জেদ্দা কনস্যুলেটে আন্তৰ্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০১৬ পালন

বাহার উদ্দিন বকুলঃ জেদ্দা সৌদি আরব : ১৮ ডিসেম্বর রবিবার সকালে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দায় যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে আন্তৰ্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০১৬। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেদ্দা কনস্যুলেটের  কনসাল জেনারেল এ কে এম শহিদুল করিম । কনস্যুলেট কর্মকর্তাবৃন্দসহ বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন কনসাল রেজায়ে রাব্বীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত এর মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করে ।
দিবস টি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি , প্রধানমন্ত্রীঅর্থমন্ত্রী,পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও  বৈদেশিক ও কর্মসংস্থান মন্ত্রীর বানী হুবহু পাঠ করে শুনান যথাক্রমে কাউন্সিলর হজ্জ মাকছুদুর রহমান,কাউন্সিলর শ্রম আমিনুল ইসলাম, সোনালি ব্যাংক প্রতিনিধি সৈয়দ মঞ্জুরুল ইস্লাম,কনসাল হজ্জ জহিরুল ইসলাম, কনসাল পাসপোর্ট এন্ড ভিসা কামরুজ্জামান প্রধান অতিথি  কনসাল জেনারেল এ কে এম শহিদুল করিম বলেন,প্রধান অতিথি কনসাল জেনারেল এ কে এম শহিদুল করিম বলেন,অভিবাসীদের মর্যাদা ও অধিকার সমুন্নত রাখার প্রয়াসে ২০০০ সাল থেকে জাতিসংঘ দিবসটি পালনের ঘোষণা দেয়। মূলতঃক) বিশ্ব উন্নয়নে অভিবাসীদের অবদানের স্বীকৃতি ও মর্যাদা দান; খ) পরিবার পরিজন সহ অভিবাসীদের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণ; গ) অভিবাসীদের নিবিঘ্নে চলাচলের নিশ্চয়তা এবং ঘ) অভিবাসীদের আবাসন ও কর্মসংস্থান নিশ্চিত করাই দিবসটি মূললক্ষ্য।

২০১৬ সালে ১০৫৫৬জন বাংলাদেশী কর্মীকে আইনি সেবা প্রধান করা হয়েছে এবং শ্রম আদালতে মামলা দায়েরর মাধ্যমে ৩৫৪৭ জন বাংলাদেশী কর্মীর ৪৫ লক্ষ সৌদি রিয়াল যার সমপরিমাণ বাংলাদেশী টাকায় ৯.৫ কোটি যা বেতন পাওনা টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। ২২২ জন অসুস্থ ও বিপদ্গ্রস্থ কর্মীকে ২,৩৮,২৭৫.৫৭ টাকা অর্থ সাহায্য প্রদান করা হয়েছে। 
স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কর্তৃক গ্রেফারকৃত ১৩,৫৮৯ জন ডিপোর্টেশন ক্যাম্প/ জেলখানা হতে মুক্ত করে দেশে প্রেরণ করা হয়েছে। ৭০৮ জন মৃত বাংলাদেশের লাশ (পরিবারের সম্মতির ভিত্তিতে) স্থানীয় ভাবে দাফন/বাংলাদেশে প্রেরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মৃত ও দেশে প্রত্যাবর্তিত মোট ৩৮জন কর্মীর নিয়োগকর্তার নিকট থেকে তাদের বকেয়া বেতন-ভাতা বাবদ ৫,৯৩,৫৫৮.০০ সৌদি রিয়াল যার সমপরিমাণ বাংলাদেশী টাকায় ১,২৩,৯৩,৯০৬.৫৩ টাকা এবং চূড়ান্ত ভাবে নিষ্পত্তিকৃত। ৯টি মৃত্যু জণিত ক্ষতিপূরণ মামলায় মোট ১৮,২৫,০০০.০০ সৌদি রিয়াল যার সমপরিমাণ বাংলাদেশী টাকায় ৩,৮১,০৭,২৭৭.৫০ টাকা আদায় করে তাদের ওয়ারিশদের নিকট পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।


সৌদি সরকার বাংলাদেশ হতে বিভিন্ন পেশার লোক নিয়োগ শুরু করেছেন। প্রবাসীদের কাছে অনুরোধ করে শহিদুল করিম বলেন, সৌদি আরবের আইন-কানুন,সামাজিক ও ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে চলুন, সবসময় সুন্দর আচরন,সততা,আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।
জেদ্দা প্রবাসী বাংলাদেশী কর্মীগন যে কোন সমস্যায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের সহযোগিতা গ্রহন করুন। নিয়োগকর্তা তার কোম্পানির বা কফিলের সাথে ইকামা,বেতন,ছুটি,কাজ সক্রান্ত সমস্যা হলে কাজ বন্ধ করা বা ধর্মঘট করা যাবেনা।কারন সৌদি আরবে ধর্মঘট করা নিষিদ্ধ।আপনার নিয়োগ কর্তার সাথে যে কোন ধরনের সমস্যা হলে পুলিশ, আদালত বা কনস্যুলেটের মাধ্যমে আইনগতভাবে নিস্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।কোন সৌদি নাগরিকদের সাথে কোন ধরণের সমস্যায় জড়াবেননা।এরপর প্রবাসীদের শান্তি কামনাসহ দেশের উন্নতি-অগ্রগাতি কামনায় মোনাজাত করা হয়।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget