ঢাকা ০৬:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
অ্যাসোসিয়াসিয়ন কুলতুরাল দে বাংলাদেশ এন কাতালোনিয়ার মতবিনিময় ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে সর্বপ্রথম স্পেনে “মুজিব: একটি জাতির রূপকার” বায়োপিক প্রদর্শিত হলো জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল স্পেন দক্ষিণ উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিয়ানীবাজার পৌরসভা ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট এর উদ্যোগে ঈদ পূনমির্লনী ও নতুন কমিটি গঠন বিজনেস এসোসিয়েশন এন কাতালোনিয়া এর উদ্যোগে ঈদ পূনমির্লনী ও আলোচনা সভা অ্যাসোসিয়াসিয়ন কুলতুরাল দে বাংলাদেশ এন কাতালোনিয়া এর নতুন কমিটি ঘোষণা বার্সেলোনায় ওপেন কনসার্টে বাংলাদেশীদের মিলন মেলা বার্সেলোনায় জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত স্পেন, নরওয়ে ও আয়ারল্যান্ড তিন দেশ ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিল ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে বাংলাদেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক কাল

সুপার গেইম করোনা কোভিড-১৯

এখলাছ মিয়া ,বার্সেলোনা
  • আপডেট সময় : ০৩:১৮:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২১ ৮৯০ বার পড়া হয়েছে

ওমরাহ করতে যাওয়ার জন্য ফ্লাইটের ২৪ ঘন্টা পূর্বে এখানকার নামকরা একটি ল্যাবে অ্যাপোয়েন্টমেন্ট নিয়ে গেলাম করোনা নেগেটিভ টেস্ট বা PCR টেস্ট করাতে । বার্সেলোনায় সবচেয়ে ধনী এলাকায় অবস্থিত ল্যাবটির রিসেপশনে পৌঁছে দেখি একটা চাইনিজ ছেলে সেখানকার দায়িত্বে । বলতে গেলে সে ওখানকার মোড়ল । স্প্যানিশ ভাষা সে বুঝুক বা না বুঝুক ছোট ছোট চোখ আর হাতের ইশারায় সে তার মাতবরি দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছে । আমার বুকিং কোড নাম্বার দেখাতেই একটি কক্ষে আমাকে নিয়ে যাওয়া হল । এরপর একজন স্প্যানিশ নার্স (সম্ভবত ল্যাটিন আমেরিকান হবে) এসে আমার নাকের একটা ছিদ্র থেকে কটনবাডের মাথা হালকা প্রবেশ করেই বললো টেষ্ট কমপ্লিট । চাইনিজ ছেলেটা কাছে এসে বললো, আপনার ইমেইলে রিপোর্ট পাঠিয়ে দেওয়া হবে । চার পাঁচ ঘন্টা যেতে না যেতেই আমার ইমেইলে রিপোর্ট চলে আসলো । রেজাল্ট নেগেটিভ । ফ্লাইট করতে আর কোন ঝামেলা নেই ।

ওদিকে সৌদি থেকে আসার পূর্বেও বাধ্যতামূলক করোনা টেস্ট (PCR Test) করাতে হল । জেদ্দার আল ফারাবি মেডিকেল ল্যাবে গেলাম টেস্ট করাতে । প্রচন্ড ভিড় ঠেলে সিরিয়াল ধরে কাউন্টারে ১১০ রিয়াল পে করে রিসেপশনে পেমেন্ট রশিদ ও পাসপোর্ট দিতে গিয়ে দেখি ছেলে মেয়ে সবাই ইন্ডিয়ান (ভারতীয়) । এদের মধ্য থেকেই একটি মেয়ে আমাকে একটা কেবিনে নিয়ে গেল । চেয়ারে বসিয়ে কটনবাডের মাথা আমার নাকের ডগায় হালকা স্পর্শ করেই বললো, টেস্ট কমপ্লিট । আমি ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে মেয়েটির দিকে তাকালাম ! সে আবারও বললো, জী; আপনার টেস্ট হয়ে গেছে । ইমেইলে রেজাল্ট চলে আসবে । সত্যি সত্যিই দুই চার ঘন্টার মধ্যেই ইমেইলে নেগেটিভ রিপোর্ট চলে আসলো । আমার আর এয়ারপোর্টে কোন ঝামেলা পোহাতে হয়নি ।

এখন কথা হল, এই যে PCR টেস্টের নামে লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতিদিন মিলিয়ন মিলিয়ন টাকা খরচ করছেন, আপনি শুনলে অবাক হবেন যে, একটা PCR টেস্টের রেজাল্টও কখনও পজেটিভ আসবে না । আপনি যদি সরাসরি করোনা আক্রান্ত হয়ে টেস্ট করাতে যান তারপরও রেজাল্ট নেগেটিভ আসবে । কারণঃ বিশ্বে এই করোনা আসার পর থেকে করোনাকে কেন্দ্র করে যত ব্যাবসা গড়ে ওঠেছে এই করোনা টেস্ট হচ্ছে অন্যতম লাভজনক ব্যাবসা । বিশ্বের সব দেশ সেখান থেকে যার যার মতো করে ফায়দা উঠাচ্ছে । এছাড়া ভ্যাকসিন, স্যানিটাইজার, মাস্ক, পিপিই এইসব নিয়ে কুটনীতি ও ব্যাবসা যে আরও কতটা সুবিধাজনক সে কথাতো সবারই জানা ।

মোট কথা, বিশ্বকে কাবু করে করোনা গেইম মেকাররা পর্দার আড়ালে বসে মুচকি হেসে আমাদের দিকে একটা পর একটা ঢিল ছুঁড়ছে আর আমরা সাধারণ মানুষ তাতে সর্বস্বান্ত হচ্ছি ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সুপার গেইম করোনা কোভিড-১৯

আপডেট সময় : ০৩:১৮:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২১

ওমরাহ করতে যাওয়ার জন্য ফ্লাইটের ২৪ ঘন্টা পূর্বে এখানকার নামকরা একটি ল্যাবে অ্যাপোয়েন্টমেন্ট নিয়ে গেলাম করোনা নেগেটিভ টেস্ট বা PCR টেস্ট করাতে । বার্সেলোনায় সবচেয়ে ধনী এলাকায় অবস্থিত ল্যাবটির রিসেপশনে পৌঁছে দেখি একটা চাইনিজ ছেলে সেখানকার দায়িত্বে । বলতে গেলে সে ওখানকার মোড়ল । স্প্যানিশ ভাষা সে বুঝুক বা না বুঝুক ছোট ছোট চোখ আর হাতের ইশারায় সে তার মাতবরি দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছে । আমার বুকিং কোড নাম্বার দেখাতেই একটি কক্ষে আমাকে নিয়ে যাওয়া হল । এরপর একজন স্প্যানিশ নার্স (সম্ভবত ল্যাটিন আমেরিকান হবে) এসে আমার নাকের একটা ছিদ্র থেকে কটনবাডের মাথা হালকা প্রবেশ করেই বললো টেষ্ট কমপ্লিট । চাইনিজ ছেলেটা কাছে এসে বললো, আপনার ইমেইলে রিপোর্ট পাঠিয়ে দেওয়া হবে । চার পাঁচ ঘন্টা যেতে না যেতেই আমার ইমেইলে রিপোর্ট চলে আসলো । রেজাল্ট নেগেটিভ । ফ্লাইট করতে আর কোন ঝামেলা নেই ।

ওদিকে সৌদি থেকে আসার পূর্বেও বাধ্যতামূলক করোনা টেস্ট (PCR Test) করাতে হল । জেদ্দার আল ফারাবি মেডিকেল ল্যাবে গেলাম টেস্ট করাতে । প্রচন্ড ভিড় ঠেলে সিরিয়াল ধরে কাউন্টারে ১১০ রিয়াল পে করে রিসেপশনে পেমেন্ট রশিদ ও পাসপোর্ট দিতে গিয়ে দেখি ছেলে মেয়ে সবাই ইন্ডিয়ান (ভারতীয়) । এদের মধ্য থেকেই একটি মেয়ে আমাকে একটা কেবিনে নিয়ে গেল । চেয়ারে বসিয়ে কটনবাডের মাথা আমার নাকের ডগায় হালকা স্পর্শ করেই বললো, টেস্ট কমপ্লিট । আমি ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে মেয়েটির দিকে তাকালাম ! সে আবারও বললো, জী; আপনার টেস্ট হয়ে গেছে । ইমেইলে রেজাল্ট চলে আসবে । সত্যি সত্যিই দুই চার ঘন্টার মধ্যেই ইমেইলে নেগেটিভ রিপোর্ট চলে আসলো । আমার আর এয়ারপোর্টে কোন ঝামেলা পোহাতে হয়নি ।

এখন কথা হল, এই যে PCR টেস্টের নামে লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতিদিন মিলিয়ন মিলিয়ন টাকা খরচ করছেন, আপনি শুনলে অবাক হবেন যে, একটা PCR টেস্টের রেজাল্টও কখনও পজেটিভ আসবে না । আপনি যদি সরাসরি করোনা আক্রান্ত হয়ে টেস্ট করাতে যান তারপরও রেজাল্ট নেগেটিভ আসবে । কারণঃ বিশ্বে এই করোনা আসার পর থেকে করোনাকে কেন্দ্র করে যত ব্যাবসা গড়ে ওঠেছে এই করোনা টেস্ট হচ্ছে অন্যতম লাভজনক ব্যাবসা । বিশ্বের সব দেশ সেখান থেকে যার যার মতো করে ফায়দা উঠাচ্ছে । এছাড়া ভ্যাকসিন, স্যানিটাইজার, মাস্ক, পিপিই এইসব নিয়ে কুটনীতি ও ব্যাবসা যে আরও কতটা সুবিধাজনক সে কথাতো সবারই জানা ।

মোট কথা, বিশ্বকে কাবু করে করোনা গেইম মেকাররা পর্দার আড়ালে বসে মুচকি হেসে আমাদের দিকে একটা পর একটা ঢিল ছুঁড়ছে আর আমরা সাধারণ মানুষ তাতে সর্বস্বান্ত হচ্ছি ।