ঢাকা ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
স্পেনে ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস উদযাপন মহিলা সমিতি বার্সেলোনার পহেলা বৈশাখ উদযাপন বাংলাদেশ কোলতোরাল এসোসিয়েশন এন কাতালোনিয়ার ৯ সদস্য বিশিষ্ট সমন্বয় কমিটি গঠন টেনেরিফে ঈদুল ফিতর উদযাপন ও ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত শান্তাকলমায় শরীয়তপুর জেলা সমিতির ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত নোয়াখালী এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন বার্সেলোনায় গোলাপগঞ্জ অ্যাসোসিয়েশনের ইফতার সম্পন্ন বিয়ানীবাজার পৌরসভা ওয়েলফেয়ার ট্রাষ্ট বার্সেলোনার ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত বার্সেলোনায় বিয়ানীবাজার ইয়াং স্টারের ইফতার সম্পন্ন বার্সেলোনা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তাফসীরুল কুরআন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত

স্পেনে প্রধানমন্ত্রী বিদ্যুৎ বাঁচাতে কর্মীদের টাই না পরার আহ্বান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৪০:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২ ২৯০ বার পড়া হয়েছে

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলতে থাকা তাপপ্রবাহে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো স্পেনেও বিদ্যুতের চাহিদা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে সরকারি-বেসরকারি সব কর্মীকে টাই পরা বাদ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ।

শুক্রবার রাজধানী মাদ্রিদে এক সংবাদ সম্মেলনে টাই ছাড়া স্যুট পরে আসেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী। তারপর নিজ বক্তব্যের শুরুতে এ বিষয়টিতে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘আপনারা দেখছেন, আমি আজ টাই পরিনি; এবং আমি চাই, এখন থেকে মন্ত্রিসভার সব সদস্য, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সব কর্মী শীত আসার আগ পর্যন্ত টাই পরা থেকে বিরত থাকবেন।’

‘যদি আমরা এই গ্রীষ্মে টাই না পরে চলা অভ্যাস করতে পারি, তাহলে দু’টি উপকার হবে- প্রথমত, গরমজনিত অস্বস্তি কম হবে এবং দ্বিতীয়ত, আমরা বিদ্যুৎ সাশ্রয় করতে পারব।’

এমনিতে গ্রীষ্মকালে স্পেনের গড় তাপমাত্রা থাকে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার কিছু কম। তবে চলতি বছরের গ্রীষ্মে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো স্পেনেও দীর্ঘ তাপপ্রবাহ শুরু হয়েছে। জুলাই মাসের বড় সময়জুড়ে স্পেনের অধিকাংশ এলাকায় তাপমাত্রা ছিল ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং এ সময় দেশটির দক্ষিণ ও দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে তাপমাত্রা বেড়ে ৪৫ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠেছিল।

ব্যাপক এই তাপপ্রবাহে জুলাই মাসে অন্তত ৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে স্পেনে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, জুলাইয়ের ১০,১১ ও ১২ তারিখে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার যখন সংবাদ সম্মেলন করছিলেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী, সেসময় রাজধানী মাদ্রিদে তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এক প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, দিনের পর দিন তাপপ্রবাহ ও তার ফলে দেশজুড়ে বিদ্যুতের চাহিদা বাড়তে থাকায় তা ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে ডিক্রি জারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রধানমন্ত্রী সানচেজের নেতৃত্বাধীন সরকার। আগামী সোমবার জারি করা হবে এই ডিক্রি।

অবশ্য স্পেনই যে প্রথম সরকারি-বেসরকারি কর্মীদের টাই পরতে নিরুৎসাহিত করছে— এমন নয়। ২০১১ সালের গ্রীষ্মে জাপানে তাপপ্রবাহ শুরু হলে দেশটির তৎকালীণ সরকার জনগণকে স্যুট-টাই পরিহার করে গরমে সহনশীল হালকা পোশাক পরার উৎসাহ দিয়েছিল।

চলতি গ্রীষ্মে শুরু হওয়া ব্যাপক তাপপ্রবাহের জেরে সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে পার্লামেন্ট হাউস অব কমন্স আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশে একটি নোটিশ জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, পার্লামেন্টে অবস্থান করার সময় এমপিরা তারেদ স্যুট জ্যাকেট, টাই খুলে রাখতে পারবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

স্পেনে প্রধানমন্ত্রী বিদ্যুৎ বাঁচাতে কর্মীদের টাই না পরার আহ্বান

আপডেট সময় : ১১:৪০:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলতে থাকা তাপপ্রবাহে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো স্পেনেও বিদ্যুতের চাহিদা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে সরকারি-বেসরকারি সব কর্মীকে টাই পরা বাদ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ।

শুক্রবার রাজধানী মাদ্রিদে এক সংবাদ সম্মেলনে টাই ছাড়া স্যুট পরে আসেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী। তারপর নিজ বক্তব্যের শুরুতে এ বিষয়টিতে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘আপনারা দেখছেন, আমি আজ টাই পরিনি; এবং আমি চাই, এখন থেকে মন্ত্রিসভার সব সদস্য, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সব কর্মী শীত আসার আগ পর্যন্ত টাই পরা থেকে বিরত থাকবেন।’

‘যদি আমরা এই গ্রীষ্মে টাই না পরে চলা অভ্যাস করতে পারি, তাহলে দু’টি উপকার হবে- প্রথমত, গরমজনিত অস্বস্তি কম হবে এবং দ্বিতীয়ত, আমরা বিদ্যুৎ সাশ্রয় করতে পারব।’

এমনিতে গ্রীষ্মকালে স্পেনের গড় তাপমাত্রা থাকে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার কিছু কম। তবে চলতি বছরের গ্রীষ্মে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো স্পেনেও দীর্ঘ তাপপ্রবাহ শুরু হয়েছে। জুলাই মাসের বড় সময়জুড়ে স্পেনের অধিকাংশ এলাকায় তাপমাত্রা ছিল ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং এ সময় দেশটির দক্ষিণ ও দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে তাপমাত্রা বেড়ে ৪৫ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠেছিল।

ব্যাপক এই তাপপ্রবাহে জুলাই মাসে অন্তত ৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে স্পেনে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, জুলাইয়ের ১০,১১ ও ১২ তারিখে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার যখন সংবাদ সম্মেলন করছিলেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী, সেসময় রাজধানী মাদ্রিদে তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এক প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, দিনের পর দিন তাপপ্রবাহ ও তার ফলে দেশজুড়ে বিদ্যুতের চাহিদা বাড়তে থাকায় তা ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে ডিক্রি জারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রধানমন্ত্রী সানচেজের নেতৃত্বাধীন সরকার। আগামী সোমবার জারি করা হবে এই ডিক্রি।

অবশ্য স্পেনই যে প্রথম সরকারি-বেসরকারি কর্মীদের টাই পরতে নিরুৎসাহিত করছে— এমন নয়। ২০১১ সালের গ্রীষ্মে জাপানে তাপপ্রবাহ শুরু হলে দেশটির তৎকালীণ সরকার জনগণকে স্যুট-টাই পরিহার করে গরমে সহনশীল হালকা পোশাক পরার উৎসাহ দিয়েছিল।

চলতি গ্রীষ্মে শুরু হওয়া ব্যাপক তাপপ্রবাহের জেরে সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে পার্লামেন্ট হাউস অব কমন্স আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশে একটি নোটিশ জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, পার্লামেন্টে অবস্থান করার সময় এমপিরা তারেদ স্যুট জ্যাকেট, টাই খুলে রাখতে পারবেন।