ঢাকা ০২:৩২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

স্পেনের মন্ত্রী গাজায় আগ্রাসনে নেতানিয়াহুর বিচার দাবি করলেন

জনপ্রিয় অনলাইন
  • আপডেট সময় : ০২:১৪:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩ ৪৯৩ বার পড়া হয়েছে

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার বর্বর আগ্রাসন ও নির্বিচারে গণহত্যা চালানোর জন্য ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিচার দাবি করেছেন স্পেনের এক মন্ত্রী। একই সঙ্গে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করারও আহ্বান জানান তিনি। দেশটির সামাজিক অধিকার রক্ষা বিষয়কমন্ত্রী ইয়ন ব্যালেরা বলেন, ‘গাজায় বর্বর আগ্রাসন ও নির্বিচারে গাজার নারী, শিশু ও বেসামরিক লোকজন হত্যা করার জন্য বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর শাস্তি হওয়া উচিৎ।  ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচিৎ ইসরায়েলের হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে দৃঢ় ও সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেয়া। প্রয়োজনে ইসরায়েলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা।’

টুইটারে শেয়ার করা এক আবেগঘন ভিডিও বার্তায় ইয়ন ব্যালেরা বলেন, “আমাদের নিষ্ক্রিয়তা ইসরায়েলকে গণহত্যা চালাতে সহযোগিতা করছে। আজকে গাজায় এই নারকীয় রাত পার হওয়ার পর ইউরোপীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে আমার খুব সহজ বার্তা এটি। আমাদেরকে ইসরায়েলের এই গণহত্যার সহযোগী বানাবেন না। ইউরোপীয় ইউনিয়নের নামে কোনো কাজ করবেন না। ’ স্পেনের মন্ত্রী বলেন, ‘গাজায় ইসরায়েল ইন্টারনেট ও টেলিফোন ব্যবস্থা কেটে দিয়ে যে হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে এর মধ্যদিয়ে পরিষ্কার হয়েছে যে, এই গণহত্যা চালানোর জন্য ইসরায়েলকে কোনো রকমের পরিণতি ভোগ করতে হবে না, সে বিষয়টি তারা নিশ্চিত হয়েছে।  গত ৭ অক্টোবর থেকে ইসরায়েল অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর নৃশংস বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ইসরায়েলের হামলায় রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৮  হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, যার মধ্যে ৩ হাজার ৩০০ এর বেশি শিশু রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

স্পেনের মন্ত্রী গাজায় আগ্রাসনে নেতানিয়াহুর বিচার দাবি করলেন

আপডেট সময় : ০২:১৪:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার বর্বর আগ্রাসন ও নির্বিচারে গণহত্যা চালানোর জন্য ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিচার দাবি করেছেন স্পেনের এক মন্ত্রী। একই সঙ্গে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করারও আহ্বান জানান তিনি। দেশটির সামাজিক অধিকার রক্ষা বিষয়কমন্ত্রী ইয়ন ব্যালেরা বলেন, ‘গাজায় বর্বর আগ্রাসন ও নির্বিচারে গাজার নারী, শিশু ও বেসামরিক লোকজন হত্যা করার জন্য বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর শাস্তি হওয়া উচিৎ।  ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচিৎ ইসরায়েলের হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে দৃঢ় ও সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেয়া। প্রয়োজনে ইসরায়েলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা।’

টুইটারে শেয়ার করা এক আবেগঘন ভিডিও বার্তায় ইয়ন ব্যালেরা বলেন, “আমাদের নিষ্ক্রিয়তা ইসরায়েলকে গণহত্যা চালাতে সহযোগিতা করছে। আজকে গাজায় এই নারকীয় রাত পার হওয়ার পর ইউরোপীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে আমার খুব সহজ বার্তা এটি। আমাদেরকে ইসরায়েলের এই গণহত্যার সহযোগী বানাবেন না। ইউরোপীয় ইউনিয়নের নামে কোনো কাজ করবেন না। ’ স্পেনের মন্ত্রী বলেন, ‘গাজায় ইসরায়েল ইন্টারনেট ও টেলিফোন ব্যবস্থা কেটে দিয়ে যে হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে এর মধ্যদিয়ে পরিষ্কার হয়েছে যে, এই গণহত্যা চালানোর জন্য ইসরায়েলকে কোনো রকমের পরিণতি ভোগ করতে হবে না, সে বিষয়টি তারা নিশ্চিত হয়েছে।  গত ৭ অক্টোবর থেকে ইসরায়েল অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর নৃশংস বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ইসরায়েলের হামলায় রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৮  হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, যার মধ্যে ৩ হাজার ৩০০ এর বেশি শিশু রয়েছে।