বিয়ানীবাজার পৌর নির্বাচন জোর প্রচারণায় আ.লীগ ও বিএনপি’র মেয়র প্রার্থীরা ॥ বইছে উৎসবের আমেজ

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বিয়ানীবাজার পৌরসভার প্রথম ও বহুল প্রতিক্ষীত নির্বাচনে প্রতিক পেয়েই পুরো পৌরশহর চষে বেড়াচ্ছে মেয়র প্রার্থীরা।
চালাচ্ছেন দিন-রাত প্রচার প্রচারণা। বিশেষ করে দেশের প্রধান দুদল ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ ও রাজপথের বিরোধীদল বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীরা এদিক দিয়ে এগিয়ে রয়েছেন। আধুনিক, পরিচ্ছন্ন ও মডেল পৌরসভা গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে মাঠে নেমেই বেশ সাড়া পাচ্ছেন বড় দুদলের এই তরুণ প্রার্থীরা।
ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছেন নিজের মত করে, দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। ভোটাররাও তাদের আশ^স্ত করছেন ভোট দেবেন বলে। ধারণা করা হচ্ছে, এই দ্ ুপ্রার্থীর মধ্যেই হতে পারে মূল লড়াই। তবে জামায়াতে ইসলামী সমর্থিত রেলইঞ্জিন প্রতিকের মেয়র প্রার্থী কাজী মোঃ জমির হোসেন, জাসদ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মশাল প্রতিকের শমসের আলম, বর্তমান প্রশাসক জগ প্রতিকের সতন্ত্র মেয়র  প্রার্থী মোঃ তফজ্জুল হোসেন ও মোবাইলফোন প্রতিকের প্রার্থী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবুল কাশেম পল্লবও বসে নেই।
তারাও চালাচ্ছেন তাদের মত করে প্রচারণা। এদিকে দীর্ঘদিন পর বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্টিত হওয়ায় উৎফুল্ল ও আনন্দিত পৌরবাসী। পৌরশহরের পাড়ায়-পাড়ায়, মহল্লায়-মহল্লায় চলছে উৎসবের আমেজ। প্রার্থীদের নিয়ে চলছে চায়ের কাপে ঝড়। কে হচ্ছেন পৌর পিতা তা নিয়ে চলছে নানা বিশ্লেষণ। তবে নতুন ও পুরাতন ভোটারদের একটাই দাবী যেই পৌরসভার মেয়র হন না কেন, তিনি যেন আর এভাবে পৌরবাসীকে নির্বাচন বঞ্চিত না করেন এবং বিয়ানীবাজার পৌরসভাকে একটি আধুনিক, পরিচ্ছন্ন ও মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলেন।


সংস্কৃতিকর্মী আবিদ হোসেন জাবেদ ও কলেজ ছাত্র ফাহমিদ তুহিন নামের দু’ভোটার বলেন, বিয়ানীবাজার পৌরসভা প্রতিষ্টার পর এটাই আমাদের প্রথম ভোট। আমরা আনন্দিত উৎফুল্ল। তবে আমাদের প্রথম ভোট হওয়ায় এদিক দিয়ে সৎ, যোগ্য ও কর্মদক্ষ প্রার্থীকেই আমরা বেশী প্রাধান্য দেবো। পৌরশহরের প্রবীণ ভোটার শিক্ষানুরাগী গিয়াস উদ্দিন আহমদ ও ব্যবসায়ী হাজী আব্দুল মুকিত বলেন, দীর্ঘ ২১ বৎসর আগে বিয়ানীবাজার পৌরসভা হওয়ার পূর্বে আমরা বিলুপ্ত সদর ইউনিয়ন নির্বাচনে শেষ ভোট দিয়েছিলাম। দীর্ঘ ২১বৎসর পর আমরা আবার ভোট দিচ্ছি। তারা বলেন, আমরা চেয়েছিলাম, বিয়ানীবাজার পৌরসভার ভোট আরো আগে হবে ; কিন্তু তা না হওয়ায় আমরা হতাশ। অবশেষে নির্বাচন হচ্ছে জেনে আমরা আনন্দিত। আমরা আশা প্রকাশ করি, আর যেন কেউ এভাবে বিয়ানীবাজার পৌরসভাকে মামলার প্যাচে আটকিয়ে বিয়ানীবাজার পৌরবাসীকে নির্বাচন বঞ্চিত করতে না পারে।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget