ঝিনাইদহে আ’লীগ প্রার্থীর বডিগার্ডের নাক কেটেছে মহিলারা

ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি ইউনিয়নের বাসুদেবপুর বাজারে শুক্রবার বিকালে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীর সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শহিদুল ইসলাম হিরণের বডিগার্ড ফিদু মন্ডলকে গণপিটুনি দিয়ে নাক কেটে নিয়েছে নারী ভোটাররা। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনায় আজাদ হোসেন,আব্দুল মান্নান ওরফে ভিম, ইকতিয়ার,আব্দুর রশিদ,ওয়াজেদ আলী ও জাহাঙ্গীর হোসেন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে পোড়াহাটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শহিদুল ইসলাম হিরোনের সমর্থক ফিদুর নেতৃত্বে ১৫টি মটরসাইকেলসহ রামদা নিয়ে মহড়া দিতে থাকে। এসময় তারা বিএনপির মনোনীত প্রার্থী রোকনুজ্জামান রোকনের সমর্থক ও থানা যুবদলের সদস্য আব্দুল মান্নান ওরফে ভিমের বাড়িতে প্রবেশ করে তাকেসহ তার ভাই আজাদকে পিটিয়ে আহত করে। বাড়ির মহিলারা বাধা দিতে আসলে তাদেরকেও মারপিট শুরু। এ সময় বাসুদেবপুর বাজারের লোকজন জোটবদ্ধ হয়ে হামলাকারীদের উপর চড়াও হয়ে গণপিটুনি দেয়। এতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিরোনের সমর্থক ফিদু,ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর ও শেরআলী মারাত্মক আহত হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে বাকিরা পালিয়ে যায়।এ ব্যাপারে সদর থানার এসআই হাসান হাফিজুর রহমান জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এখানে ইউপি নির্বাচন নিয়ে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। এলাকার পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত।ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান জানান,পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রথমে আব্দুল মান্নান ওরফে ভিমের উপর হামলা হয়। পরবর্তীতে মহিলারা জোটবদ্ধ হয়ে ফিদু মন্ডলকে বটি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। 

Post a Comment

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget