2017-01-01

আহমদ শাহজান বেলজিয়াম থেকে : ৫ই জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস উপলক্ষে বেলজিয়াম বিএনপির পক্ষ থেকে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়েছে বেলজিয়ামের লিয়াজ শহরের স্থানীয় এক হলে।
সানুয়ার আলি সানুরের পরিচালনায় ফারুক আহমেদ রানার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বেলজিয়াম বিএনপি'র সাবেক সফল সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান লিটন। এতে কোরআন তেলাওয়াত করেন সানুর আলী, প্রতিবাদ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বেলজিয়াম বিএন'পির লুৎফর রহমান মিলন, মনোয়ার হুসেন মুন্না,আসরাফ কিটু,শাহ্‌জাহান আহমেদ,তচু মিয়া,হাবিবুল ভুইয়ান সোহাগ,মাসুম,জুয়েল খাঁন,কবির উদ্দিন,মতিউর আহমেদ,নাজমুল আহমেদ,আলী মরতুজা,পলাশ,নিশাদ,ইমরান আহমেদ, খোকন,নয়ন,রেজু আহমেদ,পিয়াস,আজাহার বাবু,হুমায়ুন কবীর,কাঞ্চন,কাজী নুবিন,সোহেল,উবায়দুল হক,ইসমাইল,জসিম,আনোয়ার,শেখ শহীদ সহ আনেকেই। এতে বক্তারা বলেন দেশ আজ কঠিন সমস্যায় নিমজ্জিত, দেশের মানুষ বিনা ভোটে নির্বাচিত অবৈধ আওয়ামীলীগ সরকারের তাঁবেদারিতে আজ জিম্মি হয়ে আছে। দেশে আজ সাধারন জনগনের কোন নিরাপত্তা নেই,চলছে সরকারী দলের লোকদের হরিলুট। আওয়ামীলীগ ৫ই জানুয়ারি প্রহসন মূলক নির্বাচনের মাধ্যমে নিজের দলের লোকদের দিয়ে নির্বাচন করে আজ জনগনকে বন্দুকের নালায় রেখে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে।সেই নির্বাচন দেশের জনগন মানে নি।দেশের মানুষ আজ মুক্তি পেতে চায় স্বৈরাচারী সরকারের হাত থেকে।বেলজিয়াম বিএনপির সাবেক সফল সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বলেন বেলজিয়াম বিএনপি বাংলাদেশের মানুষের পাশে থেকে অবিরাম অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে যাবে যতদিন পর্যন্ত নিরপেক্ষ ত্বত্তাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়া না হবে। বক্তারা আরো বলেন গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য দেশনায়ক তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করার জন্য বেলজিয়াম বিএনপি সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান লিটন ভাইয়ের নেত্রিত্বে সব সময় একত্রে কাজ করে যাবে।

হোসাইন আহমেদ,পর্তুগাল থেকে : ৫ই জানুয়ারী রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ সকাল ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত সাক্ষাত করেন পর্তুগালে বসবাসরত বাংলাদেশির সাথে।

এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশিরা রাষ্ট্রদূতের ভুয়ূসী প্রশংসায় মেতে উঠেন। পর্তুগাল বাংলাদেশ দূতাবাসে এম,আর,পি দ্রুত প্রবাসীদের হাতে তুলে দেওয়ায় রাষ্ট্রদূতকে কমিনিটি নেতৃবৃন্দ বিশেষ ধন্যবাদ জানান ,
এছাড়াও পর্তুগালের মাঠিতে ২টি স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপন করায় রাষ্টদূতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশীদের সহযোগীতা না পেলে এমন কাজ করা সম্ভব ছিলনা বলে তিনি অভিমত ব্যাক্ত করেন।
পর্তুগালে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমদের বিদায়ী সাক্ষাতে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ,
পর্তুগাল বিএনপি, মাতরিম মনিজ জামে মসজিদ কমিটি, বৃহত্তর ফরিদপুর এসোসিয়েশন, বৃহত্তর নোয়াখালী এসোসিয়েশন পর্তুগাল,পর্তুগাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ এ্যাসোসিয়েশন সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মিলিত হন সফল রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদের সাথে।
সাক্ষাতের এক পর্যায়ে আওয়ামীলীগের সভাপতি জহিরুল আলম জসিম এর জন্ম দিনের কেঘ কেটে আনন্দ উৎসব করা হয়।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস,ফ্রান্স : আনন্দঘন আয়োজন আর জাঁকজমকের মধ্যে দিয়ে ফ্রান্সে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। গত ২৮শে ডিসেম্বর  প্যারিসের মাক্সদর্মিতে ফ্রান্সে বসবাসরত সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

এ সময় আলোচনা সভা ও কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়। সিলেট জেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি শেখ নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সমাজসেবা সম্পাদক আশিকুজ্জামান আশিক এবং জেলা ছাত্রদল সদস্য জসিম আহমদের যৌথ পরিচালনায় এসময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স বিএনপির সভাপতি সৈয়দ সাইফুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ফ্রান্স বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুনেদ আহমদ, সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল গাফফার,জেলা ছাত্রদল সদস্য মির্জা খালেদ, কয়েছ আহমদ, তোফায়েল আহমদ, সাজ্জাদ আহমদ, ফ্রান্স বিএনপির সদস্য জাকারিয়া আহমদসহ ছাত্রদল ও বিএনপির নেতৃবৃন্দ। এসময় বক্তারা বলেন, বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করে স্বৈরাচারী সরকার আজ পুরো দেশটাকে কারাগারে পরিণত করেছে। সরকার জনপ্রিয়তা হারিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা সাজিয়ে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে দূরে সরিয়ে রাখার অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে। ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে গণতন্ত্রকে ভূলুণ্ঠিত করেছে আওয়ামীলীগ ।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস,ফ্রান্স : ফ্রান্সের জনপ্রিয় সামাজিক সংগঠন ফেঞ্চুগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ফ্রান্সের পূর্ণাঙ্গ কমিঠি প্রকাশ করা হয়েছে।

গত ৩ জানুয়ারি মঙ্গলবার সংগঠনের আহবায়ক মোহাম্মদ সেলিম,যুগ্ম আহবায়ক খসরুজ্জামান ও সদস্য সচিব ফয়সল আহমেদ কর্তৃক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ বিষয়টি অবগত করেন । ২০১৭-২০১৮ সালের জন্য এ কমিটিতে সভাপতি পদে জুনেদ আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে শিবলু মিয়া ও কোষাধ্যক্ষ পদে জেবুল খান,সহ কোষাধক্ষ গুলজার আহমদ মনোনীত হোন। কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা হলেন, সিনিয়র সহসভাপতি ফয়ছল আহমদ, সহ-সভাপতি যথাক্রমে কামরুল চৌধুরী,খালেদ চৌধুরী,রেজাউর রহমান মিঠুন ,আব্দুর রহিম,রাজু আহমদ,আজিজুল হক ,রুমেল উদ্দীন,এনাম উদ্দীন,মিসবাহুর রহমান চৌধুরী প্রিন্স। সহ-সেক্রেটারী যথাক্রমে জাকারিয়া আহমদ,লকুছ মিয়া মোনাজ্জের আলী ,রাহেল আহমদ, রাজু আহমদ,শাহীদ আহমদ,সাইফুল জুম্মান,আবু মিয়া,নুরুল ইসলাম, ফাহিম আহমদ। সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান আহমদ,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমত আহমদ, আফরোজ হোসেন লাভলু,প্রচার সম্পাদক রনি হোসেন,দফতর সম্পাদক-তাজ উদ্দীন তাজুল,আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাসুদুর রহমান রুমেল,সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সুমন আহমদ,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাদির ,সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাহানা বেগম শাবানা,সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক মমতা বেগম,ক্রীড়া সম্পাদক শাহীদুর রহমান পলক,মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক ফয়সল আহমদ ,সহ মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক নানু মিয়া,মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা মিসেস মিঠু রহমান,সহ মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আমিনা বেগম,তথ্য বিষয়ক সম্পাদক মালেকাজ্জামান চৌধুরী (মিসেস শিবলু)সদস্যবৃন্দ এম খালেদ আহমদ,জয়নাল আবেদীন খান,ফরিদুজ্জামান,সাঈদ আহমদ,হাকীম মিয়া,জায়েদ আহমদ। কমিঠির উপদেষ্টারা হলেন,সিরাজুর রহমান, ওলিউর রহমান,হাজি হাবিব,হেনু মিয়া, হাজি সাইদুর রহমান,খসরুজ্জামান,মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, দুলু মিয়া,শওকত আলী,খালিক মিয়া , ঝিনুক মিয়া।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস, ফ্রান্স : ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ৫ জানুয়ারিকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস হিসেবে পালন করেছে ফ্রান্স বিএনপি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ম্যাক্সদর্মীর একটি হলে এ দিবস পালন করা হয়। ফ্রান্স বিএনপির সভাপতি সৈয়দ সাইফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক জুনেদ আহমদের পরিচালনায় এতে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফ্রান্স বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জালাল খান। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,ফ্রান্স বিএনপির সিনিয়র সাধারণ সম্পাদক কবির পাঠোয়ারী,বিএনপি নেতা ইলিয়াস কাজল,ফ্রান্স বিএনপির সহ সভাপতি রশিদ পাঠোয়ারী,সহ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জালাসুজ্জামান,সাহিত্য ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক কবি রুবেল,সিলেট জেলা ছাত্রদলের সহ সভাপতি নুরুল ইসলাম,সমাজ সেবা সম্পাদক আশিকুজ্জামান আশিক,ছাত্রদল নেতা মুহিব আহমদ,রুমেল উদ্দিন,বিয়ানীবাজার পৌর ছাত্র দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল হক রাসেল,বিয়ানীবাজার উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক শিব্বির আহমদ, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্মসম্পাদক সাইদুর রহমান পলক, ফ্রান্স বিএনপির সদস্য জাকারিয়া আহমদ,জাসিম আহমদ,খালেদ আহমদ,শরীফ আহমদ,কমর উদ্দিন,তাকবীর আহমদ,তাজ উদ্দিন তাজ,আলতাফ হোসেন প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ছিল সরকারের একটি পাতানো নির্বাচন। ওই নির্বাচনের মাধ্যমে বর্তমান সরকার দেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়। ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোন অধিকার নেই। এজন্য সরকারের উচিৎ পদত্যাগ করে অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধিনে নির্বাচন দেওয়া। বক্তারা বলেন,৫ জানুয়ারির নির্বাচন তখন এটিকে নিয়ম রক্ষার নির্বাচন বললেও জনগণের সাথে প্রতারণার মাধ্যমে ভোটারবিহীন একটি নির্বাচন অনুষ্ঠান করে গনতন্ত্রকে হত্যা করেছে বাকশাল বাহিনী। আগে সাংবিধানিকভাবে দেশে বাকশাল কায়েম করা হয়েছিল। আর আজ দেশে এই সরকার অসাংবিধানিকভাবে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করে অবৈধভাবে দেশ পরিচালনা করছে।৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালের এই দিনে ভোটারহীন নির্বাচনের মাধ্যমে মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে জনগণকে করা হয়েছে পরাধীন।

পর্তুগাল প্রতিনিধি : অল ইউরোপীয়ান বাংলা প্রেস ক্লাব এর সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম উদ্দিন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নুরুল্লাহ সাক্ষাত করেন। এই সময় তারা রাষ্ট্রদূতের ৩ বছরের যৌক্তিক সাফল্য কথা রাষ্টদূতকে স্মরণ করে দেন। 

রাষ্ট্রদূতের ৩বছরের সাফল্য গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের প্রাণকেন্দ্রে স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপন ও পর্তুগালের ২য় বৃহত্তম শহর পর্তুতে আরও একটি স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপন।এছাড়াও স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের বিষয়ে পর্তুগাল সরকারের সাথে সমঝোতা স্থাপন।এরই মধ্যে বাংলাদেশের স্বপ্নদ্ৰষ্টা ও বাংলাদেশ নামের একটি রাষ্ট্রের জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি লিসবনের বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকায় স্থাপনের বিষয়ে পর্তুগাল সরকারের সাথে সমঝোতা স্বাক্ষর করেন এবং বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীর পর্তুগীজ ভাষায় রূপান্তরের জন্য প্রেস সেকশনে পাঠান যা এখনো প্রক্রিয়াধীন ,দ্রুত এর কাজ সমাপ্ত হলে পর্তুগালের সরকারী - বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় প্রেরণের আনুষ্ঠানিক কার্য সম্পাদন। বাংলাদেশ ও পর্তুগাল সরকারের সাথে কূটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পর্তুগালের রাষ্ট্রপতির কাছে ইতিমধ্যে বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতির দাওয়াতপত্র পৌছিয়ে দেন। আগামী ১-২ মাসের মধ্যে পর্তুগালের রাষ্ট্রপতির নেতৃত্বে একটি ১৫-২০জনের একটি দল বাংলাদেশ সফর করবেন বলে তিনি মনে করেন। পর্তুগাল বাংলাদেশ দূতাবাসের ৩ বছরের কর্মজীবনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের ভালোবাসা এবং সহযোগীতার জন্য পর্তুগাল প্রবাসী সকল বাংলাদেশীদের কৃতজ্ঞতাসহ ধন্যবাদ জানান।৫ই জানুয়ারী সর্বসাধারণের সাথে সাক্ষাৎকারের জন্য বিকাল ৩টা থেকে তিনি দূতাবাসে অবস্থান করবেন বলে জানান।

জনপ্রিয় অনলাইন : বছরের শেষ দিনটাই তাঁর সামনে এনে দিয়েছিল দারুণ এক সুযোগ। কিন্তু সুযোগটা মুঠোয় পুরতে পারলেন না জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ। লিওনেল মেসিকে ছাড়িয়ে যেতে দরকার ছিল জোড়া গোল। একটা গোল করলেও ছুঁতে পারতেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ২ গোল পেলেও। কিন্তু একটি মার্শিয়ালের, অন্যটি পগবার। মিডলসবরোর বিপক্ষে ২-১ গোলের জয়ে তাই ব্যক্তিগত আনন্দের উপলক্ষ পেলেন না ইব্রা।

মেসিকে ছাপিয়ে যাওয়া মানে হতো সবাইকেই ছাপিয়ে যাওয়া। ২০১৬ সালের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের প্রায় সব পুরস্কার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দখলে গেলেও এই বছরটা গোল করে ও করিয়ে সবচেয়ে ভালো যে কেটেছে মেসিরই। ইউরোপের শীর্ষ ৫ লিগে খেলা ফুটবলারদের মধ্যে ৫১ গোল করে মেসিই সবার ওপরে।
ফুটবল মৌসুমভিত্তিক খেলা। এক বছরের মাঝামাঝিতে শুরু হয়ে আরেক বছরের মাঝামাঝিতে শেষ হয়। এ কারণে এক বর্ষপঞ্জির হিসাব সেভাবে চোখে পড়ে না। তবে গতকাল একটা বছর যেহেতু শেষই হয়ে গেল
, অনেকেরই আগ্রহ থাকে বছরের হালখাতায় চোখ বোলানোর।
ইউরোপের পাঁচ শীর্ষ লিগ
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, স্প্যানিশ লা লিগা, জার্মান বুন্দেসলিগা, ইতালীয় সিরি ও ফরাসি লিগ ওয়ানের ক্লাবগুলো হয়ে খেলা খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গোল মেসির। দ্বিতীয় স্থানে আছেন ইব্রাহিমোভিচ৫০ গোল। তিনি অবশ্য এই ৫০ গোলের বেশির ভাগই করেছেন প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে। বছরের মাঝখানে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে এসেও ইব্রা গোল করে চলেছেন। ৩৪ বছর বয়সেও বছরে গোলের ফিফটি করা দুর্দান্ত তো বটেই।
রোনালদো ২০১৬ সালটিকে তাঁর ক্যারিয়ারের সেরা বছর বলছেন। এ বছর চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার পাশাপাশি পর্তুগালের হয়ে ইউরোও জিতেছেন। কিন্তু মোট গোলে মেসির চেয়ে বেশ পেছনেই আছেন রোনালদো। তাঁর গোলসংখ্যা ৪২। জার্মান লিগের সেরা গোলদাতা বায়ার্ন তারকা রবার্ট লেভানডফস্কি আছেন আরও পেছনে
তাঁর গোল ৩৯।
মেসির বার্সা সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ নিজেকে কিছুটা দুর্ভাগা ভাবতেই পারেন। ৪৮ গোল করেই বছরের দৌড়টা থামিয়ে দিতে হয়েছে তাঁকে। ২০ ডিসেম্বরের পর বড়দিন আর নববর্ষের লম্বা ছুটি চলছে লা লিগায়। সুয়ারেজ বলতেই পারেন, এই সময় ইব্রাহিমোভিচের মতো খেলার সুযোগ পেলে (ইংলিশ ফুটবলে বড়দিন ও নববর্ষের ছুটি নেই) তিনি হয়তো মেসিকে ছুঁয়ে ফেলতে পারতেন। তবে এটা ঠিক এই সুয়ারেজ যে ম্যাচগুলো খেলতেন, সেগুলোতে তো মেসিও খেলতেন! খেলা হলে সুয়ারেজের যেমন সম্ভাবনা থাকত, ঠিক তেমনি মেসিরও সুযোগ থাকত নিজের গোলসংখ্যা বাড়িয়ে নেওয়ার।
মেসি এবারও ধরে রেখেছেন নিজের শ্রেষ্ঠত্ব। ২০১৬ সালে
সেই মেসিকে দেখার আনন্দও ফিরে এসেছে। সেই ড্রিবলিংয়ের জাদু। কিন্তু বছর শেষের চওড়া হাসি হাসবেন রোনালদোই। মেসি আরও একবার কোপা আমেরিকার ফাইনাল থেকে কেঁদে ফিরেছেন। সেই দুঃস্মৃতিও ফিরে আসবে। আর রোনালদো বছরটা শেষই করেছেন ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে হ্যাটট্রিক করে! সূত্র: ইএসপিএন।
২০১৬ সালের সর্বোচ্চ ৫ গোলদাতা
১. লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ৫১
২. জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ পিএসজি/ইউনাইটেড ৫০
৩. লুইস সুয়ারেজ বার্সেলোনা ৪৮
৪. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ ৪২
৫. রবার্ট লেভানডফস্কি বায়ার্ন মিউনিখ ৩৯

* শুধু ক্লাবের হয়ে গোল, জাতীয় দলের গোল ধরা হয়নি

ইমদাদুর রহমান ইমদাদ,সিলেট থেকেঃ সিলেটের অরাজনৈতিক,স্বেচ্ছাসেবী, সমাজ কল্যাণমুলক ছাত্র সংগঠন কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের ২০১৭ সালের কার্যকরী পরিষদ গঠিত হয়েছে। সিলেট মহা নগরীর শিবগঞ্জ সোনারপাড়ায়স্থ এডু - এইড স্কুল এন্ড কলেজে গত ৩০ ডিসেম্বর  অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় সংগঠনের ৪৭ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদ গঠন করা হয়।
সংগঠনের আহবায়ক আলী আল মাসুদের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আসিফ আযহারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের নিবন্ধিত সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে ২০১৭ সালের কার্যকরী পরিষদ ঘোষণা করা হয়। প্রাণবন্ত আলোচনা শেষে সভায় উপস্থিত সকল নিবন্ধিত সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আসিফ আযহার-কে সভাপতি ও এম. সি. কলেজের শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম-কে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে সংগঠনের কার্যকরী পরিষদ ঘোষণা করা হয়েছে। কার্যকরী পরিষদের অন্যান্য দায়িত্বশীলরা হলেন- সহ সভাপতি: এহসান ই এলাহী (শাবিপ্রবি), গোলাম কিবরিয়া শিপন (সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি) ও উবায়েদ আহমদ (এম.সি. কলেজ);
যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক: আতিকুর রহমান সামী (এম.সি. কলেজ), শহিদ আহমদ (এম.সি. কলেজ), ফখরুল ইসলাম রাহেল (শাবিপ্রবি), ছাব্বির আহমদ (এম.সি. কলেজ), জাহিদুল ইসলাম কলিম (এম.সি. কলেজ) ও সাহেদ আহমদ (এম.সি. কলেজ); সহ-সাধারণ সম্পাদক: ফখরুল ইসলাম নাহিয়ান (এম.সি. কলেজ), হেলাল আহমদ (এম.সি. কলেজ), আতিকুর রহমান (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), জসিম উদ্দিন (মদন মোহন কলেজ) ও লুবাব আহমদ (লিডিং ইউনিভার্সিটি); সাংগঠনিক সম্পাদক: মো. ফজল আহমদ (এম.সি. কলেজ), শামসুল ইসলাম চোধুরী (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), মিছবাউল হক চৌধুরী (শাবিপ্রবি) ও মামুনুর রশীদ চৌধুরী (এম.সি. কলেজ); অর্থ সম্পাদক: ইকবাল হোসেইন (এম.সি. কলেজ); উপ-অর্থ সম্পাদক: তানভীর আহমেদ (জালালাবাদ মেডিকেল ইন্সটিটিউট); প্রচার সম্পাদক: রুমান হাফিজ (পাঠানটুলা জামেয়া); উপ-প্রচার সম্পাদক: ফারহানা আক্তার (সিলেট মহিলা কলেজ); দপ্তর সম্পাদক: কামাল আহমদ রাজু (এম. সি. কলেজ); উপ-দপ্তর সম্পাদক: মো. রুহুল আমিন (আদমজী ক্যান্ট কলেজ); শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক: নাজমুন নাহিদ (এম.সি. কলেজ); উপ-শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক: জাবেদ আহমদ (এম.সি. কলেজ); গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক: ইমদাদুর রহমান ইমদাদ (সিলেট সরকারী কলেজ); উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক: আব্দুল্লাহ আল মামুন (মদন মোহন কলেজ); পাঠাগার সম্পাদক: এমাদুর রহমান (মদন মোহন কলেজ); উপ-পাঠাগার সম্পাদক: আব্বাস রাজ তয়ন (এস.এস.ইউ.সি); সাহিত্য সম্পাদক: জাবেদ আহমদ (এক্স ম্যাটস, টাঙ্গাইল) ; উপ-সাহিত্য সম্পাদক: ফরহাদ আহমদ (দক্ষিণ সুরমা কলেজ); সাংস্কৃতিক সম্পাদক: সাইফুর রহমান (সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়); উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক: তপন চন্দ্র দাস (সিলেট ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজ); তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক: আযাদ হোসাইন তারেক (এম.সি. কলেজ); উপ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক: মো. আলমগীর হোসেন (এম.সি. কলেজ); তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক: আব্দুল কাদির (এম.সি. কলেজ); উপ-তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক: জসিম উদ্দিন (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়); স্কুল ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক: মিজানুর রহমান (লিডিং ইউনিভার্সিটি); উপ-স্কুল ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক: আব্দুল কাদির (জালালাবাদ কলেজ); সমাজসেবা সম্পাদক: মাসুম আহমেদ (নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি); উপ-সমাজসেবা সম্পাদক: তানভীর আহমদ (জালালাবাদ মেডিকেল ইন্সটিটিউট); কার্যকরী সদস্য: মোসাদ্দেক হোসেন (শাবিপ্রবি), ফজলে এলাহী নাঈম (চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়) ও আব্দুল্লাহ আল লোকমান (এইচ.ই.আই)।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget