রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আমাদের দেশে পাঠিয়ে দাও আমরা তাদের গ্রহণ করব

জনপ্রিয় অনলাইন : ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে বলেছেন, রহিঙ্গা শরণার্থীদের আমাদের দেশে পাঠিয়ে দাও আমরা তাদের গ্রহণ করব। দেশ কানায় কানায় পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত শরণার্থীদের স্বাগত জানাবো।

বৃহস্পতিবার কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন দুতার্তে। যখন পশ্চিমা দেশগুলো তাদের সীমান্ত শরণার্থীদের জন্য বন্ধ করে দিচ্ছে সেসময় রদ্রিগো দুতার্তে বলেন, তাদের আমাদের কাছে পাঠিয়ে দাও। আমরা তাদের গ্রহণ করব।
২০১৫ সালে সারা বিশ্বে আনুমানিক ১৮ লাখ মানুষ শরণার্থী হয়েছে। প্রতিদিনের ভিত্তিতে ২০০৫ সাল থেকে গত বছর পর্যন্ত জোর করে লোকজনের বাস্তুচ্যুত হওয়ার পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ৩০০ শতাংশ।
১০০ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশ এবং দ্রুতই দরিদ্র লোকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়া ফিলিপাইনে শরণার্থীদের স্বাগত জানিয়ে রদ্রিগো দুতার্তে বলেন, পশ্চিমা দেশগুলো সাহায্য করতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের (শরণার্থীদের) ফিলিপাইনে প্রবেশে স্বাগত জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি
তিনি বলেন, আমি বলছি, তাদের আমাদের দেশে পাঠান। আমরা তাদের গ্রহণ করব। আমরা সব শরণার্থীকে গ্রহণ করব। তারা মানুষ, তারা (শরণার্থীরা) সব সময় এখানে আসতে পারে। যতক্ষণ না আমার দেশ কানায় কানায় পূর্ণ হবে, ততক্ষণ আমি তাদের স্বাগত জানাব।
পশ্চিমা দেশগুলোর উদ্দেশে রদ্রিগো দুতার্তে বলেন, আপনারা মানবাধিকারের ব্যাপারে খুব অমায়িক হতে পারেন। কিন্তু হঠাৎ করেই কোনো কারণ ছাড়াই আবার আপনারা এ অবস্থান পরিবর্তন করেন। আপনা সেখানেই থাকেন। শরণার্থীরা যেন আসতে না পারে এ জন্য আপনারা কাঁটাতারের প্রাচীর বা বেড়া নির্মাণ করেন। আমরা তাদের মতো ভণ্ড নই, আমরা যা করি সবার সামনেই করি।
সন্দেহভাজন মাদক বিক্রেতা ও ব্যবহারকারীদের হত্যার কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রদ্রিগো দুতার্তের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ করে আসছেন বারবার। 
অভিযোগ আছে, দুতার্তে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে এ বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত তিন হাজার ছয় শ ৮০ জন মানুষ নিহত হয়েছেন। এরা পুলিশ ও অজ্ঞাত পরিচয়ের হামলাকারীদের হাতে নিহত হয়েছেন। কিন্তু দুতার্তে তার এই শক্ত অবস্থানের জন্য অনুতপ্ত নন।
প্রায়ই পশ্চিমা বিশ্বের উদ্দেশে কথা বলার সময় দুতার্তের অশ্লীল ভাষা ব্যবহার নিজ দেশে তার জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে দিয়েছে। দুতার্তে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে অশ্লীল ভাষায় গালি দিয়েছেন। তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নকে ভণ্ড বলে উল্লেখ করেছেন। 
এ ছাড়া তিনি জাতিসংঘ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন। হিটলারের সঙ্গে তার তুলনা সমর্থন করে বলেছেন, তিনি সানন্দে ৩০ লাখ মাদকাসক্তকে মেরে ফেলতে পারবেন। তবে এসব কথাই দুতার্তে বলেন মাদকের বিরুদ্ধে তার রক্তাক্ত লড়াইয়ের সমালোচনার জবাবে।
সদ্য নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বেফাঁস কথাবার্তার জন্য তারই মতো সুপরিচিত রদ্রিগো দুতার্তে। 

তিনি বলেন, এখন আর আমি লড়াই করতে চাই না। কেননা, ইতোমধ্যে ট্রাম্প ক্ষমতায় চলে এসেছেন।আমরা দুজনই গালমন্দ করতে পছন্দ করি। আমরা দুজন একই রকম।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget