শিরোনাম :
স্পেনে নাগরিকের কণ্ঠরোধকারী আইনের বিরুদ্ধে হাজারও পুলিশের বিক্ষোভ বঙ্গবন্ধু ও ৪ নেতার খুনিকে রাষ্ট্রদূত বানান খালেদা জিয়া: জয় আফ্রিকার বাইরে ১০ দেশে ছড়িয়েছে করোনার নতুন ধরন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে ২,৬৮৪ জন চিকিৎসকের বিবৃতি রাষ্ট্রপতির কাছে খালেদা ক্ষমা চাইলে মানবিকভাবে দেখবেন প্রধানমন্ত্রী সকালে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ বিকেলে পদত্যাগ বিএনপি বিদেশি চিকিৎসক আনার পদক্ষেপ নিচ্ছে না: আইনমন্ত্রী স্পেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালকের সঙ্গে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের বৈঠক সুনামগঞ্জ জেলা এসোসিয়েশন ইন স্পেনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত বার্সেলোনায় আলাল উদ্দিন এর সমর্থনে নির্বাচনি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত




স্পেনে শেখ রাসেল দিবস পালন

জনপ্রিয় অনলাইন
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬০ বার পঠিত

মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ১৮ অক্টোবর ২০২১ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন ও “শেখ রাসেল দিবসˮ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করে। দিবসের কর্মসূচীর মধ্যে অন্যতম ছিল আলোচনা সভা ও শিশু-কিশোরদের বয়সভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। বিকাল ৫:৩০ ঘটিকায় পবিত্র কোরআন থেকে তিলওয়াতের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু হয়। আলোচনা সভায় শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ, শেখ রাসেলের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ ও মোনাজাত করা হয়।

আলোচনা সভায় মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ, এনডিসি বলেন যে, সরকার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের জীবন সম্পর্কে শিশু-কিশোরদের কাছে তুলে ধরতে প্রতিবছর তাঁর জন্মদিনকে “শেখ রাসেল দিবস” হিসেবে পালনের ঘোষণা দিয়েছে, যা অত্যন্ত প্রশংসনীয় একটি উদ্যোগ। তিনি তাঁর বক্তব্যে শেখ রাসেলের স্মুতির উদ্দেশ্যে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিশু-কিশোর ও তাদের অভিভাবকদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীসহ অংশগ্রহণকারী সকল শিশু-কিশোরকে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। তিনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদৎ বরনকারী সকল শহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি আরো উল্লেখ করেন যে, রাসেলের নামটি বঙ্গবন্ধু নিজেই রেখেছিলেন তাঁর প্রিয় ব্যক্তিত্ব বিখ্যাত দার্শনিক বার্ট্রান্ড রাসেলের নামে। তিনি আরো বলেন যে, ১০ বছর ১০ মাসের সংক্ষিপ্ত জীবনে শিশু রাসেল মানবিকতা ও সহপাঠিদের সাথে সহানুভুতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন। শৈশবকালে শিশু রাসেল স্কুলে চকলেট খাওয়ার সময় সকল শিশুকে চকলেট বিতরনের পর নিজে চকলেট খেতেন। বঙ্গবন্ধুকে রাজনৈতিক কারনে দীর্ঘ সময় কারাগারে থাকার জন্য শিশু রাসেল পিতার সান্নিধ্য ও আদর যতœ থেকে বঞ্চিত হয়েছেন।১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কাল রাতে শিশু রাসেল মুক্তি চেয়েছিলেন এবং জার্মানিতে তাঁর বড় বোন “হাসু আপুর” (বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) কাছে চলে যেতে ঘাতকদের কাছে অনুরোধ করেছিলেন, কিন্তু ঘাতকরা শিশু রাসেলের আবেদনে কর্ণপাত না করে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল। রাসেল আজ দেশের আনাচে-কানাচে এক মানবিক সত্তা হিসেবে বেঁচে আছে সবার মাঝে। দেশের তরুন প্রজন্মের কাছে রাসেল এক ভালবাসার নাম। তিনি আরো বলেন যে শিশুদেরকে শৈশব থেকেই শিক্ষা-দীক্ষা, সততা, দেশপ্রেম সৎ চারিত্রিক গুনাবলীর মাধ্যমে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। শিশুদের মাঝে স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে তুলে ধরতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানান।

এখানে উল্লেখ্য যে, শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে গত ১০ অক্টোবর ২০২১ দূতাবাসে স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশী শিশু-কিশোরদের জন্য বয়সভিত্তিক এক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। প্রায় অর্ধশত শিশু-কিশোর স্বতস্ফুর্তভাবে বয়সভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় তিনটি বিভাগে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অর্জনকারী শিশুসহ সকল অংশগ্রহণকারী শিশু-কিশোরকে পুরস্কার ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানের শেষে মোনাজাত করা হয় এবং অতিথিদেরকে রাতের খাবারে আপ্যায়ন করা হয়।




নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..