2016-07-03


বাহার উদ্দিন বকুলঃ জেদ্দা সৌদি আরব: গত ৬ জুলাই,২০১৬ বুধবার সন্ধ্যায় জেদ্দার হোটেল লিমারে এক জমজমাট ঈদ উৎসবের আয়োজন করে জেদ্দার লক্ষ্মীপুর জেলা প্রবাসী কল্যান সমিতি।
অনুষ্ঠিত ঈদ-আনন্দ উৎসব অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সমিতির সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবক, আবুল বাশার ইসলাম, সমিতির সাধারণ সম্পাদক রৌশনজামিল শিপু ও মামুন শিপন এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও রাজনীতিবিদ আনোয়ার হোসেন টিপু, সমিতির প্রধান উপদেষ্টা, মতিউর রহমান বাবলু,
আনোয়ার হোসেন খান,পরিচালক শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক প্রাইভেট লিঃ, মোঃ শহিদ উল্লাহ,বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও রাজনীতিবিদ, আলহাজ আব্দুর রহমান, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও রাজনীতিবিদ, আলতাফ হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, দিদার হোসেন, আব্দুল রহিম,বিল্লাল হোসেন।
সায়েম পাটোয়ারী, সুমন পণ্ডিত, মোস্তফা কামরুল, কাজী আমিন আহমেদ, এস এম সেলিম রেজা, কাশেম মজুমদার, মিজান রাজা, মনির হোসেন, আনোয়ার হোসেন রাজু, সহ আরও অনেকে। অনুষ্ঠানে জেদ্দা এবং মক্কার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এবং বিশিষ্ট পেষাজীবিগণ সহ সর্বস্তরের প্রবাসীরা অংশগ্রহণ করেন। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপস্থিত সকলকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার ধাপ অতিক্রম করছে, যাতে প্রবাসীদের অবদান প্রশংসনীয়। 
এ ধরনের আয়োজনে সহায়তার জন্যে লক্ষ্মীপুর জেলা কল্যাণ সমিতির সকল নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান ও জেদ্দা প্রবাসী এবং প্রবাসে সামাজিক সম্প্রীতি বজায় রাখার আহ্বান জানান।
ঈদ-আনন্দ উৎসব প্রবাসীদেরকে আন্দোলিত করেছে। এই আনন্দ উৎসব তথা এক মিলন মেলায় পরিনত হয়।এর পর এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতি অনিল দাশ গুপ্তের ভিজিটিং কার্ড নিয়ে একটি অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় এর প্রতিবাদ জানিয়েছে ফ্রান্স আওয়ামী লীগ। 

ফ্রান্স আওয়ামী লীগের এক প্যাডে এই প্রতিবাদ পত্রে স্বাক্ষর করেন ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সভাপতি মহসিন উদ্দিন খান, সিনিয়র সহ সভাপতি মঞ্জুরুল হাসান চৌধুরী সেলিম এবং দিলোওয়ার হোসেন কয়েছ।জনপ্রিয়২৪ এর পাঠকের জন্য হুবহু তুলে ধরা হল। প্রতিবাদ সম্প্রতি ইউরো বার্তা ২৪.কম নামে একটি অনলাইন পত্রিকায় সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী অনিল দাশ গুপ্তের ভিজিটিং কার্ডে ভুল তথ্য শিরনামে একটি খবর প্রকাশিত হয়। এই খবরটি মিথ্যা,ভুল ও বানোয়াট। এই ধরনের তথ্য ছেপে কিছু মৌলবাদী গ্রুপ ইউরোপে তথা সারা বিশ্বে আওয়ামী পরিবারের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ানোর পায়তারা করছে। অত্যন্ত কাঁচা হাতে লেখা এই মিথ্যা প্রকাশ করে এক দিকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকদের জন্য ভালোই হয়েছে। আমরা আজ বুঝতে পারছি দলের ভেতর ঘাপটি মেরে থাকা মোস্তাকের প্রেতাত্মারা কি ভাবে যুগ যুগ ধরে আমাদের ক্ষতি করছে। সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী অনিল দাস গুপ্ত অর্ধ শতকের কাছাকাছি ধরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন পরিক্ষিত সৈনিক। ফ্রান্সের তথাকথিত কতিপয় আওয়ামী লীগ নেতা এবং দীর্ঘ দিন ধরে দলে ঘাপটি মেরে বসে থাকা কিছু বি এন পির এজেন্ট ১৪ বছরের পুরনো একটি ভিজিটি কার্ড সরবরাহ করে।জাতির পিতার কন্যা জন নেত্রী শেখ হাসিনার পছন্দের একজন নেতাকে যদি হেয় প্রতিপন্ন করার বাসনায় লিপ্ত হয় তবে তারা বোকার সর্গে বাস করছে। দীর্ঘ দিন থেকে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের কিছু নেতা বি এন পি জামাত এর মদদে দলকে নিজ স্বার্থে ব্যাবহার করে আসছিল।তাদের আসল মুখোশ গত কয়েক মাস থেকে উন্মোচিত হতে থাকে।তারই ধারাবাহিকতায় শ্রী অনিল দাস গুপ্তের ভিজিটিং কার্ড সরবরাহ করে এহেন নিন্দনীয় কর্মকান্ড চালাচ্ছে।ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সাধারণ কর্মীরা এদের চরিত্র বুঝে ফেলে। সকলে এক মত হয়ে এদের দলের নেতৃত্ব থেকে ছুড়ে ফেলেছে, এটাই তাদের ব্যথা। ইউরো বার্তা ২৪.কম অনলাইন সংবাদদাতা নিজেই চেয়ারম্যান ও প্রেসিডেন্টের পার্থক্যটুকু বোঝেন কিনা তা আমাদের বোধগম্য নয়। প্রেসিডেন্ট,চেয়ারম্যান,কনভেনার এদের সাংগঠনিক দায়িত্ব যদি এক হয়, তবে এর মধ্যে কিসের ভুল সংবাদদাতা খুঁজে পেলেন তা ব্যাখ্যা দেওয়া উচিত ছিল। শ্রী অনিল দাশগুপ্ত ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মোঃ শরীফ দুই যুগ আগে থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য হয়েছেন, ভিজিটিং কার্ডটি সেই সময়ের । জাতীয় কমিটিকে সেন্ট্রাল কমিটি বলায় কি এমন মহাভারত অশুদ্ধ হয়েছে তাও সংবাদদাতা ব্যাখ্যা করেননি। শ্রী অনিল দাশ গুপ্তাকে জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনা সম্মান প্রদর্শন করেন তা ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সকল নেতা কর্মী অবগত আছেন। তারপরও যারা জেনেশুনে শ্রী অনিল দাশগুপ্তকে অসম্মান করে কথা বলেন বা তাকে বিভিন্ন ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে চান তাদেরকে বলব বামন হয়ে চাঁদের দিকে হাত বাড়ানো থেকে বিরত থাকুন। পরিশেষে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সকল নেতা কর্মীদের পক্ষ থেকে এহেন বিভ্রান্তিমূলক খবর প্রচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছি। জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু।

আবিদুল ইসলাম রিমন : গুয়াবাড়ি ইয়াং জেনারেশনের উদ্যোগে পথ শিশুদের জন্য ঈদ উপলক্ষে কাপড়চোপড় বিতরণ করা হয়।গুয়াবাড়ি তরুণ যুবকরা তাদের নিজ উদ্যোগে গত ৪জুলাই এই আয়োজন করে। আতাউর মাহি জনপ্রিয়২৪ডট কমকে বলেন,ইনশাল্লাহ আমরা প্রতিবছর এই আয়োজন করবো।আশাকরি, সমাজের সবাই এইভাবে নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে এলে দেশে কোন পথশিশু না খেয়ে থাকবে না।

রনি মোহাম্মদ(লিসবন,পর্তুগাল): যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পর্তুগাল পালিত হলো ঈদুল ফিতর। বাংলাদেশী অধ্যুষিত পর্তুগালের লিসবনের মাতৃ মনিজ পার্কের মাঠে ঈদের জামাত সকাল সাড়ে আটটায় অনুষ্ঠিত হয়।

লিসবন বাইতুল মোকাররম মসজিদের খতিব মাওলানা আবু সায়িদ ঈদ উল  ফিতরের জামাত পরিচালনা করেন, নামাজ পূর্বে ঈদ উল ফিতরের তাৎপর্য নিয়ে বয়ান করেন মাওলানা ইব্রাহিম মোল্লা। পর্তুগালের নিযুক্ত বাংলাদেশের দুতাবাসের রাষ্টদূত ইমতিয়াজ আহমেদ সহ দুতাবাসের কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং কমিনিটি ব্যাক্তি অলিউর রহমানের, রানা তসলিম উদ্দীন,

জহিরুল আলম জসিম, মোহাম্মেদ সোলায়মান, লিয়াজ উদ্দিন, সোয়েব মিয়া, মোরশেদ কামাল, নজরুল ইসলম সিকদার, মহিন উদ্দিন, শওকত ওসমান, তাহের আহমেদ, মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ, জাহির আলী, আবুল কালাম আজাদ, কাজী এমদাদ, ইউসুফ তালুকদার, জোবায়ের আহমেদ,

শহীদ উল্ল্যা সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশীর বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অংশ নেন। উক্ত ঈদের জামাতে বাংলাদেশীর পাশাপাশি আফ্রিকা এবং পশ্চিমা বিশ্বের বিভন্ন দেশের অন্য্যন্য কমিউনিটির ধর্মাবলম্বী মুসলমানদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। 

মাতৃ মনিজ পার্কের মাঠে শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত অংশগ্রহন ছিল লক্ষণীয়।  ঈদের জামাতের পর ইসলামিক প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী বাংলাদেশীসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের মুসল্লীরা কোলাকুলি করে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেন।

 বাংলাদেশীদের দেশীয় ঐতিহ্যবাহী পাজামা পাঞ্জাবিতে বাংলাদেশীদের ঈদের ময়দানের দিকে ছুটে চলা যেন বাংলাদেশের কথাই মনে করিয়ে দিলো পর্তুগালের লিসবনের মাতৃ মনিজ পার্ক। 

এছাড়া লিসবনের সেন্ট্রাল মসজিদ সকাল ৭টা ৩০মিঃ এবং ৮টা ৩০মিঃ দুইটি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত, আমাদোরা বাংলা মসজিদে সকাল ৮টায় সহ লিসবনের আশ-পাশের বিভিন্ন মসজিদেও উল্লেখযোগ্য বিপুল সংখ্যক মুসলমান তাদের প্রধান ও ধর্মীয় ঈদ উৎসব পালন করেন।

ফ্রান্স প্রতিনিধি : ঈদ মানে আনন্দ ঈদ মানে খুশি তবে দুর পরবাসে পরিবার পরিজন রেখে ঈদ কতটা আনন্দের ? তবুও প্রবাসে বেড়ে উঠা কমিউনিটির একে অপরের সাথে সুখ দুঃখ ভাগাভাগি করে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা আর ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্যের মধ্য দিয়ে মুসলিম ধর্মাবলম্ভীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদযাপন করেছে ফ্রান্স প্রবাসীরা।

প্যারিসে বাংলাদেশ অধ্যুষিত তিনটি স্থানে পৃথক পৃথক ভাবে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। মেট্রো হোস জিমনেসিয়ামে সকাল নয়টা একটি বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে ওভারভিলিয়ে বাংলাদেশ জামে মসজিদে সকাল ৭ টা থেকে পর্যায় ক্রমে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত একাধিক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়, বাংলাদেশ কমিউনিটি মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারে সকাল ৭ টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত তিনটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

বিপুল সংখ্যক প্রবাসীদের সাথে ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করেন ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশে দুতাবাসের রাষ্ট্রদূত এম শহিদুল ইসলাম, আয়েবার মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ, ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সভাপতি মহসিন উদ্দিন খান লিটন, সাধারন সম্পাদক দিলোয়ার হোসেন কয়েছ, ফ্রান্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ তাহের, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব মিজান চৌধুরী মিন্টু, আশরাফুল ইসলামসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, আঞ্চলিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। এছাড়া প্যারিসের অদূরে তুলুজ স্টার্সবাগও লীল শহরে কয়েকটি ঈদের জামাত অনুষ্টিত হয়। তুলুজের রেনারী মসজিদে ২০ হাজার মুসল্লি এক সাথে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

সেখানে তুলুজ বাংলাদেশী কমিউনিটি এসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিম, জাহাঙ্গির হোসাইন, ফেরদৌস খান, শাকের চৌধুরী সহ কমিউনিটি নেত্রী বৃন্ধরা নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে শুভেচ্ছা বিনিময় আর নিজেদের মাঝে সুখ দুঃখ ভাগাভাগি করে কিছুটা হলেও খুজে পান শিকড়ের টান, কেউ কেউ জানালেন গ্রীষ্মের ছুটিতে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় এবারের ঈদে থাকবে বাড়তি আনন্দ। ঈদের প্রতিটি জামাতে বাংলাদেশ ও মুসলিম উম্মাহর জন্যে বিশেষ দোয়া করা হয়। ফ্রান্সের তুলুজে ইদের দিনে আয়োজন করা হয় ব্যাতিক্রমি ঈদ আনন্দের। তুলুজ বাংলাদেশী কমিউনিটি এসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিমের সৌজন্যে পিতিত গোয়াইতে মিলন মেলার আয়োজন করা হয়। মিলন মেলায় তলজ বাংলাদেশী কমিউনিটির কতেক শত নারি পুরুষ ও নতুন প্রকন্মের প্রবাসী বাংলাদেশী অংশ গ্রহন করেন। প্যারিসের অদূরে প্রায় দেড় হাজার বাংলাদেশীদের বসবাসের শহর তুলুজে। বিগত এক যুগ থেকে এই অনুষ্টান নিয়মিত আয়োজন করার জন্য তুলুজ বাংলাদেশী কমিউনিটির সভাপতিকে ধন্যবাদ জানান মিলন মেলায় আগত অনেকেই।

এনায়েত হোসেন সোহেল,প্যারিস,ফ্রান্স: ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে অবস্থানরত বিয়ানীবাজার উপজেলার ঐতিহ্যবাহি সামাজিক সংগঠন বৈরাগীবাজার গ্রিন লিফ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের উদ্যেগে ইফতার মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪ জুলাই সোমবার প্যারিসের একটি অভিজাত রেষ্টুরেন্টে ফ্রান্স বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক;ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নের্তৃবৃন্দের সরব উপস্থিতিতে এ ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি জাকারিয়া আহমদের সভাপতিত্বে ও সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন আহমদের পরিচালনায় ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স বিএনপির সহ সভাপতি শাহ জামাল ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিয়ানীবাজার উপজেলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ফ্রান্সের সাবের উপদেষ্ঠা নাসির উদ্দিন দলা ,বিশ্বনাথ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের সভাপতি কানু মিয়া,মাল্টিকালচারাল এসোসিয়েশনে সভাপতি মাওলানা বদরুল ইসলাম, কমিউনিটি নেতা মুসলিম উদ্দিন,আবুল হাসনাত। সংগঠনের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবিদ হোসেনের পবিত্র কোরান তেলোয়াতের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানে এ সময় সংগঠন ও পবিত্র মাহে রমজানের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন,ইমরান আহমদ,শহীদ আহমদ,আলিম উদ্দিন,আকমল হোসেন,ফয়েজ আহমদ,আবু সাঈদ,হায়দার হোসেন,রুবেল আহমদ,নুরুল ইসলাম,অব্যল হোসেন,মামুন আহমদ প্রমুখ। 
এসময় রমজানের তাৎপর্য ও গুরুত্ব নিয়ে আলোচনায় বক্তারা বলেন, আল্লাহ্ তাআলা এ মাসটিকে স্বীয় ওহি সহিফা ও আসমানি কিতাব নাজিল করার জন্য মনোনীত করেছেন। সুতরাং এ মাসে বেশি বেশি আমল করা সব মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
পরে মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা বদরুল ইসলাম ।

ফ্রান্স প্রতিনিধি : বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ ট্রাষ্টের আয়োজনে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৩ জুলাই লা কর্ণভের একটি অভিজাত রেষ্টরেন্টে বিপুল সংখ্যক প্রবাসি বাংলাদেশিদের উপস্থিতিতে এ ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ ট্রাষ্ট প্যারিস ফ্রান্স এর সভাপতি সরওয়ার হোসেন টীপুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো আলী হোসেন এর পরিচালনায় ইফতার মাহফিলে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সের পক্ষ থেকে আবু হানিফ। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ওয়াহিদ বার তাহের,মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের সভাপতি মিয়া জামিরুল ইসলাম , ফ্রান্স বিজনেস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শুভ্রত্ব ভট্টাচার্য, সিলেট বিভাগের আহ্বায়ক আব্দুর রব,ঢাকা বিভাগের সভাপতি শাহজান শারু, ফ্রান্স আওামীলীগ কর্মজীবিলীগ সভাপতি নুরুল আবেদীন , শ্রমিকলীগ ফ্রান্স সাধারণ সম্পাদক আমীন খান হাজারী ,স্বরলিপি সভাপতি নজরুল ইসলাম , বিয়ানিবাজার জনকল্যান ট্রাষ্ট উপদেস্থা গিয়াস উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রচার সম্পাদক সরফ উদ্দিন স্বপন ,ফ্রান্স যুবলীগ নেতা মিজানুর রাহমান, ছাত্রলীগ নেতা জামাল আদিল, বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রবীণ মুরব্বি হানিফ মিয়া ,রাজনগর সমিতি ফ্রান্সের সাধারণ সম্পাদক কাইয়ুম রাহমান, আওামীলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম,ফ্রান্স আওামীলীগ কর্মজীবিলীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল ইসলাম রুহেল , স্বরলিপি সভাপতি এমদাদুল হক স্বপন ,বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ ট্রাষ্ট প্যারিস ফ্রান্স এর সহ সভাপতি ফয়জুল হক, সহ সভাপতি আলী আহমেদ, আর ও বক্তব্য রাখেন হাসান আহমেদ , মাছুম আহমেদ, এমাদ উদ্দিন, খালেদ আহমদ, জাকারিয়া আহমদ,আলিম উদ্দিন সুমন, নূর আহমদ ,আলম, সানী, সুয়েজ, তাজুল, আনিস, এমরান সহ ফ্রান্সের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। 

এসময় রমজানের তাৎপর্য ও গুরুত্ব নিয়ে আলোচনায় বক্তারা বলেন আল্লাহ্ তাআলা এ মাসটিকে স্বীয় ওহি সহিফা ও আসমানি কিতাব নাজিল করার জন্য মনোনীত করেছেন। সুতরাং এ মাসে বেশি বেশি আমল করা সব মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পরে মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

ফ্রান্স প্রতিনিধি : প্যারিসে বসবাসরত ফেনীবাসী ও বিপুল সংখ্যক প্রবাসীদের নিয়ে ইফতার মাহফিল ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৩ জুলাই প্যারিসের ওভারবিলা জামে মসজিদে এ ইফতার মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। ফেনী জেলা সমিতির সভাপতি কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক তুষার তুহিনের পরিচালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন আল মামুন ,এইচ এস হায়দার ,এম এ তাহের ,সালেহ আহমদ ,আজহারুল হক মিন্টু ,সাহেদ চৌধুরী বাবলু,ইমরান মাহমুদ সহ ফেনী জেলা সমিতি ফ্রান্সের নেতারা। এ সময় বক্তারা ফেনী জেলা সমিতির বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড প্রবাসীদের সামনে তুলে ধরেন। বিশেষ করে প্রবাসীদের লাশ দেশে পাঠানোর জন্য ফেনীর প্রবাসীদের গঠিত ফান্ড এর কথা তুলে ধরে বক্তারা বলেন, ফ্রান্সের বাংলাদেশি কমিউনিটিকে শক্তিশালী করতে ফ্রান্স বসবাসরাত ফেনীর প্রবাসীরা সবসময় আন্তরিক। পরে দেশ ও জাতির কল্যানে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ফেনা জেলা সমিতির পক্ষ থেকে ফ্রান্স প্রবাসীদের ঈদের শুভেচ্ছা জানানো হয়।

রনি মোহাম্মদ,(লিসবন,পর্তুগাল)পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে সলিডারিটি ফর ইমিগ্রান্টের ব্যানরে অনুষ্টিত হয়ে গেল এক বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানব বন্দন।

সলিডারিটি ফর ইমিগ্রান্টের ও প্ল্যাটফর্ম ফর ইমিগ্রেশন এন্ড সিটিজেনশিপ এর ব্যানারে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, চীন, ব্রাজিল, সেনেগাল, নাইজেরিয়া, মরক্কো, আলজেরিয়া, এ্যাঙ্গোলা, কাপে ভের্দে, গিনিবিসাও, ইউক্রেন, বেলারুশ সহ বিভিন্ন দেশের হাজারো অবিভাসীদের ও পর্তুগালের বিভিন্ন অভিবাসন নিয়ে কাজ করা সংগঠনের অংশগ্রহন মধ্যদিয়ে এ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

চলতি বছরের মার্চ'১৬ এর সেফ পর্তুগাল কর্তৃক জারিকৃত অভিবাস অইনের ধারা ৮৮ এর কিছু পরিবর্তন করা হয়। যার ফলে অভিবাসন প্রত্যাশিত দের স্বর্গরাজ্য বলে ক্ষেত পর্তুগালের দুয়ার ও প্রায় অনেকটা সংকোছিতো হয়ে পড়ে। অবিভাসন আইন সহজি করন, কান্ট্রি আউট নামক বহিস্কার করন আইন শীতলের দাবী, পর্তুগাল বাম ব্লক ডেপুটি সান্দ্রা কুনহা "নীতি ও বৈধকরণ প্রক্রিয়া শক্ত" প্রতিবাদে সলিডারিটি ফর ইমিগ্রান্টের উদ্দেগ্যে প্রবাসীদের এ প্রতিবাদ র‍্যালি ও দাবীর প্রতি সমর্থন জানিয়ে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পর্তুগীজ নাগরিকদের অংশ গ্রহণ ও সহমর্মিতা প্রকাশ করতে দেখা যায়। 

র‍্যালিতে অংশ নেয়া বাংলাদেশী নাগরিক এনামুল হক জানান, হঠাৎ করে পর্তুগীজ লিগ্যালাইজেশান অফিস রেসিডেন্ট কার্ড প্রদান ও টেক্স পেয়ার নাম্বার বন্ধ করে দেয়াতে অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশীদের ও নানা হয়রানীর স্বীকার হতে হচ্ছে। চীনা নাগরিক ইয়াংজু আক্ষেপ করে বলেন ছয় বছর ধরে তিনি এখানে বসবাস করে আসছেন কিন্তু তাকে এখন ও অবৈধের তকমা নিয়ে থাকতে হচ্ছে। লুক্সেমবার্গের জেসিকা লোপেজে সলিডারিটি ফর ইমিগ্রান্ট লিসেবনে দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করছেন অভিবাসন নিয়ে, তিনি বলেন মার্চ'১৬ থেকে ইমিগ্রান্ট দের সাথে যে সেফের যে আচরণ করা হচ্ছে তার প্রতিবাদে একত্ততা ঘোষণা করেন এবং পর্তুগীজ নাগরিকদের মাঝে ইমিগ্রান্টদের সম অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে অধিকার আদায়ের তাঁরা কাজ করে যাবে।


এই সময় প্রবাসীরা পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের মাতৃমনিজ পার্ক থেকে বিভিন্নো  স্লোগান এবং ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড লিখিত "পর্তুগালে সমান নাগরিক অভিবাসী"  "দাসত্বের বিরুদ্ধে ইমিগ্রান্টস", "কোন এক অবৈধ, বাসভবন এবং জাতীয়তা হয়" ''বিতাড়ন সমাধান নয়'' "একটি ভিসা''সমান কাজ,সমান বেতন''প্রদর্শন করে,প্রতিবাদ র‍্যালি শুরু করে প্রাসাদা কমার্চিয়াতে স্কয়ার গিয়ে শেষ হয়।

সুফিয়ান আহমদ,বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ ঐতিহ্যবাহী জনপদ বিয়ানীবাজারের কৃতিসন্তান মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান (নাসির) দেশের অন্যতম শীর্ষ ব্যাংক এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ৩৯ তম সভায়  সর্বসম্মতিক্রমে ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন। এর আগপর্যন্ত তিনি একই ব্যাংকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। বিয়ানীবাজারের চারখাই ইউনিয়নের নাটেশ্বর গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের জন্মগ্রণকারী মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান নাসির বিশ্বময় খ্যাতনামা ও সফল ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপতি মাহতাবুর রহমান নাসির মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের মক্কায় তাঁর পারিবারিক ব্যবসা আল হারমাইন পারফিউমস-এর মাধ্যমে ব্যবসায়িক ক্যারিয়ার শুরু করেন। তিনি বিশ্ববিখ্যাত আল-হারমাইন পারফিউমস এবং আল-হারামাইন গ্রুপ অব কম্পানিজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক। মৌলভীবাজারের রাজনগরে অবস্থিত হামিদিয়া টি কোম্পানি লিমিটেড ও আল হারামাইন (প্রা.) হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান। একই সাথে জনাব নাসির আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের একজন স্পন্সর এবং এআইবিএল ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিস্সে লিমিটেডের পরিচালক। এছাড়াও  তিনি ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক ও বিয়ানীবাজার ক্যান্সার হাসপাতালের অন্যতম ট্রাষ্টি এবং আবুধাবির শেখ খলিফা বিন জায়িদ বাংলাদেশ ইসলামিয়া (প্রাইভেট) স্কুলের অন্যতম স্পন্সর।
সংযুক্ত আরব-আমিরাতে প্রতিষ্টিত বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের প্রতিষ্টাতা সভাপতি জনাব মাহতাবুর রহমান নাসির বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক টানা তিনবারের সি.আই.পি ও বাংলাদেশে সর্বোচ্চ বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণকারী। তিনি ২০১৩ ও ২০১৪ সালে সর্বাধিক রেমিটেন্স প্রেরণের স্বীকৃতিস্বরুপ বাংলাদেশ ব্যাংক রেমিটেন্স অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন। জনাব মাহতাবুর রহমান নাসির নিজের ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধির মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপশি জনকল্যাণে নিরবে নির্ভৃতে কাজ করে যাচ্ছেন।

বিশিষ্ট এ শিল্পপতির অপর ভাই মোহাম্মদ অলিউর রহমানও দেশের একজন শীর্ষ ব্যবসায়ী ও সরকার কর্তৃক সি.আই.পি হিসেবে নির্বাচিত। তিনিও ব্যবসার পাশাপাশি জনক্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।

রনি মোহাম্মদ,(লিসবন,পর্তুগাল): পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে বৃহত্তর নোয়াখালী এসোসিয়েশন ইন পর্তুগালের কার্যনির্বাহী পরিষদ এবং পর্তুগাল প্রবাসী নোয়াখালীর শুভাকান্খীদের সম্মার্থে এক ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ২রা জুলাই  লিসবনের রাধুনী রেস্টুরেন্টে এই ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি হুমায়ন কবির জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক মহিন উদ্দিনের পরিচালনায় ইফতারের আগে সংগঠনের কার্যবিবরনী নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশনেন সংগঠনের সিনিয়ার সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সহসভাপতি মোঃ শহীদ উল্ল্যা, মোঃ আজিজ, মিজানুর রহমান মাসুদ, সহ সাধারণ সম্পাদক মাহদী হাসান সাকের, শরীফুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল করিম মানিক সংগঠনের ইমরান হোসেন, আমিনুর রহমান ভুঞা, রনী মোহাম্মদ, তোবারক হোসেন তপু, মোহাম্মদ জিন্না, আইয়ুব আলী খাঁন, জহুরুল হক, হায়দার হোসেন, মহিন উদ্দিন, নিজাম উদ্দিন সহ প্রমুখ নেত্রীবৃন্দ।

সভাপতি হুমায়ন কবির জাহাঙ্গীর তার বক্তব্যে ইফতার ও দোয়া মাহফিলে আসা সকল প্রবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে অতীতের নেয়ে বিপদাপন্ন প্রবাসীদের সহায়তার সেবা কার্যক্রম, আইনি সয়াহতা অভ্যাহত থাকবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সর্বশেষ রোজার গুরুত্ব, ফজিলত সহ ইফতারের আগ মুহুর্তে ঢাকার স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত দেশ জাতীর মোঙ্গল কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন সাংগঠনের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ বুলবুল।

অনলাইন ডেস্ক : ইউরোকাপের সেমিফাইনাল শুরুর আগ মুহূর্তে প্যারিসের স্টেডে ডি স্টেডিয়ামে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। রোববার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে ফ্রান্সের ওই স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় এখনো হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।


আজ ফ্রান্স ও আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার সেমি-ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলে এ ঘটনার পর খেলাটি অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। দেশটির পুলিশ বলছে, এটি পরিকল্পিত একটি হামলা এবং হামলাকারীরা গাড়িতে করে এসে স্টেডিয়ামের বাইরে এ বিস্ফোরণ ঘটায়। এদিকে এ ঘটনার পর স্ট্যাডিয়ামের ভেতরে দর্শনার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির পুলিশ।

ফ্রান্সের প্যারিসে ক্যান্সার আক্রান্ত মিজানুর রহমান (সুমন) ইন্তেকাল করেছেন( ইন্নালিল্লাহি....রাজেউন)। 

আজ (৩ জুলাই) সকালে প্যারিসের জন জুরিস হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। সুমন দুরারোগ্যব্যাধি ক্যান্সারে(ফুসফুসে) আক্রান্ত হয়ে বেশকিছুদিন থেকে ভুগছিলেন। সর্বশেষ তাকে নান তিয়ারের একটি হাসপাতাল থেকে বর্তমান হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।এখানে আসার পর থেকেই তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। সুমনের আরও দুই ভাই ফ্রান্সে বসবাস করেন।তার আরেক ভাই পোল্যান্ড থেকে দুইদিন আগে ফ্রান্সে তার সাথে হাসপাতালে দেখা করতে আসেন। মারা যাবার সময় তিনি হাসপাতালেই ছিলেন। সুমনের বাড়ি বাংলাদেশের নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ। তার লাশ দেশে পাঠানো হবে বলে তার ঘনিষ্ঠজনরা জানিয়েছেন। তবে কবে জানাজা এবং কোথায় হবে তা এখনো জানা যায়নি। এদিকে সুমনের জন্য ফ্রান্সের ইয়ং বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ও প্যারিসের কোম্পানিগঞ্জবাসী আজ (৩ জুলাই ) বিকেলে লা শাপেলে অসুস্থ সুমনের জন্য যে দোয়া মাহফিলের ঘোষণা দিয়েছিল তা নির্ধারিত সময়েই হবে এবং সেখানে তার লাশ প্রেরণের বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানাগেছে। সুমনের লাশ এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত প্যারিসের জন জুরিস হাসপাতালের ৪তলার ১১০ নম্বর রুমে রাখা আছে। তার লাশ দেখতে কোম্পানিগঞ্জবাসী এবং অন্যান্য এলাকার লোকজনও হাসপাতালে ভীড় করছেন। সুমনের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন কমিউনিটি নেতৃবৃন্দরা।

সুফিয়ান আহমদ,বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ ঈদ মানেই খুশি,ঈদ মানে আনন্দ। মুসলমানদের প্রধান এ ধর্মীয় উৎসব ঘিরে সবার মধ্যে থাকে নানা আয়োজনের পরিকল্পনা। বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে ঘোরা থেকে শুরু করে সুস্বাদু সব খাবারের আয়োজন।

তবে এসব কিছুকে ছাপিয়ে প্রথমে সবার কাছে যেটা প্রথম চাওয়া তাঁ হচ্ছে মনের মত পোশাক। ঈদ বলে কথা, মনের মত পোশাক না হলে তো বলতে গেলে ঈদ আনন্দের পূর্ণতাই পায় না। নতুন পোশাকই যেন ঈদের পূর্ণতা। তাই রোজার মাঝামাঝি থেকেই শুরু হয়ে যায় ঈদের কেনাকাটা। সারা দেশের মত প্রবাসী অধ্যুষিত বিয়ানীবাজারের অবস্থাও অনেকটা এরকম। ঈদকে সামনে রেখে কেনাকাটায় ব্যস্ত সবাই। কাপড় ব্যবসায়ীরাও লক্ষ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে ঈদের পোষাক সামগ্রী এনেছেন ভারত ও রাজধানী ঢাকা থেকে। বাহারী ডিজাইনের এসব পোশাকের মধ্যে বাজার ছেয়ে গেছে ভারতীয় পোশাকে। ক্রেতারাও কিনছেন তাদের পছন্দসই পোশাক।
বিয়ানীবাজার পৌরশহরের বিভিন্ন শপিংমল ও বিপনী বিতান ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতাদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে ফুটপাত থেকে শুরু করে বড় বড় শপিংমলগুলো। বিশেষ করে ২০ রমজানের পর থেকে প্রতিটি দোকানে বিক্রি হচ্ছে অর্ধলক্ষ টাকা থেকে শুরু করে কয়েকলক্ষ টাকা। তাই অনেক খুশি বিক্রেতারাও।
বিক্রেতারা জানান, ঈদ যত এগিয়ে আসছে, ততোই জমে উঠছে ঈদের বাজার। বিশেষ করে ২০ রমজানের পর থেকে তাদের বিক্রির মাত্রাটা অনেকগুণ বেড়েছে। গতবছরের মত এবারও ঈদে দেশি পোশাকের চেয়ে বিদেশি পোশাকের প্রতি ক্রেতাদের ঝোঁক বেশি বলে তাঁরা জানান।
এবারের ঈদের বাজারে তরুণীদের জন্য রয়েছে- ফ্রক, জিপসি, লেহেঙ্গা, থ্রিপিস, সিনথেটিক ফ্রক।
পাশাপাশি বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে, বজরঙ্গি ভাইজান, বাজিরাও মাস্তানি, সারারা প্রভৃতি ভারতীয় পোশাক।
পৌরশহরের সাত্তার সুপার মার্কেট, জামান প্লাজা, আল আমীন সুপার মার্কেট, আজির শপিং কমপ্লেক্সে এসব পোশাক বিক্রি হচ্ছে ৭ হাজার টাকা থেকে ৩৫/৫০ হাজার টাকায়।
ক্রেতাদের কয়েকজন জানান, মার্কেটজুড়ে দেশি-বিদেশি নানান ডিজাইনের পোশাক থাকায় পছন্দ করে কেনা যাচ্ছে। এরমধ্যে বিদেশি পোশাকের প্রাধান্য বেশি। তবে অনেকে আছেন যারা, ঈদের জন্য দেশি বুটিকস, সুতি কাপড়কে বেছে নিচ্ছেন।

জামান প্লাজার ব্যবসায়ী হাফিজ উদ্দিন ও জুবের আহমদ জানান, এবারের ঈদ বাজারে দেশি কাপড়ের তুলনায় বিদেশি কাপড় বেশি বিক্রি হচ্ছে। তবে দেশি বুটিকসের কাপড়ও কিনছেন অনেকে। রোজার শেষপর্যায়ে এসে বিক্রির মাত্রাও বেড়েছে জানিয়ে তারা বলেন, আশা করছি আমাদের টার্গেট ফিলাপ হবে।


সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ব্যাবসায়ী ও ক্রীড়ানুরাগী হারুন মিয়া এক সংক্ষিপ্ত সফরে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে এসেছেন। 
তিনি প্যারিসে অবস্থানকালে U E F A euro 2016 France এর খেলা সরাসরি স্টেডিয়ামে বসে দেখবেন। এছাড়া বিভিন্ন ব্যাবসায়ী, সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় ও সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হবেন।তিনি প্যারিসে অবস্হিত বিশ্ব বিখ্যাত দর্শনীয় স্হাপনা ও স্হান সমুহ পরিদর্শন করবেন। হারুন মিয়া কানাইঘাটের গাছবাড়ী এলাকার গোয়ালজুর গ্রামের অধিবাসী, বিশিষ্ট মুরব্বী মরহুম হাজী আবরু মিয়া (আবু হাজী) - এর নাতি এবং ঝিংগাবাড়ী ইউনিয়নের মেম্বার মামুন রশীদ বাবুল মিয়ার বড় ভাই। তিনি মানবাধিকার ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও সম্পৃক্ত রয়েছেন।
ইতিমধ্যে তিনি ভারত, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সাউথ আফ্রিকা সহ অনেক দেশ ভ্রমন করেছেন। প্যারিসে তার সাথে 0033753942180 এই নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।

সুফিয়ান আহমদ,বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ বিশ্ববরেণ্য আলেম, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা মুহিউদ্দিন খাঁনের স্মরণে এক আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিল বৃহস্পতিবার ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার উপজেলা ও পৌর শাখার যৌথ উদ্যোগে দক্ষিণ বিয়ানীবাজারস্থ সিটি গেইট চাইনিজ রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা ছাত্র জমিয়তের সভাপতি মাওলানা তোফায়েল আহমদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দিন।

হাবিবুর রাহমান ও হাফিয আব্দুল্লাহর যৌথ পরিচালনায় আয়োজিত সভায় বক্তারা আল্লামা খানের জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। নেতৃবৃন্দ আল্লামা খানকে জমিয়তের প্রাণপুরুষ উল্লেখ করে বলেন -তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে জমিয়ত একটি সংগঠিত দলে রূপ নেয়। তিনি ছিলেন সীরাত সাহিত্যের জনক। ইসলামী সাহিত্যে তাঁর অবদান চিরদিন অম্লান হয়ে থাকবে। নেতৃবৃন্দ বলেন আল্লামা খানের মৃত্যুতে বিশ্বের ইসলামী নেতৃত্বে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে, তা পুরণ হবার নয়। তিনি বিশ্ব ইসলামী আন্দোলনের প্রতিকৃত ছিলেন বলেও তাঁরা উল্লেখ করেন।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা জমিয়তের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব শামসুদ্দিন, উপজেলা জমিয়তের সহ-সভাপতি মাওলানা আসআদুদ্দিন আল মাহমুদ. সিলেট জেলা জমিয়তের সহ- সেক্রেটারি মাওলানা আব্দুল মালিক কাসেমি,বড়লেখা উপজেলা জমিয়তের নির্বাহী সভাপতি মাওলানা রমিজুদ্দীন, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুফতি শিব্বির আহমদ, উপজেলা জমিয়তের প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাও.ফখরুদ্দিন সাদিক, যুবনেতা এমাদ উদ্দীন,মাওলানা রায়হান আহমদ, দৈনিক সিলেটের ডাক বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি সাদেক আজাদ, শ্যামল সিলেট ও এশিয়ান টিভির বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি সুফিয়ান আহমদ, সাপ্তাহিক আগামি প্রজন্ম পত্রিকা বিঞ্জাপন ম্যানেজার আবুল হাসান, মাওলানা আব্দুল করিম,হাফিজ মাওলানা ফখরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্র জমিয়তের সেক্রেটারি হাফিয মারুফুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক সাহেদ আহমদ, অর্থ সম্পাদক  সুহেল আহমদ,অফিস সম্পাদক আবু বকর, পৌর সহ-সেক্রেটারি শরিফুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মন্জুর আহমদ,সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম,মাদরাসা বিষয়ক সম্পাদক ফারুক আহমদ, প্রচার সম্পাদক সুলতান হোসাইন,এম এ হাসান,হা.শাহিদ আহমদ.মাও জিয়া. কিবরিয়া,তারেক জুবের,কামরুল,তোফায়েল. গালমান,শিপনসহ বিভিন্ন পেশাজীবি নেতৃবৃন্দ। ইফতার পূর্ব বিশেষ মুনাজাত করেন আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দীন।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget