টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার হলেন খালেস উদ্দিন, ডেপুটি স্পিকার সাবিনা আক্তার

অনলাইন ডেস্ক : কাউন্সিলার খালেস উদ্দিন আহমদ টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নতুন স্পিকার নিযুক্ত হয়েছেন। একই সাথে নতুন ডেপুটি স্পিকার হয়েছেন কাউন্সিলার সাবিনা আক্তার। তারা দুজন ২০১৬/১৭ অর্থ বছরে এই দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে মেয়রের কেবিনেটে কোন পরিবর্তন আনা হয়নি। গত অর্থ বছরে নিযুক্ত কেবিনেট সদস্যরাই আগামী অর্থ বছরেও তাদের নিজ নিজ পদে বহাল থাকবেন। নতুন স্পিকার খালেস উদ্দিন আহমদ ব্রোমলী নর্থ এবং নতুন ডেপুটি স্পিকার সাবিনা আক্তার স্টেপনী গ্রীন ওয়ার্ডে লেবার পার্টির কাউন্সিলার। এই দুজন যথাক্রমে কাউন্সিলার আব্দুল মুকিত চুনু এমবিই এবং কাউন্সিলার রাজিব আহমদের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন।
১৮ মে বুধবার রাতে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের এজিমে তারা নির্বাচিত হন। এর আগে নির্বাহী মেয়র জন বিগস এই দুই পদে তাদের নাম প্রস্তাব করেন। মেয়রের প্রস্তাবটি সমর্থন করেন ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম। তাদের কোন প্রতিদ্বন্দ্বি না থাকায় তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।
কাউন্সিলের এই এজিএমে টাওয়ার হ্যামলেটসের দুই এমপি যথাক্রমে জিম ফিটজপ্যাট্রিক এবং রুশনারা আলী বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। মেয়রের কেবিনেটে কোন পরিবর্তন না হওয়ায় আগের কেবিনেট সদস্যরাই আগামী অর্থ বছরেও তাদের নিজ নিজ পদে বহাল থাকবেন।
এরা হলেন কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম - স্ট্যাটিটিউরি ডেপুটি মেয়র এবং কেবিনেট মেম্বার ফর হাউজিং ম্যানেজমেন্ট এন্ড পারফরমেন্স, কাউন্সিলার শিরিয়া খাতুন - ডেপুটি মেয়র এবং কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর কমিউনিটি সেইফটি, কাউন্সিলার র‌্যাচেল সন্ডার্স - ডেপুটি মেয়র এবং কেবিনেট মেম্বার ফর এডুকেশন এন্ড চিলড্রেন সার্ভিস, কাউন্সিলার র‌্যাচেল ব্ল্যাইক - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর স্ট্র্যাটেজিক ডেভেলাপমেন্ট, কাউন্সিলার আসমা বেগম - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর কালচার, কাউন্সিলার ডেভিড এডগার - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর রিসোর্সেস, কাউন্সিলার আয়াস মিয়া - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর এনভায়রনমেন্ট, কাউন্সিলার যশোয়া প্যাক - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর ওয়ার্ক এন্ড পেনশন, কাউন্সিলার এ্যমি হোয়াইটলক গিবস - কেবিনেট মে¤ক্ষর ফর হেলথ এন্ড এডাব্ব সার্ভিস।
এছাড়া মেয়র জন বিগস কাউন্সিলারদের মধ্যে থেকে ৩ জনকে তার এডভাইজার পদে নিয়োগ দিয়েছেন। এরা হলেন কাউন্সিলার ডেনিস জোন্স, কাউন্সিলার হেলাল উদ্দিন এবং কাউন্সিলার ডেভ চ্যাসটারটন।

বিদায়ী স্পিকার কাউন্সিলার আব্দুল মুকিত চুনু এমবিই স্ক্রুটিনি লিড মে¤ক্ষর ফর রিসোর্সেস এবং বিদায়ী ডেপুটি স্পিকার কাউন্সিলার রাজীব আহমদ লাইসেন্সিং কমিটির চেয়ারের দায়িত্ব পালন করবেন। এজিএমে মেয়র তার ষ্ক্রস্টেইট অব দ্যা বারা স্পীচে বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটসের সুনাম পুনরুদ্ধারে আমি আমার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্চিছ। একটি এলোমেলো অবস্থান থেকে একে বের করে আনার এই কাজটি মোটেই সহজ নয়। তিনি বলেন টাওয়ার হ্যামলেটস এখন আর আগের মতো কোন গোপন সিদ্ধান্তের জায়গা নয়। এখন এখানে সব সিদ্ধান্তেরই জবাবদিহিতা এবং স্বচ্চছতা আছে। আগের মেয়রের বিলাস বহুল কার, ড্রাইভার এবং ব্যয় বহুল এডভাইজারের পদ বিলুপ্ত করে কাউন্সিলের বার্ষিক ৩শ ৩০ হাজার পাউন্ড সাশ্রয়কে তিনি সাফল্য হিসাবে বর্ণনা করেন। এছাড়া স্ট্রিট ক্লিনিং, এন্টি সোশাল বিহেভিয়ার দমনে ব্যয় বরাদ্দ এবং এক হাজার নতুন কাউন্সিলের বাড়ী নির্মানের পরিকল্পনার কথাও তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। নবনিযুক্ত স্পিকার কাউন্সিলার খালেস উদ্দিন আহমদ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, স্পিকার তথা ফার্স্ট সিটিজেন অব দ্যা বারা হিসাবে দায়িত্ব পালন অবশ্যই সম্মান এবং গৌরবের। বসবাস এবং কাজের জন্য টাওয়ার হ্যামলেটস হচ্চেছ একটি চম্কার বারা এবং আমি এর অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে যেতে চাই।

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget