2016-11-27

জনপ্রিয় অনলাইন :  শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ পদাতিক ব্যাটেলিয়নের ৮৫০ সদস্যের আরেকটি সমন্বিত শান্তিরক্ষী দল দক্ষিণ সুদানে পাঠানোর জন্য সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছে জাতিসংঘ। এর আগে গত অক্টোবরেও দক্ষিণ সুদানে ২৬০ সদস্যের একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি পাঠানোর অনুরোধ জানায় সংস্থাটি।

সম্প্রতি জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনকে এ ব্যাপারে চিঠি দিয়েছে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের ডিপার্টমেন্ট অব পিস কিপিং অপারেশন।
নিউইয়র্কের জাতিসংঘের বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি (প্রেস) নুর এলাহী মিনা স্বাক্ষরিত এক বার্তায় এ কথা বলা হয়।
এতে বলা হয়েছে, দক্ষিণ সুদানের উয়াও অঞ্চলে অনতিবিলম্বে শান্তিরক্ষী মোতায়েনের জন্য দেওয়া এই প্রস্তাব তৎপরতার সঙ্গে গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ। দ্রুত ও সফলভাবে নতুন এই পদাতিক ব্যাটালিয়নটি মোতায়েনের লক্ষ্যে এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিমূলক কাজ শুরু হয়েছে।
গত অক্টোবর মাসেও বাংলাদেশ ২৬০ সদস্যের একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি দক্ষিণ সুদানে পাঠানোর জন্য জাতিসংঘ থেকে আরেকটি প্রস্তাব পেয়েছে। দক্ষিণ সুদানে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে পদাতিক ব্যাটালিয়ন ও ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি দ্রুত সময়ের মধ্যে মোতায়েন করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
২০১৫ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত লিডারস সামিট অন পিস কিপিং-এর সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেওয়া প্রতিশ্রুতির ভিত্তিতেই জাতিসংঘ থেকে এ সব প্রস্তাব পাওয়া গেছে।
প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির পর থেকে বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী ও বাংলাদেশ পুলিশ সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে জাতিসংঘের তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটাতে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি ও প্রাসঙ্গিক আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদন করে যাচ্ছে। এর সফল বাস্তবায়নে জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সঙ্গে নিবিড়ভাবে সমন্বয় রক্ষা করে যাচ্ছে।
জাতিসংঘে শান্তিরক্ষী পাঠানোর নতুন এই দুটি প্রস্তাব বৈশ্বিক শান্তি ও নিরাপত্তা বিধানে আমাদের সামর্থ্য এবং প্রায় দুই দশক ধরে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের প্রতিশ্রুতশীল কাজের প্রতি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বিশ্বাস ও আস্থারই পুনঃপ্রতিফলন।
এ দুটি টিমের যোগদান শেষে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে সদস্য সরবরাহকারী হিসেবে বাংলাদেশ দ্বিতীয় শীর্ষে আরোহন করবে। বর্তমানে ৮৩৬২ সদস্য সরবরাহ করে শীর্ষে রয়েছে ইথিওপিয়া। আর ১৩টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ৭ হাজার ৯৬০ জন দায়িত্ব পালন করছে।
আজ শুক্রবার (০২ ডিসেম্বর) নিউইয়র্কস্থ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
বর্তমানে ১৩টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ছয় হাজার ৮৫০ জন শান্তিরক্ষী কাজ করছেন। যার মধ্যে ১৯৮ জন নারী সদস্য রয়েছেন। এ ছাড়া এ পর্যন্ত বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী ও বাংলাদেশ পুলিশের প্রায় এক লাখ ৪৬ হাজার ১৪৩ জন সদস্য ৪০টি দেশের ৫৪টি শান্তিরক্ষা মিশনে সফলতার সঙ্গে কাজ করে মিশন সম্পন্ন করেছেন।
উল্লেখ্য, দক্ষিণ সুদান বিশেষ করে গোটা বিষুবীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা পরিস্থিতি বিভেদ সংকুল। দক্ষিণ বাহার আল গজল স্টেস্টের অবস্থা খুই উদ্বেগজনক।

যেখানে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে হিংসাত্মক কর্মকাণ্ডের ফলে বেসামরিক মানুষের প্রাণহানি ও উচ্ছেদের মতো ঘটনা অনবরত ঘটছে।

জনপ্রিয় অনলাইন : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, 'জিয়াউর রহমানের কবর তুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত সরকারের এক ধরনের ষড়যন্ত্র।'

আজ শুক্রবার সকালে চন্দ্রিমা উদ্যানে শহীদ জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারতের পর সাংবাদিকদের এ অভিযোগ করেন তিনি।
মির্জা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমানের কবর তুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত সরকারের হটকারিতা। এটা এক ধরনের ষড়যন্ত্র। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দেয়া সরকারের আরেক ষড়যন্ত্র। আসলে সরকার চায় বিএনপি রাজনীতি থেকে সরে যাক।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্যামা ওবায়েদ, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম প্রমুখ।

এনায়েত হোসেন সোহেল,গ্রিস থেকে ফিরে : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল গ্রীস শাখা কেক কেটে ৩৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছে।গত রবিবার এথেন্সে এক অনাড়ম্ভর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
 অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কেটে শুভ উদ্ভোধন করে কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান। গ্রিস যুবদল সভাপতি এম মোরশেদ খানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, গ্রীস বিএনপির সভাপতি জি এম মোখলেছুর রহমান, প্রধান উপদেষ্টা তাজুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি জুলহাস মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন টিপু, সিনিয়র সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, উপদেষ্টা হাফেজ আহমেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক সুফী, সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল তালুকদার, প্রচার সম্পাদক শাহ গিয়াস আল রিমন প্রমুখ। এ সময় বক্তারা বলেন,ঘুম থেকে উঠলেই খুন আর গুমের ঘটনা দিয়ে দিনের শুরু হয় বাংলাদেশের। দেশে আজ গণতন্ত্র নেই। সমস্ত দেশ আজ যেন একটা কারাগার পরিণত হয়েছে। একের পর এক বিচার বহির্ভূত ভাবে যাকে-তাকে খুন ও ঘুম করা হচ্ছে। তাই এই অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে ইউরোপ থেকে বিএনপিসহ সকল অঙ্গ সংগঠনকে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। পরে যুবদল গ্রীস শাখার ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদ ঘোষণা করা হয়।পরে তাদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করা হয়। এ সময় অনুষ্ঠানে আওয়ামীলীগনেতা আবুল হোসেনের নেতৃত্বে ১৭জন নেতাকর্মী বিএনপিতে যোগদান করেন।

সফিউল সাফিঃ সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ কর্তৃক জননেত্রী দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংম্বধনা দেওয়া হয়। সর্বইউরোপিয়ান  আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী অনিল দাস গুপ্তের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এম এ গনির পরিচালনায় এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে বরন করেন ইউরোপ আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি কে এম লোকমান হোসেন,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শামীম হক,এম নজরুল ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম কিবরিয়া। বুদাপেস্টে শেখ হাসিনার সরকারি সফর তাতে কমিউনিটির কোনো কর্মসূচি অন্তর্ভুক্ত ছিলো না। হাঙ্গেরির এই রাজধানীতে বাংলাদেশি কমিউনিটি খুব একটা নেই। কিন্তু তারপরেও তিন দিন ধরে বেশ বাংলাদেশির আনাগোনা চোখে পড়ছিলো। এরা কেউ হয়তো হোটেলের বাইরে কেউ হোটেলের লবিতে দাঁড়িয়ে থাকেন। প্রধানমন্ত্রী তার কর্মসূচিগুলোতে আসা যাওয়ার পথে কেউ কেউ হয়তো একটু সালাম জানানো সুযোগ পেয়ে যান। প্রধানমন্ত্রী সালামের উত্তর দিয়ে গাড়ির কিংবা লিফটের পথে পা বাড়ান। কারও পক্ষে সালামটা পর্যন্ত দেওয়ার সুযোগ মেলে না। কিন্তু এরা রয়েছেন। সেই ২৭ নভেম্বর রাতে শেখ হাসিনা যখন বুদাপেস্ট পৌঁছান তখন থেকেই তারা রয়েছেন।

এসময়  উপস্থিত ছিলেন ডেনমার্ক থেকে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি মুস্তফা মজুমদার , সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান সহ-সভাপতিঃ নাসির উদ্দিন সরকার, জাহিদ চৌধুরী বাবু, যুগ্ম-সম্পাদকঃ নাঈম উদ্দিন।  জার্মান আওয়ামী লীগ, ফ্রান্স আওয়ামী লীগ , ইতালি আওয়ামী লীগহল্যান্ড  আওয়ামী লীগ , বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ , সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগ , অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগ, নরওয়ে আওয়ামী লীগ, ফিনল্যান্ড আওয়ামী লীগ ,সুইডেন আওয়ামী লীগ গ্রীস আওয়ামী লীগপর্তুগাল আওয়ামী লীগ ,স্পেন আওয়ামী লীগ   সহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ , স্বেচ্ছাসেবক লীগ , ছাত্রলীগের  অনেক  নেতৃবৃন্দ ।


গত তিন দিন ধরে বিচ্ছিন্নভাবে দেখা গেলেও মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দেখা যায় সব মিলিয়ে দেড় শতাধিক বাংলাদেশি জড়ো হয়েছন এই ফোর সিজন হোটেল গ্রেসাম প্যালেস বুদাপেস্টের হল রুমে। এরা সবাই ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী বাংলাদেশি। যারা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী কিংবা সমর্থক।সেখানে হাজির হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মানুষগুলোর সঙ্গে প্রাণখুলে কথা বললেন। ধৈর্য্য ধরে তাদের কথাও শুনলেন। আর বললেন, আমি দেখেছি আপনারা এই কদিন এখানে দাঁড়িয়ে থেকেছেন। আমি কথা বলতে পারিনি, সময় দিতে পারিনি। বুঝতেই পারেন, ওয়াটার সামিট চলছে, তাতে অংশগ্রহণ তার পাশাপাশি দ্বি-পাক্ষিক সফরের নানা কর্মসূচি। এগুলোতে অংশ নিতে হয়। যথা সময়ে ছুটতে হয়।সুশৃংখল দর্শক তথা দলীয় নেতা-কর্ম-সমর্থকরা তাদের নেত্রীর কথায় সায় দিলেন। সামান্য স্লোগান উঠলেও তা দ্রুত থামানো হলো। প্রধানমন্ত্রীই জানিয়ে দিলেন, এই হোটেল হল রুম, এখানে স্লোগান দেওয়া যাবে না। এরপর তিনি দিলেন এক অনবদ্য বক্তৃতা। টানা ৫৪ মিনিটের সে বক্তৃতায় প্রথমেই তিনি ওয়াটার সামিট ও দ্বি-পাক্ষিক সফরের বিষয়ে জানালেন।পানি সম্মেলন কেনো বাংলাদেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, হাঙ্গেরির সঙ্গে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সুসম্পর্ক, স্বাধীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি, মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশকে সহায়তা এসব কৃতজ্ঞতা চিত্তে স্মরণ করেন। আর দ্বি-পাক্ষিক এই সফরকে সফল বলে উল্লেখ করে বলেন, এতটা ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে হাঙ্গেরি বাংলাদেশের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে তা অসাধারণ।একে একে তার বক্তৃতায় উঠে আসে বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট। তার দীর্ঘ রাজনৈতিক পথচলার বিভিন্ন দিক। বিএনপির কঠোর সমালোচনা। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রসঙ্গ।
প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দেন, খালেদা জিয়ার কাছে তার যাওয়ার আর প্রশ্নই ওঠে না। তিনি এও বলেন খালেদা জিয়া কিভাবে রাজনীতিকে কলুসিত করে তুলেছেন।বাংলাদেশর উন্নয়নের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আমার কাছে অনেকেই জানতে চান, কোন ম্যাজিক বলে বাংলাদেশ আজ এত উন্নতি করতে পারছে। আমি উত্তরে তাদের বলি, আমার কাছে কোনো ম্যাজিক নেই, আমি দেশখে ভালোবাসি, ভালোবেসেই দেশ পরিচালনা করছি, আর তাতেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।পরে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা নেতা-কর্মীদের প্রতিনিধিরা ব্কতব্য রাখেন। এদের কেউ কেউ তাদের কাজ ও পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা একেকজন বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর। সে হিসাবেই আপনারা কাজ করে যাবেন এটাই আমার প্রত্যাশা।
ইতালী আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী মোঃ ইদ্রিস ফরাজী ইতালী থেকে পুনরায় বাংলাদেশ বিমান চালু করার জোরালো দাবী জানান। ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমান তার বক্তাব্য ইউরোপ আওয়ামীলীগের কোন্দল নিরসনে দলীয় প্রধানের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রী এইচ মাহমুদ আলী,ভিয়েনার রাষ্ট্রদূত আবু জাফর সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন ডেস্ক : কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিস হত্যাচেষ্টা মামলায় ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের বিচার শুরুর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরো মঙ্গলবার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে সাক্ষ্য শুরুর জন্য দিন ঠিক করে দেন।

এ আদালতের অতিরিক্ত পিপি মাহফুজুর রহমান জানান, আগামী ৫ ডিসেম্বর বাদীর জবানবন্দির মধ্য দিয়ে সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হবে।
আসামি বদরুলের পক্ষে তার আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান এদিন জামিনের আবেদন করলে আদালত তা নাকচ করে দেয়।
খাদিজার ওপর হামলাকারী বদরুল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যাছলয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ছিলেন। 
গত ৩ অক্টোবর সিলেটের এমসি কলেজ কেন্দ্রে স্নাতক পরীক্ষা দিয়ে বের হয়ে হামলার শিকার হন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক (পাস কোর্স) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার মাথার খুলি ভেদে করে মস্তিষ্ক জখম হয়। তখন তার উপর হামলাকারী বদরুলকে ঘটনাস্থল থেকে ধরে তখনই পুলিশে দেয় জনতা।

ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে তিন দফা অস্ত্রোপচারের পর অনেকটা সুস্থ হয়ে ওঠেন খাদিজা। শরীরের বাঁ পাশ স্বাভাবিকভাবে সাড়া না দেওয়ায় চিকিৎসার জন্য স্কয়ার থেকে সোমবার তাকে পাঠানো হয় সাভারের সিআরপিতে।

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ মিয়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গাদের গণহত্যার প্রতিবাদে কফিন মিছিল করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা ছাত্র জমিয়ত। শুক্রবার বেলা ২ টায় পৌরশহরের উত্তর বাজারস্থ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সম্মুখ থেকে বের হয়ে মিছিল পৌরশহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে দক্ষিণ বাজারে এসে এক পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়।

উপজেলা ছাত্র জমিয়তের সভাপতি মাওলানা তোফায়েল আহমদের সভাপতিত্বে পথসভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা জমিয়ত নেতা মাওলানা আলী আহমদ, সিলেট জেলা ছাত্র জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামীদ খান, উপজেলা যুব জমিয়তের সভাপতি আব্দুল হামীদ, সেক্রেটারি আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা ছাত্র জমিয়তের প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক হাফিজ ফরহাদ আহমদ।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মারুফুল হাসানের পরিচালনায় পথসভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা ফারুক আহমদ, মাওলানা মুহিউদ্দিন মাসুম, মাওলানা আব্দুল ফাত্তাহ, দিলাওয়ার হোসাইন, সাহেদ আহমদ, মাওলানা তারেক হোসাইন কিবরিয়া, ইমরান সিদ্দিকী, জাকারিয়া বকর, শাহ আলম, সুহাইল আহমদ, আবু বকর শাবেল, ওয়াহিদুর রাহমান, তোফায়েল আহমদ, সালমান আহমদসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনুষ্টানিক উদ্বোধন ঘোষণা হলো সমছুল-সাকিব-লিটন টি ২০ ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট।  আয়োজনের মধ্যে ছিলো পৌরশহরে র‌্যালী, কেক কর্তন ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার বিকেলে পৌরশহরের পিএইচজি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিয়ানীবাজারের ঐতিহ্যবাহী গোলাবশাহ কিশোর সংঘের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত এ টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) র অন্যতম পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

গোলাবশাহ কিশোর সংঘের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান আবু আহমদ সাহেদের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খান, বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মু. আসাদুজ্জামান, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাছিব মনিয়া, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কমিউনিটি নেতা নুরুল হক, বিয়ানীবাজার উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. ইসলাম উদ্দিন।
সংঘের সাধারণ সম্পাদক আকবর হোসেন লাভলু ও ছিদ্দিক আহমদের পরিচালনায় আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিসিবির পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, আগামী বছরের মে-জুনে বিসিবির ব্যবস্থাপনায় রিজিওনাল ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু হবে। সরকার দলের নেতারা যদি সামান্যতম সহযোগীতা করেন তাহলে বিয়ানীবাজার স্টেডিয়ামে খেলার একটি ভেন্যু করে দেবো।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার খেলাধুলার উন্নয়নে আন্তরিক। এ বছর ক্রীড়াক্ষেত্রে সিলেটে প্রায় একশ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।
সংঘের ক্রীড়া সম্পাদক মাসুদ আহমদ জনির শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গোলাবশাহ সমাজকল্যাণ সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শুকুর, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুল কুদ্দুছ টিটু, গোলাবশাহ কিশোর সংঘের গভর্ণিং বডির সদস্য সাইফুল ইসলাম সুয়েল।
আয়োজিত  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক,সাপ্তাহিক নবদ্বীপ পত্রিকার সম্পাদক ও সংঘের উপদেষ্টা  আব্দুল বাসিত টিপু,তাজ উদ্দিন কুটি, ক্রীড়া সংগঠক মইজ উদ্দিন আহমদ, সংঘের  উপদেষ্টা এনাম উদ্দিন, আজিম উদ্দিন,
গভর্ণিং বডির সদস্য সাইফুদ্দিন আহমদ নোমান, শিব্বির আহমদ,আব্দুল আমিন, বিয়ানীবাজারনিউজ২৪.কমর সম্পাদক আহমেদ ফয়সাল, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কমর প্রধান সম্পাদক ছাদেক আহমদ আজাদ, সাপ্তাহিক সম্ভাবণা সম্পাদক মাছুম আহমদ, পূর্বসিলেটনিউজ২৪.কমর সম্পাদক শাহীন আলম হৃদয়, সাপ্তাহিক সম্ভাবনা পত্রিকার সম্পাদক মাছুম আহমদ, এশিয়ান টিভি ও দৈনিক শ্যামল সিলেট পত্রিকার প্রতিনিধি সুফিয়ান আহমদ, দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার মনোয়ার হোসেন লিটন, বিয়ানীবাজারকণ্ঠ ২৪.কম নির্বাহী সম্পাদক শিপার আহমদ পলাশ, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক জুনেদ ইকবাল লাজুক, যুবলীগ নেতা শহিদুল ইসলাম, মারুফ আহমদ, উজ্জল আহমদসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারি ১৬টি দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাবৃন্দ জার্সি পরিহিত অবস্থায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদান ও অতিথিদের সাথে ফটোসেশন করেন। খেলায় অংশগ্রহণকারী দলগুলো হলো নর্থ সাউথ স্পোর্টিং ক্লাব, জলঢুপ ক্রিকেট ক্লাব, ঘুঙ্গাদিয়া ক্রিকেট ক্লাব, স্বাধীন বাংলা ক্রিকেট ক্লাব, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পরিষদ, বসুন্ধরা ক্রিকেট ক্লাব, এ্যারাইভেল্স ক্রিকেট ক্লাব, চলন্তিকা ক্রিকেট ক্লাব, নিদনপুর সুপাতলা ইয়ুথ এসোসিয়েশন, ফতেহপুর ক্রিকেট ক্লাব, খাসাড়ীপাড়া ক্রিকেট ক্লাব, ঘুঙ্গাদিয়া নবীন সংঘ, বড়দেশ ক্রিকেট ক্লাব, বিয়ানীবাজার ক্রিকেট একাডেমী, দ্যা লিজেন অব বিয়ানীবাজার, নিদনপুর চাষী এন্ড ইয়ুথ ক্লাব।

জনপ্রিয় অনলাইন : মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গা মুসলমানদের বাংলাদেশে অনুপ্রবেশে বাধা না দেয়ার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

আজ সোমবার বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহম্মদ উল্লাহর ডিভিশন বেঞ্চে আবেদনটি শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হয়। আদালত মঙ্গলবার শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন।
গতকাল রোববার সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু ইয়াহিয়া দুলাল এই রিট দায়ের করেন। রিটে স্বরাষ্ট্র্রসচিব, পুলিশের আইজি, বিজিবি ও কোস্টগার্ডের মহাপরিচালককে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে বলা হয়েছে, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় আমরা বাঙালিরা যখন পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলাম তখন আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত এক কোটি বাঙালিকে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় দিয়েছিল। তারা আমাদের খাবার, ওষুধ ও বস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করেছে। ইন্দিরা গান্ধীর নেতৃত্বাধীন তৎকালীন ভারত সরকার আমাদের ওই বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করেছিল। আজ স্বাধীনতা অর্জনের ৪৫ বছর পর ভারতের যেসব নাগরিক আমাদের মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকা রেখেছে তাদের আমরা রাষ্ট্রীয়ভাবে সম্মাননা জানিয়েছি। কিন্তু মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নারকীয় হামলা ও হত্যাযজ্ঞের শিকার রোহিঙ্গা মুসলমানদের বাংলাদেশে অনুপ্রবেশে আমরা বাধা দিচ্ছি। আমাদের উচিত ছিল বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ বিবেচনা করে সাময়িক সময়ের জন্য তাদের আশ্রয় দেয়া এবং অনুপ্রবেশের বাধা না দেয়া। রিটে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনগুলোও যুক্ত করা হয়েছে।'

জনপ্রিয় অনলাইন : যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার তিনটি মসজিদে সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করে মুসলিমদের হুমকি দিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। চিঠিতে বলা হযেছে, হিটলারের হাতে ইহুদিদের যেমন পরিণতি হয়েছিল, ট্রাম্প মুসলিমদের তেমন অবস্থাই করবেন।

মার্কিন ইসলামিক আইন সংস্থা দ্য কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশনস (কেয়ার) সূত্রে দেশটির সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, হাতে লেখা ওই চিঠিতে মুসলিমদের শয়তানের বাচ্চা বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, চিঠিতে মুসলিমদের উদ্দেশে বলা হয়েছে, মুসলিমরা নীচ এবং জঘন্য।

চিঠিতে বলা আছে, তোমরা শয়তানের উপাসক। এখন কিন্তু সাবধান হওয়ার দিন এসেছে। মসনদে বসছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকা থেকে তোমাদের ধুয়ে-মুছে সাফ করে দিয়ে পুরনো গৌরব ফিরিয়ে আনবেন তিনি। হিটলারের হাতে ইহুদিদের দুর্দশার কথা মনে আছে নিশ্চয়ই? তোমাদেরও একই হাল হবে। এখনও সময় আছে। বুদ্ধি খাটাও। নিজেদের সবকিছু গুটিয়ে সরে পড়ো। মার্কিন দেশপ্রেমীদের জন্য এটা আদর্শ সময়।

সান হোসে মসজিদের ইমাম প্রথম ওই চিঠিটি পান। তবে কে বা কারা ট্রাম্পের নাম করে এই চিঠি পাঠিয়েছেন, তা এখনো জানা যায়নি। লস অ্যাঞ্জেলসে কেয়ার-এর কার্যনির্বাহী পরিচালক হুসাম আয়লুশ জানিয়েছেন, ওই চিঠিটি পাওয়ার পর থেকেই আতঙ্কে ভুগছেন স্থানীয় মুসলিম বাসিন্দারা। নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকেই মানুষের মনে ধর্ম-বিদ্বেষের বীজ বুনে দিয়েছেন ট্রাম্প। এই ঘটনা তারই ফলশ্রুতি বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

জনপ্রিয় অনলাইন : মিয়ানমারে মুসলিম জনগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতন ও গণহত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, একটি জাতিগোষ্ঠীর ওপর এমন পৈশাচিক নির্মূলভিযানে প্রতিটি বিবেকবান মানুষ স্তম্ভিত। তাদের সকলের হৃদয় বেদনামথিত। এমন ঘৃণ্য ও নিষ্ঠুর কার্যকলাপের নিন্দা জানাবার কোনো ভাষা নেই। 

রবিবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন এ সব কথা বলেন।
তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে সে দেশের সরকারি বাহিনী পরিচালিত সুপরিকল্পিত ও বর্বরোচিত জেনোসাইড-এর  ঘটনায় আমি গভীরভাবে বেদনাহত ও উৎকণ্ঠিত।  

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিধর্ম-বিদ্বেষী আক্রোশ চরিতার্থ করতে তাদেরকে গুলি ও জবাই করে এবং পুড়িয়ে হত্যা করা হচ্ছে। গ্রামের পর গ্রাম জ্বালিয়ে বাড়িঘর ধ্বংস করে তাদেরকে ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করা হচ্ছে। 


খালেদা জিয়া বলেন, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে পরিচালিত হত্যাযজ্ঞ ও বর্বরতা সব সময়েই নিকট প্রতিবেশী হিসাবে বাংলাদেশকে স্পর্শ করেছে। ঘনবসতিপূর্ণ এবং লোকসংখ্যানুপাতে বাসযোগ্য জমির ক্রমসংকোচনের এ দেশে এখনো অনেক রোহিঙ্গা শরণার্থী আগে থেকেই আশ্রয় নিয়ে আছে। এতে আমাদেরকে সামাজিক অনেক সমস্যাও ভোগ করতে হচ্ছে। তা সত্বেও গণহত্যার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে স্বাধীনতা অর্জনকারী জাতি হিসেবে জীবন রক্ষায় আশ্রয় প্রার্থী রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মানবিক কারণে যতদূর সম্ভব আশ্রয় দেয়ার জন্য আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

জনপ্রিয় অনলাইন : ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ইমো, ভাইবার, হোয়াটস অ্যাপ বন্ধ করার কোন প্রশ্নই আসে না। এমন কোন সিদ্ধান্তও সরকার নেয়নি। কাজেই হোয়াটস অ্যাপ, ইমো, ভাইবার বন্ধ হবে না, হচ্ছে না, হবার প্রশ্ন নেই। আজ রবিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।


ইমো, ভাইবার, হোয়াটস অ্যাপ বন্ধের বিষয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিটিআরসির বক্তব্যের প্রতি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে। এ কারণেই ইমো, ভাইবার ও হোয়াটস অ্যাপ বন্ধ হচ্ছে না বলে মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে। 

এ বিষয় তারানা হালিম বলেন, বন্ধ হতে হবে অবৈধ ভিওআইপি, এক্ষেত্রে সরকারের অবস্থান জিরো টলারেন্স। অবৈধ ভিওআইপি বন্ধে জোরদার অভিযান চলছে, চলবে।


এর আগে গত শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমোর মতো স্মার্টফোন অ্যাপে ভয়েস কলের সুবিধার কারণে আন্তর্জাতিক কলের পরিমাণ কমছে। স্মার্টফোনে এ ধরনের অ্যাপ ব্যবহারের বিষয়ে দু-এক মাসের মধ্যে বিটিআরসি একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছতে চায়। সেই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে মন্ত্রী তারানা হালিম রবিবার এ বক্তব্য দিয়েছেন।

জনপ্রিয় অনলাইন : ত্রুটি সারিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী উড়োজাহাজটি এখন হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টের পথে রয়েছে। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা ৩৭ মিনিটে আশখাবাদ থেকে বুদাপেস্টের পথে যাত্রা করে বিমানটি। আশা করা যাচ্ছে, ফ্লাইটটি বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১১টায় বুদাপেস্ট পৌঁছাবে।

আজ রোববার সন্ধ্যায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিমানের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী উড়োজাহাজটির ত্রুটির বিষয়ে উল্লেখ করে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ভিভিআইপি ফ্লাইট (বিজি-১০১১) রাঙ্গা প্রভাত আজ সকাল ৯টা ১৪ মিনিটে ঢাকা থেকে হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টের উদ্দেশে যাত্রা করে। যাত্রাপথে ওই বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় ফ্লাইটটির গতিপথ পরিবর্তন করে বাংলাদেশ সময় সোয়া দুইটায় তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী আশখাবাদে অবতরণ করে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ওই ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীসহ ৯৯ জন যাত্রী, চারজন ককপিট ক্রু, ২০ জন কেবিন ক্রু এবং চারজন এয়ারক্রাফট ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। উড়োজাহাজটি আশখাবাদে অবতরণ করার পর ডিউটিরত প্রকৌশলীরা ত্রুটি মেরামতের জন্য কাজ করেন। তবে ঢাকা থেকে লন্ডনগামী বিমানের অপর একটি শিডিউল ফ্লাইট (বিজি ০০১) আকাশপ্রদীপকে যাত্রাপথ পরিবর্তন করে আশখাবাদে পাঠানো হয় এবং তা বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে সেখানে অবতরণ করে। বিজি ০০১ ফ্লাইটকে ভিভিআইপি ফ্লাইটের ব্যাকআপ কভারেজ দেওয়ার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে পাঠানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরবর্তী সময়ে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ভিভিআইপি ফ্লাইট (বিজি ১০১১) রাঙা প্রভাত
এর যান্ত্রিক ত্রুটি মেরামত শেষে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা ৩৭ মিনিটে আশখাবাদ থেকে বুদাপেস্টের পথে যাত্রা করে। আশা করা যাচ্ছে, ফ্লাইটটি বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১১টায় বুদাপেস্ট পৌঁছাবে।
হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট জানোস এডারের আমন্ত্রণে বুদাপেস্ট পানি সম্মেলন ২০১৬-এ যোগ দিতে চার দিনের সফরে সে দেশের উদ্দেশে আজ রোববার সকালে ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ প্রমুখ।
প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমানটি স্থানীয় সময় বেলা ১টা ৪৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে) বুদাপেস্টের ফিরেন্স লিজট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা ছিল। তবে যান্ত্রিক ত্রুটিতে পড়ায় এখন তা বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের  প্রাক্তন অধ্যক্ষ, বড়লেখা উপজেলার দাসের বাজার আদর্শ কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ প্রফেসর রস্তুম আলী খাঁন আর নেই।

রোববার সকাল ৭টা ২০ মিনিটের সময় উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের গজারাই গ্রামের নিজ বাড়িতে আকস্মিকভাবে ইন্তেকাল করেন তিনি  (ইন্নালিল্লাহী.........রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ পুত্র, ৪ কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। রোববার বিকেল ৪টা ৩০ মিনিটের সময় গজারাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
জানাজার পূর্বে মরহুমের কর্মময় জীবনের উপর বক্তব্য রাখেন, বিয়ানীবাজার সরকারী ( অনার্স) কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খাঁন, বড়লেখা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর, শিক্ষাবীদ আলী আহমদ,অধ্যাপক রফিকুর রহমান, বিয়ানীবাজার প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খালেদ জাফরী, বিয়ানীবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শুক্কুর, শিক্ষামন্ত্রীর এপিএস দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল ও মরহুমের ছেলে খায়রুল ইসলাম।
এদিকে শিক্ষাবিদ প্রফেসর রস্তুম আলী খানের আকস্মিক মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি।
এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, প্রফেসর রস্তুম আলী আমৃত্যু শিক্ষার প্রসারে কাজ করেছেন। বিশেষ করে এতদ্বঞ্চলের ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে আগ্রহী করতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অগণিত ছাত্রছাত্রীর প্রিয় শিক্ষক রস্তুম আলীর মতো শিক্ষা দরদি ব্যক্তিকে হারিয়ে আজ পুরো শিক্ষাপরিবার ব্যথিত। তাঁর এই অকাল মৃত্যু আমাদেরকে ব্যতিত করছে। তিনি রস্তুম আলীর শূন্যস্থান পূরণে শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এবং মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

বিয়ানীবাজারের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ও সুপরিচিত প্রফেসর রস্তুম আলীর আকস্মিক মৃত্যুতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ছাড়াও শোক প্রকাশ করেছেন, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর একেএম গোলাম কিবরিয়া তাপাদার, বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজি আব্দুল হাসিব মনিয়া, লাউতা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা এমএ জলিল, বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মুজিবুর রহমান, বিয়ানীবাজার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মজির উদ্দিন আনসার, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাছিব জীবন, বিয়ানীবাজার উপজেলা সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খালেদ জাফরী, বিয়ানীবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুশ শুক্কুর, শিক্ষামন্ত্রীর এপিএস দেওয়ান মাকসুদুল ইসলাম আউয়াল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুল কুদ্দুছ টিটু, বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি আতাউর রহমান,সাধারণ সম্পাদক মিলাদ মোঃ জয়নুল ইসলাম, সিনিয়র সাংবাদিক এম. হাসানুল হক উজ্জল, সাংবাদিক আহমেদ ফয়সাল, শাহিন আলম হৃদয়, ছাদেক আহমদ আজাদ, সুফিয়ান আহমদ, জুনেদ ইকবাল লাজুক,শিপার আহমদ পলাশসহ আরো অনেকে।

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ গাঁজাসহ এক মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকালে চারখাই ইউনিয়নের গোলাঘাট এলাকা থেকে হেলাল আহমদ (৪০) নামের ওই মাদক বিক্রেতাকে আটক করা হয়।

এসময় তার কাছ থেকে আধা কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। আটককৃত হেলাল কানাইঘাট থানার গাছবাড়ি আখনি গ্রামের মৃত আহসান উল্লাহর পুত্র। তাঁর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাঁজাসহ হেলালকে আটক করা হয়েছে এবং তাঁর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget