‘হাসিনাকে ফাঁসি দাও’ মিছিলকারীও মমতার মন্ত্রী

জনপ্রিয় অনলাইন : বিপুল ভোটে জয়লাভের পর ভারতের পশ্চিমবঙ্গে দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ গ্রহণ করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস। মন্ত্রীসভায় স্থান পেয়েছেন ৪২ জন, এবং এদের মধ্যে আছেন জামাত-ই-উলেমা হিন্দের নেতা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী।

সিদ্দিকুল্লাহর মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কলকাতার প্রগতিশীল আন্দোলনের কর্মী অরিন্দম মুন্সীর তার অতীত কার্যকলাপের উদাহরণ টেনে তার বাংলাদেশের যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়ে আন্দোলন করার ইতিহাস তুলে ধরেন।কলকাতা শহরকে স্তব্ধ করে দেওয়া সে মিছিল থেকে হাসিনাকে ফাঁসি দাও দাবিও জানানো হয়েছিল বলে লিখেন অরিন্দম।
অরিন্দম মুন্সী ফেসবুকে দেওয়া পোস্টে বাংলাদেশিদের উদ্দেশে লিখেন-
বাংলাদেশী ভাইলোগ,তোমাদের জন্য সুখবর : জামাতি ই উলেমা হিন্দের সর্বময় কর্তা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী, যিনি লক্ষাধিক মুমিনের মিছিল থেকে রাজাকারের মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতা এবং সাথে শাহবাগী নাস্তিকদের চরম শাস্তির দাবী তুলে কলকাতা শহরকে স্তব্ধ করে দিয়েছিলেন, তিনি আজ পশ্চিমবংগের মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন তৃণমূল সরকারে। সেই দিনের মিছিল থেকে স্লোগান উঠেছিল " নাস্তিকদের ফাঁসী দাও, হাসিনাকে ফাঁসী দাও। যে মিছিলকারী দের আক্রমণে ১৩ টি পুলিশের গাড়ী আক্রান্ত হয়েছিল।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (২৭ মে) স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ও তাঁর সরকারের ৪২ মন্ত্রীকে শপথবাক্য পাঠ করানো হয়। এ শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়।মমতা সরকারের শপথ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, এবং শেখ হাসিনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে ২০ কেজি ইলিশ পাঠিয়েছেন।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget