২৭ ফেব্রুয়ারি বার্সেলোনায় বিশ্ব মোবাইল কংগ্রেস

লায়েবুর খান : ফুটবল আর বিশ্বের সুন্দর নগরীর মধ্যে অন্যতম বার্সেলোনা শহর। আর এ শহরে বিগত ১০ বছরের মতো এ বছরও চলতি মাসের ২৭ তারিখে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল সম্মেলন মোবাইল ওয়ার্ড কংগ্রেস ২০১৭। মোবাইল দ্য নেক্সট এলেমেন্ট প্রতিপাদ্য নিয়ে বরাবরের মতোই মোবাইল টেলিযোগাযোগ শিল্পের বৈশ্বিক সংগঠন জিএসএমএ এই সম্মেলনের আয়োজন করছে। গত বছরের ২ আগস্ট লন্ডন শহরে জিএসএমএ কর্তৃক প্রচারিত ঘোষণাপত্রে চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২ মার্চচার দিনব্যাপী এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার তারিখ ঘোষণা করা হয়।
২০০৬ সাল থেকে ২০১৬ পর্যন্ত একটানা প্রতিবছর এই মোবাইল কংগ্রেসের আয়োজন করে বার্সেলোনা শহর বর্তমানে মোবাইল কংগ্রেসের রাজধানীতে পরিণত হয়েছে। প্রথমে ২০১৮ সাল পর্যন্ত এ মোবাইল উৎসব বার্সেলোনায় হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২০১৫ সালে ফিরা বার্সেলোনার সঙ্গে এক চুক্তিপত্রের মাধ্যমে ২০২৩ সাল পর্যন্ত তা বর্ধিত করা হয়েছে।


প্রতি বছরই বিশ্বের বড় বড় মোবাইল কোম্পানিগুলো পুরো বছর জুড়ে মোবাইল কংগ্রেসে তাদের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ মোবাইল প্রযুক্তির ব্রিফিং দিতে এবং তা প্রদর্শনীতে যুক্ত করার প্রস্তুতি নিতে থাকে। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে মোবাইল কংগ্রেসের চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের জন্য পুরো ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহ বার্সেলোনা শহরের ব্যস্ততা ও সাজসজ্জা হয় চোখে পড়ার মতো। টুরিস্টদের পদচারণায় বার্সেলোনা হয়ে ওঠে অতিথিপরায়ণ। শহরের আনাচকানাচে হোটেলগুলো পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে। তাতে অন্য সবার মতো প্রবাসী বাংলাদেশিদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানেও এই ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসের ইতিবাচক অর্থনৈতিক প্রভাব পড়ে।
বিশ্বের বড় বড় মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে। বার্সেলোনা শহরের ফিরা গ্রান ভিয়া ও ফিরা মনজুয়িকে এ সম্মেলনের জন্য ৯৪ হাজার বর্গমিটার এলাকা জুড়ে বিভিন্ন দেশের মোবাইল প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য পৃথক পৃথক প্যাভিলিয়ন ও কংগ্রেসের অন্যান্য ইভেন্টে পরিচালনার স্থান নির্ধারিত থাকবে। জিএসএম ধারণা করছে, বিশ্বের প্রায় ২১০টি দেশের ২ হাজার ২০০ মোবাইল কোম্পানি ও মোবাইল শিল্পের সঙ্গে জড়িত প্রায় এক লাখ এক হাজার প্রফেশনাল এ কংগ্রেসে যোগদান করবেন।
বিশ্বের নাম করা সব মোবাইল ব্রান্ড কোম্পানি আইবিএম, ইনটেল, লেবোভো, এলজি, মার্সিডিজ বেঞ্জ, মাইক্রোসফট, এনইসি, নকিয়া, ওরাকল, অরেঞ্জ, ফিলিপস, স্যামসাং, এসএপি, সনি মোবাইল, টেলেফোনিকা, ভোডাফোন, আওএল, চিসকো সিস্টেম, ডেউটস টেলিকম, এরিকসন, ফোর্ড, গুগল, হেউল্ট পেকার্ড এন্টারপ্রাইজ, এইচটিচি ও হুয়াওয়েইসহ অন্যান্য কোম্পানিগুলো কংগ্রেসে অংশগ্রহণ করবে। এবারের ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে টেলিযোগাযোগ মাধ্যমের সফল প্রতিষ্ঠানগুলো মোবাইল সামগ্রী উৎপাদনের ফলে সৃষ্ট পরিবেশ দূষণের ওপর আলোকপাতসহ মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরির উদ্যোগ নেবে। নানা ধরনের আকর্ষণীয় ইভেন্টের সঙ্গে এবার থাকবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সি তথা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও রোবট টেকনোলজির ওপর বিশেষ প্রদর্শনী থাকছে এই ওয়ার্ড মোবাইল কংগ্রেসে।
Labels:

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget