বিয়ানীবাজার পৌর নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ চলছে প্রচার-প্রচারণা ॥ আচরণবিধি লঙ্গন হলে ব্যবস্থা

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বহুল প্রত্যাশীত বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা কনফারেন্স হলে  রিটার্নীং কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনির হোসেন নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ করে দেন। প্রতিক প্রাপ্তরা হলেন, মেয়র পদে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মোঃ আব্দুস শুকুর  (নৌকা), বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) মনোনীত প্রার্থী মোঃ আবু নাসের পিন্টু (ধানের শীষ), জাসদ মনোনীত প্রার্থী শমসের আলম (মশাল), জামায়াতে ইসলামী মনোনীত সতন্ত্র প্রার্থী কাজী মোঃ জমির হোসেন  (রেল ইঞ্জিন), বর্তমান প্রশাসক সতন্ত্র প্রার্থী মোঃ তফজ্জুল হোসেন (জগ) ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবুল কাশেম পল্লব  (মোবাইল ফোন) ।
এব্যাপারে রিটার্নীং কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনির হোসেন জানান, বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন পদের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বরাদ্দের পর থেকেই তাদের প্রচার প্রচারণায় আর কোন বাধা নেই। তবে কেউ যদি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্গন করেন, তাহলে তাকে ছাড় দেয়া হবে না।
এদিকে প্রতিক পাওয়ার পর পরই পৌরশহরে চলছে জোর প্রচার-প্রচারণা। নানা-ছন্দে আর গানের তালে তালে চলছে প্রার্থীদের প্রচারণা।

উল্লেখ্য, গত ২৭ মার্চ রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে বিয়ানীবাজার পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতার জন্য মেয়র পদে ১১ জন, সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৮১ জন ও মহিলা কাউন্সিলার পদে ৮জন প্রার্থী মিলিয়ে মোট ১শজন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেন। বাছাইয়ে জাসদ প্রার্থীসহ ৩ মেয়র ও ১৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হলে আপীলের মাধ্যমে বুধবার জাসদ প্রার্থী আবার প্রার্থীতা ফিরে পেলেও বাকী দুজন পান নি। আর কাউন্সিলরদের মধ্যে প্রার্থীতা ফিরে পান মোট ১৭ জন।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget