জার্মানিতে জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলন শুরু

জনপ্রিয় অনলাইন : জার্মানির বন শহরে জাতিসংঘের বার্ষিক জলবায়ু সম্মেলন সোমবার শুরু হয়েছে। চলবে দুই সপ্তাহ। সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জার্মান পরিবেশমন্ত্রী বারবারা হেন্ড্রিক্স বলেন, প্যারিস চুক্তি অপরিবর্তনীয়। বরং আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে এই চুক্তি বাস্তবায়নের চেষ্টা করতে হবে। আমাদের হাতে বেশি সময় বাকি নেই। ২০১৫ সালে প্যারিস চুক্তিতে সম্মত হয়েছিল ১৯৬টি দেশ। চুক্তি অনুযায়ী, এই শতাব্দীতে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি দুই ডিগ্রি, সম্ভব হলে দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে প্রতিটি দেশ নির্দিষ্ট পরিমাণ কার্বণ নিঃসরণ কমাবে বলে জানিয়েছে। তবে সেটি বাধ্যতামূলক কোনও বিষয় নয়। বন সম্মেলনে প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের খুঁটিনাটি নিয়ে আলোচনা হবে।

দ্বীপরাষ্ট্র ফিজি এবারের সম্মেলনের সভাপতি দেশ। তবে সেখানে পর্যাপ্ত অবকাঠামো না থাকায় জার্মানিতে কনফারেন্স অফ দ্য পার্টিস' বা কপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের সম্মেলনটি এ ধরনের আয়োজনের ২৩তম সংস্করণ হওয়ায় এটি কপ২৩' নামে পরিচিতি পাচ্ছে।
ফিজির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাংক বাইনিমারামা কপ২৩-র সভাপতি হিসেবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আমাদের বিশ্ব চরম আবহাওয়ার শিকার হচ্ছে। হারিকেন, দাবদাহ, বন্যা, খরা, বরফ গলা ও কৃষিকাজে পরিবর্তন আসায় খাদ্য নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়ছে। তিনি জানান, ফিজি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিশ্বের অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত একটি দেশ।
ফিজির মতো দেশগুলো রক্ষায় বিশ্বের অন্যান্য দেশকে তাদের অঙ্গীকার পুরোপুরি বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বাইনিমারামা। তিনি অবশ্য বক্তব্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণার উল্লেখ করেননি।
গত জুন মাসে ট্রাম্প এই ঘোষণা দিয়েছিলেন। বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কার্বন নির্গমনকারী দেশ হওয়ায় ট্রাম্পের এই ঘোষণা প্যারিস চুক্তির সাফল্যের উপর কালো ছায়া ফেলেছে। তবে জার্মানি, ফ্রান্স এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্য সরকার ও বড় বড় প্রতিষ্ঠান প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের উপর জোর দিচ্ছে।  
কপ২৩ সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশ থেকে পরিবেশ ও বন সচিব ইসতিয়াক আহমদসহ একটি প্রতিনিধি দল জার্মানি পৌঁছেছে। সম্মেলনের শেষ দিকে পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু যোগ দেবেন বলে জানিয়েছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক (জলবায়ু পরিবর্তন ও আন্তর্জাতিক কনভেনশন) মির্জা শওকত আলী। এর আগে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাছান মাহমুদের সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে।
এদিকে, সম্মেলনকে ঘিরে পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে। ইতিমধ্যে তারা আয়োজক দেশ জার্মানিতে কয়লাসহ জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যাপক ব্যবহারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।

কপ২৩ সম্মেলনে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ও নোবেলজয়ী আল গোর, হলিউড অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, আর্নল্ড শোয়ার্জেনেগারসহ আরও অনেকে যোগ দেবেন। সূত্র: ডয়চে ভেলে।
Labels:

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget