ), জুনেদ ফারহান (মানব ঠিকানা), মোহাম্মদ নাজমুল কবির (বাংলা পেজ),আলমাস উদ্দিন ময়না (সাপ্তাহিক গোলাব) প্রমুখ।

হিমু ফ্রান্স : মে দিবস উপলক্ষে জাতীয় পার্টি   ফ্রান্স শাখার উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে । সোমবার প্যারিসের একটি হলে সংগঠনের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য  এ কে এম আলমগীর এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হাবীব খান ইসমাইল এর সঞ্চালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি ওমর মজুমদার, সহসভাপতি আবুল হোসেন খোকা মিয়া, সহসভাপতি খান বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুজিব সরকার, বাহার উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক সফিকুল ইসলাম তালুকদার, সহিনুর রাজা চৌধুরী, কামারুজ্জামান,মির্জা আহমদ, হাবিবুর রহমান হাবিব, নাজিম উদ্দিন সহ আরো অনেকে ।


এ সময় বক্তরা বলেন মে দিবসের অন্তর্নিহিত শক্তি ও তাৎপর্য আমাদের জাতীয়, রাষ্ট্রীয় এবং সমাজ জীবনের সর্বক্ষেত্রে অনুসরণ করে চলতে হবে।

বাহার উদ্দিন বকুল, জেদ্দা সৌদি আরব : গত ৪মে বৃহস্পতিবার রাতে জেদ্দার একটি হোটেলে ১লা মে আন্তজাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষে এক শ্রমিক সমাবেশ এর আয়োজন করে জেদ্দা বৃহত্তর গুলাইল শ্রমিক দল।

উক্ত সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন গুলাইল শ্রমিক দলের সভাপতি মুকবুল হোসেন মৃর্ধা। পশ্চিমাঞ্চল শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জসিম ও  পশ্চিমাঞ্চল শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু নাইম এর যৌথ পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, কেন্দ্রীয় নির্বাহি কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব পশ্চিমাঞ্চল বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব। প্রধান বক্তা, কেন্দ্রীয় নির্বাহি কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব পশ্চিমাঞ্চল বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা আলহাজ্জ আব্দুর রহমান।

বিশেষ অতিথিগণের মধ্যে মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন, সৌদি আরব পশ্চিমাঞ্চল শ্রমিক দলের সভাপতি শাহ্‌আলম, আবদুল মান্নান, গাজি সাহেদ রতন, মীর মনিরুজ্জামান তফন, সোহেল রানা জনি, মিজান রাজা, আফজাল হোসেন, আতিকুর রহমান শিপন। কেফায়েত উল্লাহ্‌ চৌধুরী, আয়েত উল্লাহ, এইচ এম মহি উদ্দিন, নুরুল তালুকদার, রাসেল,ইসতেখার আহমেদ সুমন সহ আরও অনেকে।

আলোচকগণ বলেন, শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার আদায়ের সংগ্রামে সৃষ্টি হয়েছে এই শ্রমিক দিবস, তেমনি একদিন দেশের সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ে সংগ্রামী জাতীয়তাবাদী দলের বিজয় হবে। শ্রম ঘামে রুজিরোজগারে থাকা শ্রমজীবী মানুষের অধিকারের কথা বলার বিশেষ দিন পয়লা মে।
পরিবারের সচ্ছলতা আনার বুকভরা স্বপ্ন নিয়ে প্রিয় স্বদেশ ও পরিবার-পরিজন ছেড়ে মানুষ প্রবাসী হন। ভিন দেশে ভিন্ন পরিবেশ অকল্পনীয় খাটুনি খেটে প্রবাসীরা দেশে রেমিটেন্স পাঠান। সেই রেমিটেন্স দেশের জন্য সোনার হরিণের মত।বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স রাখছে অসামান্য অবদান।
তাই আজ প্রবাসীদের চাওয়া পাওয়া তেমন কিছুই নেই শধু একটু শান্তি। যেমন হজরত শাহজালাল আন্তজাতিক বিমান বন্দরে প্রবাস থেকে দেশে বেড়াতে আসার সময় এবং দেশের থেকে আবার ফিরে যাবার সময় বিমানবন্দরে সাধারণ প্রবাসীরা পাচ্ছেনা প্রত্যাশিত ব্যবহার।


এরপর জেদ্দা জাসাস শিল্প গোষ্ঠীর উদ্যোগে পরিবেশন করা হয় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সেলিম আলম,মাদ্রিদ : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল স্পেনের সমর্থক ও নেতা কর্মীদের উদ্যোগে  তারেক রহমানের উপর গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির  প্রতিবাদে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত হয়েছে । মাদ্রিদের স্থানীয় এক রেষ্টুরেন্টে গত ২মে সন্ধ্যায় এ সভা অনুষ্টিত হয় ।
সংগঠনের সভাপতি আব্দুল কাইউম পংকির সভাপতিত্বে এবং আবু জাফর রাসেলের পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক বিষয়ক সহ  সম্পাদক সামসুজ্জামান জামান,ইউ কে বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক ও বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজা, বক্তারা বলেন মামলা হামলা বা গ্রেফতারী পরওয়ানা দিয়ে সরকার বিএনপিকে থামিয়ে রাখতে পারবেনা।তারা  দেশের স্বাধীনতা রক্ষায় দেশপ্রমিক সকল কে এক হয়ে কাজ করার আহবান জানান। এ সময় বক্তব্য রাখেন মনোয়ার হুসেন মনু,সুহেল আহমেদ সামসু,রিয়াজ উদ্দিন লুতফুর, এমদাদুল হক,আব্দুল  গফুর, সাইফুল আলম প্রমুখ।

কবির আল মাহমুদ : যুক্তরাজ্য বিএনপি'র সভাপতি এম এ মালেক স্পেনের মাদ্রিদে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হাতে লাঞ্চিত  হওয়ার ঘটনার জেরে দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারিতে ৭ জন আহত হয়েছেন।  ঘটনাস্থল থেকে  চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে স্পেন পুলিশ ।

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি করায় যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ  মালেক  গত ২ মে মঙ্গলবার  মাদ্রিতে লাঞ্ছিত হয়েছেন। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকালে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের বাংলাদেশি অধ্যুষিত লাভাপিয়েছের  স্থানীয় বাংলা টাউন রেস্টুরেন্টে স্পেন  বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় সভায় বক্তব্যের এক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি করে বক্তব্য দেন এম  এ মালেক । এ সময় মতবিনিময় সভা স্থলে অদূরে অবস্থান করা আওয়ামী লীগের কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক সময় আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ কর্মীরা দলীয় শ্লোগান দিয়ে এম এ  মালেককে গালিগালাজ করে,ডিম ছুড়ে লাঞ্ছিত করে। মুহূর্তের মধ্যে সমাবেশ স্থলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মাদ্রিদ বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করে আগামী ১৫ মে  স্পেন আওয়ামী লীগের সম্মেলন পন্ড করে এর দাঁত ভাঙা দেয়ার ঘোষণা দেয় ।

বিক্ষোভ মিছিল থেকে বাসায় ফেরার পথে বি এন  পি নেতা  সুহেল আহমেদ সামসুলর উপর  আকস্মিকভাবে  হামলা করে  আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ কিছু  কর্মী। এর প্রতিবাদে স্পেন বি এন পি জামাতের নেতাকর্মীরা জড়ো হয়ে রাত ১ টায় স্পেন আওয়ামীলীগের  সংবাদ সম্মেলনস্থল   স্থানীয় মাতৃভূমি রেষ্টুরেন্টে গেলে উভয় গ্রূপের মধ্যে  উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে । এ সময় সংবাদ  সম্মেলন স্থলে  সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্পেন আওয়ামী লীগ নেতা এস আই আর এস রবিন, আব্দুল কাইয়ুম সেলিম, রিজবী আলম, দুলাল ছাফা, জহিরুল ইসলাম নয়ন, জহিরুল ইসলাম রফিক খাঁন, জাকির হোসেন, ফারুক আহম্মেদ মুবিন, আক্তার উজ্জামান, কাজী পারভেজ ও ইফতেখার আলম প্রমুখ।

এ দিকে   স্পেন বিএনপি'র সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম পন্খি এবং সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে বিপ্লবসহ প্রায় ৩০ জনের একটি গ্রুপ সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত বি এন পি নেতার হামলার কারণ জানতে চাইলে উভয় গ্রূপের মধ্যে উত্ত্যেজনা দেখা দেয় । এতে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। এতে উভয় গ্রূপের ৭ জন আহত আহতরা হলেন স্পেন আওয়ামী লীগ নেতা ফয়সাল আহমেদ ,যুবলীগে নেতা দবির তালুকদার ,ইফতেখার আলম ,জুবের খান স্পেন বি এন পি সভাপতি  আব্দুল কায়ুম পংকি ,সুহেল আহমেদ সামসুল  আবূ জাফর রাসেল প্রমুখ।  এ সময় পুলিশ এসে পরিস্তিথি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় পুলিশ  ঘটনাস্থল থেকে আল মামুন, কামরুজ্জামান  ও দিদার আলম  নামে তিন জনকে গ্রেতার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে বর্তমানে মাদ্রিদে অবস্থানরত  যুক্তরাজ্য বি এন পির সভাপতি এম এ মালেকের সাথে যোগাযোগ করলে তার উপর ডিম নিক্ষেপের কথা স্বীকার করে
 তিনি বলেন, ,অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারী হাসিনার নিয়োগকৃত স্পেনের বাংলাদেশের রাস্ট্রদূত হাসান (RAB এর সাবেক ডিজি) মাহমুদএবং আওয়ামী লীগের  প্রত্যক্ষ মদদে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা আমার  প্রাননাশের উদ্দেশ্যে হামলা চালায় ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।  তিনি বলেন, শেখ হাসিনা এবং বর্তমান সরকারের অব্যাহত মানবতা ও গণবিরোধী স্বৈরাচারী আচরণের প্রতিবাদ করে যাচ্ছি আমি প্রতিনিয়ত, এজন্যই আমি ডিম নিক্ষেপকারীদের আক্রোসের শিকার। আসলে এটিই আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কালচার, সমালোচনা তারা সহ্য করতে পারেনা।
  স্পেন আওয়ামীলীগ সভাপতি শাকিল খান পান্না এম এ মালেক এর সমালোচনা করে বলেন ,তিনি যে রকম দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে অপকর্ম ও ষড়যন্ত্র করে চলেছেন স্পেন কেন পৃথিবীর যে কোনো প্রান্থে যান না কেন তাকে এ রকম পরিস্তিথির সম্মুখীন হতে হবেন।
স্পেন বি এন পির  সভাপতি আব্দুল কায়ুম পংকি, এই ঘটনার তীব্র নিন্ধা জানিয়ে বলেন , যাদের কে গ্রেফতার করা হয়েছে তারা কেউ ই হামলার সাথে সম্পৃক্ত নয়। তাদের কে সামাজিক ভাবে হয়রানি করতে তাদের নামে মামলা করা হয়েছে।
এ ঘটনায় উভয় গ্রূপের মধ্যে মামলার প্রস্তুতি চলছে । এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।  যেকোনো মুহূর্তে আবারও সংঘর্ষের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

। এদিকে বর্তমানে স্পেনে  অবস্থানরত  বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট সামসুজ্জামান জামান  ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তাদের আওয়ামী সন্ত্রাসীদের ভবিষ্যত সব সন্ত্রাসী কার্যক্রম প্রতিহত করার জন্য বি এন পি নেতৃবৃন্দকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ।

মিরন নাজমুল, বার্সেলোনা : স্পেনের বার্সেলোনায় ঢাকা জেলা সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বনভোজন ২০১৭ উদযাপন করেছে। গত ১ মে সোমবার মনজুয়িক পাহাড়ের মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে সংগঠনের সদস্য ও কমিউনিটির অন্যান্য সংগঠনের অতিথিবৃন্দ উক্ত বনভোজনে অংশগ্রহণ করেন। সংগঠনের সভাপতি শাহ আলম স্বাধীনের পরিচালনায়, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান সোহেলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত উক্ত বনভোজন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ জাহাঙ্গির আলম, বাংলাদেশ সমিতি বার্সেলোনার প্রধান উপদেষ্টা আলাউদ্দিন হক নেসা, সভাপতি মাহারুল ইসলাম মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার, সুনামগঞ্জ এসোসিয়েশনের সভাপতি মনোয়ার পাশাসহ কমিউনিটির আরো বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।


বিকেল ৩টায় উপস্থিত অতিথিদের মাঝে প্রীতিভোজনশেষে বিভিন্ন খেলা ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়। পুরুষ, মহিলা ও শিশুদের মাঝে অনুষ্ঠিত ক্রীড়া প্রতিযোগিতাশেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। বনভোজনশেষে সংগঠনের সভাপতি সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সংগঠনের সার্বিক কার্যক্রমে সফলতার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

মোঃ কামরুজ্জামান, ফ্রান্স :  শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতির তীর্থভূমি ফ্রান্সে প্রায় পঞ্চাশ হাজার এর অধিক বাংলাদেশী বসবাস করে। এই বসবাস শুরু হয়েছে দীর্ঘ সময় পূর্ব  হইতে। ফ্রান্সের স্থানীয় প্রশাসন ও জনগোষ্ঠীর কাছে  বাংলাদেশীরা ফরাসী আইনের প্রতি আনুগত্য, নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি, ব্যবসা বাণিজ্য, ভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর প্রতি সম্মান প্রদর্শন সহ বিভিন্ন কারণে বাংলাদেশ নামটা বেশ পরিচিতি লাভ করেছে। ফ্রান্সে বাংলাদেশীদের ফরাসী প্রশাসনে রেজিস্ট্রেশনকৃত প্রায় একশত চল্লিশ এর অধিক সংগঠন রয়েছে।
ফ্রান্সে অনেকে ব্যক্তিগতভাবে বা সংগঠনের নেতৃত্ব থেকে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে বাংলাদেশীদের সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। কিন্তু এত বড় বাংলাদেশী একটা জনগোষ্ঠী থাকার পরও ফরাসী রাজনীতিতে বা জনপ্রতিনিধি হিসেবে কেউ নাই। অথচ ব্রিটেনে বৃটিশ বাংলাদেশীদের মধ্যে রাজনৈতিকভাবে স্থানীয় পর্যায়ে অবদান বেশি রাখলেও অনেকে জাতীয়ভাবেও বিশেষ অবদান রেখে চলেছেন। ২০১৫ সালের ব্রিটেনের পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে এমপি পদে প্রধান তিনটি দল থেকে ছয় জন নির্বাচন করেছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী, টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক, রূপা আশা হক, আনোয়ার বাবুল মিয়া, মিনা সাবেরা রহমান ও প্রিন্স সাদিক চৌধুরী। এর মধ্যে রোশনারা আলী আলী,রূপা হক ও টিউলিপ সিদ্দিক জয়লাভ করেছিলেন। এছাড়া টাওয়ার হ্যামলেটের মেয়র নির্বাচিত  হয়েছিলেন লুৎফর রহমান । মেয়র নির্বাচনে লেবার পার্টির প্রার্থী হয়েছিলেন কাউন্সিলর হেলাল আব্বাস।খালেস উদ্দিন আহমেদ এবং হেলাল রহমান কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। মুরাদ কুরেইশি লেবার রাজনীতিবিদ হিসেবে গ্রেটার লন্ডন এসেম্বলিতে দায়িত্ব পালন করেছেন।ব্রিটেনে লর্ড সভার সদস্য,পার্লামেন্ট মেম্বার,মেয়র,কাউন্সিলর,জজ,প্রশাসনিক কর্মকর্তা সব বাংলাদেশীরা অর্জন করেছেন।নরওয়েতে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সায়রা খান  এবং আখতার চৌধুরী নামে আরেক বাংলাদেশী পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন কিন্তু ফ্রান্সে  বাংলাদেশীদের ফরাসী রাজনীতিতে কোন অবস্থানই নাই।             

ফ্রান্সে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে অনেক যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তি আছেন ফরাসী রাজনীতিতে প্রতিনিধিত্ব করা এবং জনপ্রতিনিধি হওয়ার।উদাহরণ সরূপ ফ্রান্সের তুলুজের ফখরুল আকম সেলিম।তিনি দীর্ঘদিন যাবত বাংলাদেশীদের ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ বা আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশীদের ফরাসী সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার অবদান রেখেছেন। তুলুজে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ার পেছনে তার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অবদান রয়েছে।তিনি ফরাসী ভাষায়ও পারদর্শী, স্থানীয় প্রশাসনিক পর্যায়েও তার পরিচিতি রয়েছে এবং দীর্ঘদিন ধরে তুলুজ এবং ইউরোপের বাংলাদেশী সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে আসিতেছেন। এই সকল ব্যক্তি ফরাসী রাজনীতিতে আসলে বা ভবিষ্যতে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি অনেক উজ্জ্বল হবে।পাশাপাশি ফ্রান্সে বসাসরত বাংলাদেশীরাও বিভিন্নভাবে লাভবান সহ ভবিষ্যৎ প্রজন্ম ফ্রান্সের মূলধারার  রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়ার পথ খুলে যাবে।তাই এর জন্য প্রয়োজন তুলুজে বসবাসরত বাংলাদেশীদের সম্মিলিত বা ঐক্যজোট হয়ে ফখরুল আকম সেলিমকে রাজনীতিতে যোগদান এবং স্থানীয় বা জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থীতা হওয়ার উদ্বুদ্ধ করা। প্রকৃত পক্ষে বর্তমান সহ ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে মূলধারার এ রাজনীতিতে সম্পৃক্ত রাখতে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস এর বিকল্প  নেই। একইভাবে প্যারিস, লিল, লিয়ন, বজাঞ্ছঅ এবং মারশাই সহ যেসব জায়গায় যোগ্য বাংলাদেশী রয়েছেন তাদেরকেও উদ্বুদ্ধ করতে হবে, তাহলে অদূর ভবিষ্যতে ব্রিটেনের মত ফ্রান্সেও বাংলাদেশীরা সুনাম অর্জন করতে পারবে।  
এখন বাংলাদেশীরা স্বপ্নের দিন গুণতে শুরু দেখতে চায় যে, কবে সেই সুদিন আসবে, যেদিন ফ্রান্সে ব্রিটেন এবং নরওয়ের মত ফ্রান্সের মূলধারার রাজনীতিতে বাংলাদেশীরা সম্পৃক্ত হয়ে লাল সবুজের বাংলাদেশকে ফ্রান্সের ইতিহাসের সাথে সম্পৃক্ত করবে।

মোহা. আব্দুল মালেক হিমু- প্যারিস ফ্রান্স থেকে : ছুটির দিন রোববার, আকাশে জমে থাকা ধূসর কালো মেঘ, গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি তারপরও থেমে নেই ফ্রান্সের উৎসব প্রিয় প্রবাসী বাঙলাদেশীরা । দুপুর হতেই আসতে শুরু করেছেন প্যারিসের জুরেস পার্কে ।
ভেদাভেদ ভুলে উত্সবের রঙে শামিল হয়েছেন বাঙ্গালীর প্রানের উৎসব বৈশাখী উত্সবে। পান্তা-ইলিশ, শোভাযাত্রা, শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, ঢাক-ঢোল, নাচ-গান, ব্যানার, ফেস্টুন রং আর উল্লাসের সব আয়োজনই ছিল উৎসবে । দুই পর্বের এ অনুষ্ঠানের প্রথমেই শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি এমদাদুল হক স্বপন ।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে এসে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানান, বাংলাদেশ দূতাবাসের হেড অব চ্যান্সেরি মোহাম্মদ হজরত আলী খান। অনুষ্টানের পৃষ্ঠপোষক ও অল ইউরোপীয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন (আয়েবার) মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ ইনু, তুলুজ বাংলাদেশী কমিউনিটি এসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিম, ইয়থ ক্লাবের সভাপতি শরীফ আল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক টি.এম রেজা,  ফ্রান্স বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত ভট্রাচার্য শুভ, ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ কাশেম, চট্টগ্রাম সমিতির সহ সভাপতি তাপস বড়ুয়া রিপন,  চিত্র শিল্পি শাহাদত হোসেন, স্থপতিবিদ আবু হোসেন জামাল, চট্টোগ্রাম সমিতির সহ সভাপতি তাপস বড়ুয়া রিপন, ফ্রান্স বাংলা প্রেস ক্লাবের আহবায়ক ফয়ছল আহমদ দ্বীপ, সদস্য সচিব মাম হিমু, অধ্যাপক অপু আলম, দেবেশ বড়ুয়া, দেলওয়ার হোসেন সেলিম, সাংস্কৃতি কর্মী হাসনাথ পলাশ সহ ফ্রান্সে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মীরা ।

প্রথম পর্ব পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী এবং সাংস্কৃতিক পর্ব যৌথ উপস্থাপনা করেন মুহিত আহমদ এবং নাজনীন তানিয়া । সাংস্কৃতিক পর্বে কবিতা আবৃত্তি, দেশী সঙ্গীত ও নৃ্ত্য পরিবেশন করেন বাংলাদেশ থেকে আগত চ্যানেল আই সেরা কন্ঠের মামুন, ক্লোজআপ ওয়ান প্রতিযোগী শেফালী সারগাম ও প্যারিসের জনপ্রিয় শিল্পীরা। প্রবাসী বাংলাদেশীর পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক ভিনদেশী নাগরিকরা অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget