2016-09-18

এস আলম,মাদ্রিদ : গাউছ মুক্তি পরিষদ ইন স্পেনের উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্টান অনুষ্টিত হয়েছে

গত ১৮ই সেপ্টেম্বর মাদ্রিদের বাংলাদেশ এসোসিয়েশন হলে সংগঠনের আহবায়ক সুহেল আহমেদ সামসুর সভাপতিত্ত্বে অনুষ্টিত সভা পরিচালনা করেন সদস্য সচিব ছায়াদ মিয়া। ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ আলোচনা সভায় হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান জাতীয়তাবাদী দলের কেন্দ্রীয় সমবায় বিষয়ক সম্পাদক, মেয়র জি কে গাউস এর মুক্তির দাবী জানান

এ সময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন স্পেন যুবদল সভাপতি রমিজ উদ্দিন, যুগ্ম আহবায়ক মাহবুবুর রহমান,বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন আবু জাফর রাসেল, হুমায়ুন কবির রিগান ।বক্তরা বলেন আওয়ামীলীগ সরকার গুম হত্যা ও জেলের মাধ্যমে বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের দমিয়ে রেখেছে যা কখন ও গনতন্ত্রের হাতিয়ার হতে পারেনা

অবিলম্বে তত্বাবদায়ক সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন দিয়ে দেশে গনতন্ত্র পুর্নপ্রতিষ্টা করতে হবে।আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মিলাদুর রহমান, আমিন চৌধুরী, জাকির চৌধুরী,কামাল হুসেন, জসিম আহমেদ ,জামাল আহ্মেদ,ইমাম উদ্দিন, জিলা মিয়া প্রমুখ । অনুষ্টানের শুরুতে  পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন খিজির মিয়া।

সুফিয়ান আহমদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ রুকনুজ্জামান রুকন যে কিনা মাত্র কয়েকমাস আগেও কারো কাছে কোন পরিচিত ব্যক্তি ছিলো না। ছিলো সাধারণ একজন ছাত্র। মেধাবী ছাত্র হিসেবে এলাকার সবাই তাকে চিনতেন। নম্র-ভদ্র ও শান্ত শিষ্ট স্বভাবের রুকন আজ মরণব্যাধী ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মরতে বসেছে। ছেলের এমন অবস্থায় জায়গা-জমি বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসা করতে করতে অসহায় হয়ে পড়েছেন রুকনের বাবা। 

তাই উপায়ান্তর না পেয়ে সন্তানের জীবন বাঁচাতে ছেলের জন্য সহযোগীতার হাঁত বাঁড়াতে সমাজের বিত্তবানদের কাছে সহযোগীতার আহবান জানান রুকনের বাবা হাফিজ শামসুল ইসলাম। রুকনের বন্ধুরাও এসময় এলাকা থেকে ও বিভিন্নভাবে তাঁর চিকিৎসার জন্য মানুষের ধারে ধারে ঘুরেছেন।  কিছু অর্থও পেয়েছেন কিন্তু তা রুকনের চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত ছিলো না। যার জন্য রুকনকে নিয়ে একধরণের আশাই ছেড়ে দিয়েছেন রুকনের পিতা। বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের সারপার গ্রামের বাসিন্দা ও এম.সি কলেজের শিক্ষার্থী রুকন দীর্ঘদিন থেকে মরণব্যাধী ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত। বিগত ৩ মাস থেকে সে ঢাকা পি.জি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। কিন্তু তাঁর এ চিকিৎসা পর্যাপ্ত নয়। চিকিৎসকদের পরামর্শ যত দ্রুত সম্ভব রুকনকে ভারতে নিয়ে যেতে হবে। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী রুকনকে ভারতে চিকিৎসা করাতে হলে প্রয়োজন প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা। যা রুকনদের পরিবারের কাছে কাল্পনিক ব্যাপার। ঠিক এমনই সময় আশার আলো নিয়ে রুকনদের পরিবারের কাছে বার্তা নিয়ে আসে যুক্তরাজ্যস্থ বিয়ানীবাজার ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট ইউ.কে। তারা রুকনুজ্জামান রুকনকে সুস্থ করে তুলতে এবং তাকে ভারতে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসার ব্যয় বহন করবে বলে জানালে আনন্দে ফেঁটে পরে রুকনের পরিবার। এরপরই রুকনকে নিয়ে আশার আলো দেখতে থাকে তাঁর পরিবার। রুকনও নিজের নবজীবন নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে। সর্বশক্তিমান আল্লাহ সহায় থাকলে রুকন আবার তাঁর নবজীবন ফিরে পাবে, এমন প্রত্যাশা সকলের।
এদিকে, রুকনুজ্জামান রুকনের চিকিৎসার জন্য সোমবার রাতে যুক্তরাজ্যের পূর্ব লন্ডনের রয়েল রিজেন্সীতে এক ফান্ড রাইজিং ডিনারের আয়োজন করে বিয়ানীবাজার ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট ইউ. কে।

ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট আয়োজিত এ ফান্ড রাইজিং ডিনারে যুক্তরাজ্যস্থ বিয়ানীবাজারের সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিয়ানীবাজারের সর্বস্তরের প্রবাসীরা উপস্থিত হয়ে রুকনের সাহায্যর্থে স্বতস্ফুর্তভাবে সহযোগীতার হাঁত বাড়িয়ে দেন। এব্যাপারে বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাষ্ট ইউ.কের সভাপতি মোঃ মুহিবুর রহমান মুহিব জানিয়েছেন, ভারতের ভিসা প্রাপ্তির পর ভারতে নিয়ে গিয়ে আমি নিজে সেখানে উপস্থিত থেকে রুকনের চিকিৎসা নিশ্চিত করবো। রুকন যাতে সুস্থ হয়ে আবার সবার মাঝে ফিরে আসে, সেজন্য আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এজন্য সকলের প্রয়োজন রুকনের মঙ্গল কামনার সাথে সাথে আমাদের জন্য দোয়া করা। যাতে করে আমরা রুকনকে সুস্থ করে সবার মাঝে নিয়ে আসতে পারি। অসুস্থ রুকনও নিজের সুস্থ জীবন ফিরে পেতে সকলের দোয়া চেয়ে আবেগাপ্লুত কন্ঠে বলেন, আমি কি বলবো আমার যে বলার ভাষাও হারিয়ে ফেলেছি। বিয়ানীবাজার ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট ইউ.কে আমাকে সুস্থ করে তোলার জন্য তাদের মূল্যবান সময় ও অর্থ ব্যয় করে আমার জন্য যে ভালোবাসা ও সহযোগীতার হাঁত বাড়িয়ে দিয়েছেন তাঁর জন্য আমি ও আমার পরিবার তাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমরা কখনো তাদের এই সহযোগীতা ভুলতে পারবো না।


অপরদিকে, বিয়ানীবাজার ক্যান্সার হাসপাতাল মরণব্যাধী ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত রুকনুজ্জামান রুকন সম্পর্কে অবগত হয়েও তাঁর চিকিৎসা সম্পর্কে কোন ধরণের খোঁজ-খবর নেয়া কিংবা সহযোগীতা না করার সংবাদে বিয়ানীবাজারের সর্বমহলে নিন্দার ঝড় বইছে। ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন উপজেলার সচেতন মহলও।

সেলিম উদ্দিন(পর্তুগাল): বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল এর প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকী পালন করেছে, বাংলাদে‌শ জাতীয়তাবাদী দল পর্তু, বি.এন.পি।

পর্তুগালের দ্বিতীয় বৃহতম শহর (T.S.B HALL.) Rua de sa Da bandeira মিলনায়তনে আলোচনা সভা হয়. আলোচনা সভায় পর্তু বিএনপির সভাপতি কাজল আহমেদের সভাপতিত্বে এবং আবুল হাসনাত এর পরিচলনায় , বক্তব্য রাখেন পর্তু বি,এন,পি উপদেষ্টা আব্দুল আলিম ,হাবিবুর রহমান ,খায়রুল কবির,(লেবু)মোতাহার হোসেন, (লালন) শেখ হাবিবুর রহমান,আব্দুর রাজ্জাক,ইদ্রিস মাতব্বর,আব্দুল হাই,ফারুক হোসেন,মনিরুল ইসলাম , মহব্বত আলম, রফিকুল আলম খান সহ আরো অনেকে এ সময় বক্তারা বলেন প্রিয় বাংলাদেশ আজ আওয়ামী দুশাসনে বন্দী ,গণতন্ত্র আজ মৃত।

বাংলাদেশে গণতন্ত্র নেই তাই প্রবাস থেকে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠা করার জন্য দূর্বার আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে বলে বক্তারা অভিমত ব্যাক্ত করেন। 

বক্তারা আরো বলেন আজকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী তে আসুন আমরা অঙ্গীকার করি যে কোনো মূল্যে গণতন্ত্রকে আমরা রক্ষা করব।দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব যতদিন থাকবে শহীদ জিয়াউর রহমানমানের নামও ততদিন পর্যন্ত ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে।

এ সময় বক্তারা আরও বলেন আজকে বাংলাদেশের মানুষকে স্বাধীনতার চেতনা রক্ষার জন্য ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যেসব রাজনৈতিক দল গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে, তারা অবশ্যই একমত হয়ে বর্তমানে যে স্বৈরাচারী শাসক বাংলাদেশের ওপর চেপে বসেছে তা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য তারা ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করবে। 

উক্ত আলোচনা শেষে এক জমকালো মনঙ্গো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠিত হয় ৷এতে সংগীত পরিবেশন পর্তুগালের সুনামধন্য RARE শিল্পী গোষ্ঠীর শিল্পীবৃন্দ৷ সংগীত পরিচালনা করেন শিল্পী গোষ্ঠীর কর্ণধার আফজাল আহমেদ ৷ গান গেয়ে মাতিয়ে তুলেন লিসবনের সনামধন্য শিল্পী এফ আই রনি,চ্যানেল এস এর প্রতিযোগিতা কারি শিল্পী পলাশ দেব ,প্রেডড্রাম বাজান সেলিম আহমদ ,গিটারে ছিলেন বাদল, পর্তুর বিশিষ্ট শিল্পী ফারুক আহমদ,শিল্পীর গানের শুরে হল ভরা দর্শকদেরকে মাতিয়ে তুলেছিল৷

সুফিয়ান আহমদ,বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ সিলেট মহানগর ছাত্রশিবিরের সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রেজাউল করিম (২৭) কে গ্রেফতার করেছে। বুধবার গভীর রাতে রেজাউলকে উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের চক্রবাণী গ্রাম থেকে গ্রেফতার কার হয়। সে একই এলাকার জয়নাল আবেদিন মসরু মিয়ার পুত্র।


পুলিশ জানায়, রেজাউল বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকান্ড ছাড়াও সরকার ও রাষ্ট্র বিরোধী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে ৪টি গ্রেফতারী পরোয়ানা থানায় মূলতবী রয়েছে। এমতাবস্থায় রেজাউল করিমকে গ্রেফতারী পরোয়ানার পলাতক আসামী হিসেবে গ্রেফতারের পর বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ গরীব ও দুস্থদের মধ্যে কোরবানীর মাংস বিতরণ করেছে আন্তর্জাতিক সামাজিক সংগঠন রোটারেক্ট ক্লাব অব বিয়ানীবাজার। 

পৌরশহরের সমবায় মার্কেট প্রাঙ্গনে গত মঙ্গলবার (ঈদের দিন) সন্ধ্যার পর মাংস বিতরণ করা হয়। মাংস বিতরণ অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রোটারেক্ট ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের আর.সি.সি রোটারিয়ান কামাল হোসেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পিপি রোঃ আহমেদ মহিউদ্দিন মিশু, পিপি রোঃ আতাউর রহমান, ক্লাব প্রেসিডেন্ট রোঃ সিদ্দিক আহমদ, সেক্রেটারী রোঃ ছালেক আহমদ, প্রোগ্রাম চেয়ারম্যান  ও ক্লাব এডিটর রোঃ সুফিয়ান আহমদ, জয়েন্ট এডিটর রোঃ জাফর আহমদ, ট্রেজারার রোঃ লোকমান খন্দকার, রোঃ পলাশ আহমদ, রোঃ আরিফুল ইসলাম মিজানসহ ক্লাব নেতৃবৃন্দ। 

মাংস বিতরণ অনুষ্টানে ক্লাব নেতৃবৃন্দ বলেন, রোটারেক্ট ক্লাব আর্তমানবতার কল্যাণে নিয়োজিত একটি সামাজিক সংগঠন। সংগঠনটি নিজেদের দায়বদ্ধতা থেকে সমাজের অসহায়, গরীব ও দুস্থ মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা চাই, আমাদের একটুখানি প্রচেষ্টায় হাসিখুশিতে ঈদ করুক সমাজের বঞ্চিত মানুষেরা। ঈদ আনন্দে আনন্দময় হয়ে উঠুক তাদের জীবন।

রনি মোহাম্মদ বিশেষ প্রতিনিধি,পর্তুগাল : প্রবাসের কর্মব্যাস্ততা মাঝে গ্রীষ্মের ছুটির শেষে বাড়তি ঈদ আনন্দের সাথে সবারই মনে ইচ্ছে জাগে নিজের এবং পরিবার আত্বীয় স্বজনকে নিয়ে সমূদ্র -পাহাড়, খোলা আকাশ আর বাতাস উপভোগ করতে। 

তা যদি হয়ে উঠে ঘড়ির কাটার সাথে সময়েকে মেনে চলা প্রবাসী বাংলাদেশীদের সংগঠন বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পর্তোর উদ্দ্যোগে তখন হয়ে উঠে আরো উৎসব মূখর আনন্দের।

গত ১৮ই সেপ্টম্বর পর্তুগালের প্রথম রাজধানী পর্তো শহরের অদূরে সাগর, পাহাড় আর ফলের আচ্ছাদিত প্রাকৃতিক নয়নাভিরাম ''বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্কে'' বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পর্তোর উদ্দ্যোগে দিনব্যাপী আয়োজন করা হয় বার্ষিক বনভোজন।


সকালে পর্তো শহর থেকে ২টি বাস এবং কয়েকটি ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে একসঙ্গে বনভোজনের নির্ধারিত স্থানে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হয়। 

পথিমধ্যে সবাইকে সকালের নাশতা পরিবেশন করা হয়। বেলা সাড়ে ১২টায় বাস গন্তব্য স্থানে পৌঁছালে সেখানে প্রবাসীদের সাথে যোগ দেন পর্তুগালের বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ, কাউন্সিলর মৌসুমী রহমান, নোয়াখালী এসোসিয়েশন পর্তুগালের সভাপতি হুমায়ন কবীর জাহাঙ্গীর, আবুল কালাম আজাদ, নজরুল ইসলাম সুমন সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেত্রী বৃন্দ।

ফুল এবং বিশেষ সম্মাননা পুরষ্কারের মাধ্যমে রাষ্ট্রদূত এবং কাউন্সিলর সহ অংশগ্রহণকারীদের স্বাগত জানান বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পর্তোর সভাপতি শাহ আলম কাজল, সাধারন সম্পাদক মামুন হাজারী, পর্তোর কমিউনিটি ব্যক্তিও নাইম জামশেদ, নাজির আহমেদ, গোলাম কিবরিয়া টিপু, মোয়াজ্জম হোসেন মোহন, আবু তাহের অপু, রাকিব উদ্দিন, কাইয়ুম লিটন, সাংবাদিক মোরশেদ প্রমুখ। এরপর দুপুরের খাবার শেষে সবাই অবলোকন করতে থাকেন প্রাকৃতিক নয়নাভিরাম বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্ক।

বনভোজনে আগত পরিবারগুলো ছেলেমেয়ে নিয়ে আনন্দ আড্ডা, নাচ -গানে  সকলে দল-মত সকল বেদাভেদ ভুলে আনন্দে মেতে উঠেন মেতে ওঠেন। 
এসময়  ''বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্ক'' এক ছোট বাংলাদেশে এ পরিনত হয়। পরে বনভোজনে আগত সকল শিশুদের নিয়ে শুরু হয় ছড়া গান, কবিতা, অভিনয় আর সকলের জন্য আকর্ষণীয় র্যা ফেল ড্র। এতে ছয়জন সৌভাগ্যবান বিজয়ী সহ অংশগ্রহণকারীদের মাঝে আকর্ষণীয় পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

সফিউল সাফি,ডেনমার্ক : ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের  উদ্যোগে গত ১৭ই সেপ্টেম্বর  ডেনমার্কের কোপেনহেগেনের স্থানীয় একটি রেস্তোরা পাপাডাম (PAPADUM) এ ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয় । উক্ত অনুষ্ঠানে  ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ সহ বাংলাদেশ আওয়ামী  যুবলীগ ডেনমার্ক শাখা,বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ ডেনমার্ক শাখা ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ  ডেনমার্ক শাখার নেতা কর্মী, নেতৃবৃন্দ, সমর্থক, শুভাকাঙ্ক্ষীদের   এক মিলন মেলায় পরিণত হয়।উপস্থিত সকলে একে অপরের সাথে কুশল বিনিময় করে  মুক্ত আলোচনা  করেন।  মুক্ত আলোচনায় বর্তমানে বাংলাদেশের উন্নয়ন, জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের প্রশংসা করেন।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা  তারুণ্যের অহংকার  সজীব ওয়াজেদ জয়  ওয়ার্ল্ড অর্গানাইজেশন অব গভার্নেন্স অ্যান্ড কম্পিটিটিভনেস, প্লান ট্রিফিনিও, গ্লোবাল ফ্যাশন ফর ডেভেলপমেন্ট এবং যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট প্রদেশের নিউ হেভেন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস সম্মিলিতভাবে  আইসিটি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড' -এর জন্য মনোনীত করায় নেতৃবৃন্দ  উল্লাস  প্রকাশ করেন।  মুক্ত আলোচনায় ডিজিটাল বাংলাদেশ' প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশের নাগরিকদের সহায়তা ও আইসিটি বিভাগে নেতৃত্বদান ও দৃঢ়তার সঙ্গে তথ্য-প্রযুক্তিখাত নিয়ে কাজ করে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টেকসই উন্নয়নের জন্য আইসিটি খাতকে নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ায়    সজীব ওয়াজেদ জয়ের প্রশংসা করেন।
নেতৃবৃন্দরা বলেন বাঙ্গালী জাতি হিসেবে  আমরা ভাগ্যবান  কারণ বঙ্গবন্ধু  স্বাধীনতা এনে  দিয়েছে  বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রি  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছে অর্থনৈতিক মুক্তি ও জননেত্রি তনয়   ও প্রধানমন্ত্রী তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা  তারুণ্যের অহংকার  সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল বাংলাদেশ  গড়ে দিয়েছেন। বাঙ্গালী জাতি বঙ্গবন্ধুর পরিবারের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। নেতৃবৃন্দরা বলেন  বাংলাদেশ জঙ্গি বাদ ,সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে জননেত্রির নির্দেশে সরকারকে সহযোগিতা করার লক্ষ্যে  (বাস্তবে, অনলাইনে , সামাজিক মাধ্যমে )নিরন্তর লড়াই   করতে হবে। সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জননেত্রি  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত  ভিশন ২০৪১ জন্য সম্ভাব্য কাজ করে যেতে হবে।
ঈদ পুনর্মিলনীতে উপস্থিত ছিলেন ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের   প্রধান  উপদেষ্টা  বাবু সুভাষ ঘোষ, মাহবুবুল হক, রাফায়েত হোসেন মিঠু, রিয়াজুল হাসনাত রুবেল,ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তফা মজুমদার বাচ্চু ও সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমান .  সহ-সভাপতি খোকন মজুমদার,নাসির উদ্দিন সরকার, জাহিদ চৌধুরী বাবু. যুগ্ম-সম্পাদক নাঈম বাবু, নুরুল ইসলাম টিটু, সফিউল সাফি। সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার সাইদুর রহমান, মোহাম্মদ সেলিম।বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ ডেনমার্ক শাখার সভাপতি নাজিম উদ্দিন সাধারন সস্পাদক রনি আলম. ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য সোহেল আহমেদ, সাফায়েত অন্তর, শামীম খান ,মাঞ্জুর আহমেদ মামুন, মনসর আহমেদ, মোহাম্মাদ ইউসুফ, মাসুম বিল্লাহ, শাওন আহমেদ, সাইদুর রহমান, নাজমুল ইসলাম, আরিফুল ইসলাম, হাসান শাহীন, তুহীন, হুমায়ুন কবির, কবির হোসেন, তাসবির হোসেন, সফিকুর রহমান শাহাজাহান, আরিফুল হক আরিফ, আজাদুর রহমান, রাজ্জাক, রতন, ওমর, কাকন, হাসান, মোঃ শাকিল, শিপন , সামসুল আলম, সুজন হুসাইন,  সহ  ডেনমার্ক ছাত্রলীগ, ডেনমার্ক আওয়ামী যুব লীগ , ডেনমার্ক আওয়ামী  স্বেচ্ছাসেবক লীগের  নেতৃবৃন্দ

অনুষ্ঠানে উপস্হিত সকল অতিথিকে ধন্যবাদ জানান ডেনমাক আওয়ামী লীগের সাধারন সস্পাদক মাহবুবুর রহমান।  

জনপ্রিয় অনলাইন : ৫ লাখ ৫ হাজার ৯ শ বর্গ কিলোমিটার (১৯৪,৮৯৭ বর্গ মাইল) এলাকা নিয়ে স্পেন আয়তনের দিক থেকে বিশ্বের ৫১তম দেশ। রাজধানীর নাম মাদ্রিদ। এক সময়কার পৃথিবীর অন্যতম পরাশক্তি স্পেনের নাম ‍নানা কারণে মুসলমানদের আবেগের সঙ্গে মিশে আছে।
সেই স্পেনে চালু হলো প্রথম ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টি স্পেনের উত্তারাঞ্চলীয় স্বায়ত্বশাসিত এলাকা বাস্ক কান্ট্রির সান সেবাস্তিয়ান (San Sebastian) শহরে অবস্থিত।
বিশ্ববিদ্যালয়টি উদ্যোক্তা হলেন মরক্কোর আদল ওয়া ইহসান ইসলামিক সোসাইটির নেতা রাশিদ বু তারবুশ।
যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা প্রদেশের ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং ইতোমধ্যে মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বীকৃতি প্রদান করেছে। মিলেছে স্পেন সরকারের প্রয়োজনীয় অনুমোদনও। ফলে খুব দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত কাজ শেষে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে।
আপাতত বিশ্ববিদ্যালয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করবেন রাশিদ তারবুশ। তিনি বিশ্ব মুসলিম ওলামা ইউনিয়ন ও মরক্কো ওলামা পরিষদ সদস্য এবং স্পেনের ইমাম পরিষদের প্রেসিডেন্ট।
প্রথম ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা প্রসঙ্গে রাশিদ তারবুশ বলেন, ইউরোপে যখন ব্যাপকভাবে মুসলমানের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে এমন সময়ে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হলো। এটি একটি দারুণ খুশির খবর। আমরা আশা করছি, এখান থেকে ইসলামি বিষয়গুলো পাঠদানের পাশাপাশি সব বিষয়েই শিক্ষার্থীদের মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদানে সক্ষম হবো।

উল্লেখ্য ১৯৯২ সালে স্পেনে ইসলামকে ধর্ম হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। এর পর থেকে মুসলমানরা ধর্মীয় শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে। সর্বশেষ চলতি বছরের শুরুতে স্কুলের সিলেবাসে ইসলামি বিষয় সংযোজন করা হয়।

মোঃ কামরুজ্জামান, ফ্রান্স থেকে : ফ্রান্সের পিঙ্ক সিটি খ্যাত তুলুজ শহরে প্রবাসী বাংলাদেশী খ্রীষ্টানদের সর্ব প্রথম ও বৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ খ্রীষ্টান এসোসিয়েশন, তুলুজ, ফ্রান্স এর বার্ষিক সাধারণ সভা গত ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০১৬ খ্রি: রোজ রবিবার সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় সেন্ট সারনান গির্জার অডিটোরিয়ামে  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সুমন্ত রোজারিওর প্রার্থনা দিয়ে সভার প্রথম পর্ব শুরু হয়। লিউনার্ড কোড়াইয়ার সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করেন জেভিয়ার আলেকজান্ডার রোজারিও। সভার সভাপতি লিউনার্ড কোড়াইয়া তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন, এই সংগঠনের মাধ্যমে আমাদের মধ্যে যে ভ্রাতৃত্ববোধের সৃষ্টি হয়েছে তা আমাদের প্রবাসী জীবনে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে এবং প্রবাসে খ্রীষ্টীয় আদর্শ ও বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হবে। সকলের মজ্ঞল ও ভ্রাতৃত্ব বন্ধন দৃঢ় করার এই সুযোগ সৃষ্টি করার জন্য তিনি এই সংগঠনের সকল সদস্য/সদস্যা ও কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এরপর সকলের জ্ঞাতার্থে আশিষ অলিভার রোজারিও বিগত দিনের বার্ষিক কার্য বিবরণী ও সমীর জেমস রোজারিও অর্থ বিবরণী তুলে ধরেন।
এরপর আশিষ অলিভার রোজারিও ও জেরোম নিপু গমেজ এর সহযোগিতায় বাংলাদেশ খ্রীষ্টান এসোসিয়েশন, তুলুজ, ফ্রান্স এর সংবিধান পাঠ করেন তুষার পলিকার্প রোজারিও। সকল সদস্যদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে সংবিধানের সকল বিষয় নিয়ে মুক্ত আলোচনা হয় এবং বিভিন্ন বিষয় সংযোজন করার পর সর্বসম্মতিক্রমে তা গৃহীত হয়।
দ্বিতীয় পর্ব ছিল মধ্যাহ্ন ভোজ। মধ্যাহ্ন ভোজে ছিল সুস্বাদু খিচুড়ি, মুরগীর মাংস ও সালাদ।   মধ্যাহ্ন ভোজের পর সভার সভাপতি লিউনার্ড কোড়াইয়া বিশেষ কাজে বাইরে যাওয়ায় শিমু কস্তা সভার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।
আলোচ্যসূচী অনুযায়ী সভার শেষ পর্ব ছিল পুরাতন কমিটি বাতিল করে ২০১৬-২০১৮ বছরের কার্যকরী পরিষদের নতুন কমিটি গঠন। সভার সভাপতি  শিমু কস্তা  পুরাতন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করে ৬ সদস্যের উপদেষ্টাসহ অনু হিউবার্ট রোজারিওকে সভাপতি, আশিষ অলিভার রোজারিওকে  সাধারন সম্পাদক, সমীর জেমস রোজারিওকে কোষাধ্যক্ষ সহ ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি খসড়া  কমিটি প্রস্তাব করিলে সভায় উপস্থিত সকল সদস্য উক্ত কমিটি সমর্থন করেন।
পূর্ণাঙ্গ কমিটি: উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্যগণ  : প্রধান উপদেষ্টা পাল-পুরোহিত ভিনসেন্ট গালোয়া, লিউনার্ড কোড়াইয়া, সুধীর ডিকস্তা , লতা  গমেজ,  মনিকা রোজারিও  
সভাপতি অনু হিউবার্ট রোজারিও, সহ -সভাপতি নিপু জেরোম গমেজ, সহ- সভাপতি চঞ্চল লরেন্স পিউরিফিকেশন, সহ -সভাপতি শিমু কস্তা, সাধারন সম্পাদক  আশিষ অলিভার রোজারিও, সহ-সাধারন সম্পাদক সুমন্ত পল এসেনসন,কোষাধ্যক্ষ সমীর জেমস রোজারিও, সাংগঠনিক সম্পাদক জেভিয়ার আলেকজান্ডার রোজারিও, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শাওন জন গণসাল্ভেজ, সাংস্কৃতিক সম্পাদিকা জেনেট দোলা রোজারিও,  সাংস্কৃতিক সম্পাদক  অজিত প্রধান,  শিক্ষা ও সাহিত্য সম্পাদক তুষার পলিকার্প রোজারিও, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক শ্যামল গমেজ, ধর্ম ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদিকা ঝুমা রোজারিওধর্ম ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক বেনেডিকট গমেজ, তথ্য প্রযুক্তি ও যোগাযোগ সম্পাদক সুমন্ত রোজারিও,  সহ-তথ্য প্রযুক্তি ও যোগাযোগ সম্পাদক রকি গণসালভেজ, সদস্য আন্তনি বাবলু গমেজ, টুটুল পেরেরা, রনি গমেজ ও সনি জেমস কস্তা ।
নির্বাচনের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নব নির্বাচিত সভাপতি অনু হিউবার্ট রোজারিও তাকে নির্বাচিত করার জন্য উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ এবং সংগঠন পরিচালনার যে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে, তা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এছাড়া তিনি খ্রীষ্টীয় মূল্যবোধ ও আদর্শ অনুসরণ, মানবিক মর্যাদা বৃদ্ধি, সকলের মধ্যে সংহতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ তুলে ধরার আহ্বান জানিয়ে সংগঠনের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরা সহ  বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বহিঃবিশ্বে উজ্জ্বল করার জনয নব প্রজন্মকে বাংলাভাষা ও বাংলাদেশী সংস্কৃতি লালনে উৎসাহিত করার জন্যও তিনি অনুরোধ করেন।

দুপুর ১২.৩০ থেকে বিকাল ৬ ঘটিকা পর্যন্ত পরিচালিত এ সভায় উপস্থিত ছিলেন সেন্ট সারনান গির্জার পাল-পুরোহিত ভিনসেন্ট গালোয়া, প্রবীণ সংগঠক সুকুমার এসেনসন, চঞ্চল লরেন্স পিউরিফিকেশন সহ আরও অনেকে। সবশেষে সভার সভাপতি সকলের সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করলে, সকলের মজ্ঞল কামনা করে লতা গমেজের প্রার্থনার পর সভা শেষ হয়।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস,ফ্রান্স : প্যারিস-বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবু তাহিরকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। গত রবিবার প্যারিসের ক্যাথসীমার সোনার বাংলা রেষ্টুরেন্টের অভিজাত হলে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

ছাতক - দোয়ারা জনকল্যাণ পরিষদ ফ্রান্স আয়োজিত সম্প্রতি আয়েবাপিসির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। প্যারিসের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে পরিষদের সভাপতি মনোয়ার হোসাইন জাহিদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক ময়নুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের ফ্রান্স শাখার সভাপতি ও সুনামগঞ্জ জেলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি মোহাঃ নুরুল আবেদীন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সাবেক সভাপতি মোহাঃ আঙ্গুর আলম , উপদেষ্ঠা মন মোহন দে। হাফিজ সফুল আহমদের পবিত্র কোরান তেলাওয়াতের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন , কোষাধ্যক্ষ খেনু মিয়া। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন,এনার্জি পাওয়ার এডিটর মোল্লা আমজাদ হোসেন ,পরিষদের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল ইসলাম সায়েম,সিনিয়র সহ সভাপতি নুরুজ্জ্বামান, প্যারিস- বাংলা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফুর রহমান বাবু , দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা প্রবাসী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আফাজ উদ্দিন, আখতারুজ্জামান সাগর,ইপিবিএ ফ্রান্স শাখার কোষাধ্যক্ষ মনির হোসেন,দপ্তর সম্পাদক শাকিল সরকার, পরিষদের উপদেষ্ঠা আব্দুল মন্নান প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, ইউরোপের বাংলাদেশী সাংবাদিকতায় সাংবাদিক আবু তাহির অনবদ্য অবদান রেখে আসছেন। তাঁর মেধা মননে সকল সময় জাগ্রত হয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ। বাংলাদেশী কমিউনিটি , স্বদেশ প্রেম সর্বোপরি প্রবাসীদের বিভিন্ন অধিকার আদায়ে তিনি সব সময় সোচ্চার থাকেন এবং এ নিজে নির্ধিদায় কাজ করে যাচ্ছেন। ইউরোপিয়ান প্রবাসী বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সকল ক্ষেত্রে তিনি বিশেষ অবদান রাখবেন এটা প্রত্যাশা। পুড়ে পরিষদের পক্ষ থেকে তাঁকে উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget