কেন ইউরোপ দখল করতে পারলেন না চেঙ্গিস খান?

অনলাইন ডেস্ক: ১২০৬ সালে মঙ্গোলিয়ার বিভিন্ন আদিবাসী গোষ্ঠিকে একত্রিত করে শক্তিশালী এক সেনাবাহিনী গঠন করে সারা বিশ্ব দখল করতে তার অভিযান শুরু করেন। এরপর তিনি একের পর এক কোরিয়া, চীন, রাশিয়া, ইউরোপের পূর্বাঞ্চল, ভারত ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া জয় করেন। কিন্তু কিভাবে তার পক্ষে সম্ভব হলো এতগুলো বিশাল যুদ্ধ জয় করা? আর ঠিক কী কারণে তিনি সম্পূর্ণ ইউরোপে জয় না করেই এশিয়ায় ফেরত গেলেন? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে বেশ কিছু তথ্য পেয়েছেন গবেষকরা। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার।

চেঙ্গিস খানের বিশ্বজয়ে বাধা হওয়ার পেছনে আবহাওয়ারও একটা বড় প্রভাব ছিল বলে মনে করেন আধুনিক গবেষকরা। সম্প্রতি গবেষকরা জানান, চেঙ্গিস খান যে হারে একের পর এক নগর, বন্দর ও দেশ দখল করছিলেন, তাতে তাকে থামানো একপ্রকার অসম্ভবই ছিল। কিন্তু হঠাৎ করে কী কারণে তিনি থেমে গেলেন তা বহুদিন স্পষ্ট ছিল না।
সম্প্রতি সায়েন্টিফিক রিপোর্টস জার্নালে একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এতে গবেষকরা মধ্য ইউরোপের প্রাচীন গাছের নমুনা পর্যবেক্ষণ করে জানিয়েছেন, চেঙ্গিস খান যে সময় ইউরোপে অভিযান পরিচালনা করেন সে সময় ইউরোপের আবহাওয়া ঠাণ্ডা এবং আর্দ্র হয়ে উঠেছিল। আর এ কারণে তার সেনাবাহিনীর বেশ অসুবিধা হয় এবং ইউরোপে অভিযান চালাতে তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলে।
এ বিষয়ে গবেষকরা জানিয়েছেন ইউরোপের বাড়তি ঠাণ্ডা ও আর্দ্র আবহাওয়া চেঙ্গিস খান বাহিনীর গতিশীলতা কমিয়ে দেয়। এ ছাড়া এটি তাদের সামারিক ক্ষমতা ও অশ্বারোহী বাহিনীর কার্যক্ষমতা কমিয়ে দেয়।
১২২৭ সালে চেঙ্গিস খান মৃত্যুবরণ করেন। এ সময় তার হাতে ছিল ১১ মিলিয়ন বর্গমাইলের বিশাল সাম্রাজ্য। তার মৃত্যুর পর কিছুদিন রাজ্য বিস্তার করতে পারলেও পরবর্তীতে আর এ বিশাল সাম্রাজ্য ধরে রাখতে সক্ষম হননি তার ছেলে।
কি কারণে ইউরোপ দখল করতে পারেনি মঙ্গোলরা এ প্রসঙ্গে এর আগে বেশ কয়েকটি তত্ত্বের উদ্ভব ঘটেছে। তবে সাম্প্রতিক তত্ত্বটি এ ক্ষেত্রে যথেষ্ট জোরালো। গবেষকরা চেঙ্গিস খানের ইউরোপ আক্রমণের সময়কালের গাছের নমুনা বিশ্লেষণ করে সে সময়ের তাপমাত্রা যে কম ছিল তা প্রমাণ করেছেন। এ ক্ষেত্রে তারা ইউরেশিয়ার পাঁচটি অঞ্চলের গাছের স্যাম্পলও সংগ্রহ করেছেন।

দেখা গেছে, সে সময় হাঙ্গেরি ও এর আশপাশের অঞ্চলে অস্বাভাবিক ঠাণ্ডা ও আর্দ্র ছিল। আর এ কারণে ১২৩৮ থেকে ১২৪১ সাল পর্যন্ত আবহাওয়ার কারণে মঙ্গোলিয়ান বাহিনীর ঘোড়াগুলো কাবু হয়ে পড়েছিল বলে অনুমান গবেষকদের। শুধু তাই নয়, এ সময় ঘোড়াদের খাবারেরও ঘাটতি পড়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসব প্রতিকূলতার কারণে মঙ্গোলিয়ানরা ইউরোপের দেশগুলোকে আক্রমণের পরিকল্পনা বদলে এশিয়ার দিকে ফিরে যায়।
Labels:

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget