যেকোনো হামলার জন্য পশ্চিমবঙ্গের বিমান ঘাঁটি প্রস্তুত রেখেছে ভারত!

জনপ্রিয় অনলাইন : যেকোনো সময় প্রতিপক্ষের ওপর হামলা চালানোর জন্য পশ্চিমবঙ্গের একটি বিমান ঘাঁটি প্রস্তুত রেখেছে ভারতীয় বিমান বাহিনী। কলকাতাভিত্তিক একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এ খবর জানিয়েছে।


খবরে বলা হয়, স্থলে এবং আকাশপথে যাতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আক্রমণ করা যায় সে কারণে সব বিমানঘাঁটিকে যেকোনো পরিস্থিতির জন্য তৈরি রাখা হচ্ছে। প্রস্তুত রাখা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম প্রধান বিমানবাহিনীর ঘাঁটি পশ্চিম মেদিনীপুরের কলাইকুণ্ডা এয়ারফোর্সকে।গোটা ভারতের কাছে ফাইটার পাইলট তৈরির আঁতুড়ঘর হিসাবে পরিচিত এই ঘাঁটি। কলাইকুণ্ডা এওসি রাজেশ পুরোহিত সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন। অন্যদিকে, সোমবার সেই প্রস্তুতিই প্রাথমিকভাবে সেরে ফেলে এই ঘাঁটির দায়িত্বে থাকা বিমান বাহিনীর কর্মকর্তারা। গতকাল দুপুরে বেশ কয়েকটি হক ফাইটার জেট একসঙ্গে যুদ্ধের মহড়া চালায়। রাজেশ পুরোহিত আরো জানিয়েছেন, বিমানবাহিনীর অন্যতম শক্তি এই ফাইটার জেট হক। এই বোমারু বিমানের মধ্যে উন্নত মিসাইল মোতায়েন রাখা হয়েছে। যে কোনও পরিস্থিতিতে এবং অবস্থায় এই বোমারু বিমান দিয়ে শত্রুপক্ষের উপর হামলা চালাতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
যেকোনো যুদ্ধের ক্ষেত্রে রাজ্যের এই ঘাঁটি প্রচণ্ড গুরুত্বপূর্ণ। ১৯৬৫ সালে এই ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছিল পাকিস্তান। ৭১-র যুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিল কলাইকুণ্ডা বিমান ঘাঁটি। কার্গিল যুদ্ধেও গুজরাত উপকূলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল এই বায়ুসেনা ঘাঁটিকেই। একদিকে যুদ্ধে অংশগ্রহণ, আরেকদিক প্রশিক্ষণ। দুই দিক থেকে সমান পারদর্শী কলাইকুণ্ডা। এখানে তিন ধাপে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় ফাইটার পাইলটদের। ১৯৪৩ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কলাইকুণ্ডা বিমান ঘাঁটি তৈরি করেছিল ব্রিটিশরা।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget