ঢাকা ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
স্পেনের হুয়ান কার্লোস ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন বন্ধুসূলভ মহিলা সংগঠন বার্সেলোনার আয়োজনে পিঠা উৎসব টেনেরিফে বাংলাদেশ দূতাবাসের কনস্যুলার সেবা প্রদান ইউরোপিয়ান বাংলা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন এর আত্মপ্রকাশ শান্তাকলমায় হৃদরোগে শরিয়তপুরের রেমিট্যান্স যোদ্ধার মৃত্যু শীতার্তদের মাঝে কুলাউড়া ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের কম্বল বিতরণ সারপার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শীতবস্ত্র বিতরণ ও পিঠা উৎসব চেটে খাওয়া আঙুল কি সুন্নত? ১২ ফেব্রুয়ারি পর্তুগালে ‘লাল হাভেলী বাংলা কাগজ কমিউনিটি এওয়ার্ড’ প্রবাসী সাংবাদিকদের সঙ্গে চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজির মতবিনিময়

মাদ্রিদে ভালিয়েন্তে বাংলার সহযোগিতায় টিকা নিয়েছেন হাজারের অধিক অভিবাসী

সিদ্দিকুর রাহমান, মাদ্রিদ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ০২:১৬:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অগাস্ট ২০২১ ৬৬৯ বার পড়া হয়েছে

করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে ইউরোপের প্রায় সব দেশেই করোনা টিকা কার্যক্রমে সমাজের বেশিরভাগ মানুষকে সম্পৃক্ত করার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, যার মধ্যে প্রত্যেক দেশে অবস্থানরত অভিবাসীরাও গুরুত্ব পাচ্ছে।

স্পেনে করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে প্রবাসীদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে।

করোনা ভাইরাসের মহামারী কাটিয়ে স্বাভাবিক  অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে স্পেনের জনজীবন।

করোনা ভাইরাসের মহামারি থেকে স্বাভাবিক  অবস্থায় ফিরে যাবার লড়াইয়ে টিকাকেই প্রাধান্য  দিচ্ছে স্পেন সরকার। স্পেনে জনসংখ্যার অর্ধেক লোক কমপক্ষে একটি করে ডোজ পেয়েছে আর সেইসব ডোজ হচ্ছে মডার্ণ,ফাইজার,এবংজনসন। ধারাবাহিক ভাবে সবাই ভ্যাকসিন এর আওতায় আসবে বলে জানা যায়।

স্পেনে করোনার টিকা নিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝেও বেশ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। যারা ভ্যাকসিন ক্যটাগরিতে এসেছেন, তাদেরকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ফোন করে, বার্তা পাঠিয়ে এপয়েন্টমেন্ট দিচ্ছে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিজেরাও এপয়েন্টমেন্ট নিতে পারছেন।

স্পেনের মাদ্রিদে বাংলাদেশি মানবাধিকার সংস্থা ‘এসোসিয়েশন ভালিয়েন্তে বাংলা’ সংগঠনও প্রবাসী বাংলাদেশিদের টিকা গ্রহণে এপয়েন্টমেন্ট (ছিতা)নিতে ব্যাপক সহযোগিতা করছে। সংগঠনটি বিনামূল্যে এ সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

মানবাধিকার সংগঠন ভালিয়ান্তে বাংলার উদ্দ্যেগে প্রবাসীরা ভ্যাকসিন এর আওতায় আসছেন।টিকা দিয়েছেন এমন কয়েক জনের সাথে আলাপ করে জানা যায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রের জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানির তৈরি এক ডোজের ভ্যাকসিন নিরাপদ ও কার্যকর। অন্য টিকার মতো জনসনের টিকায় দুটি ডোজ নেয়ার প্রয়োজন হয় না। ভালিয়ান্তে বাংলার সভাপতি ফজলে এলাহি বলেন আমরা প্রবাসীদের জন্য সব সময় কাজ করছি তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩ ই জুলাই থেকে আমরা ভালিয়ান্তে বাংলার সদস্য এবং কমিউনিটির মানুষের টিকা দেওয়া নিশ্চিত করেছি।প্রতিদিন ৪০/৫০ জন মানুষ ভালিয়ান্তে বাংলার মাধ্যমে টিকা নিচ্ছেন আজ ৪ আগস্ট পর্যন্ত প্রায় হাজারের অধিক মানুষকে আমরা টিকা প্রদানে এপয়েন্টমেন্ট(ছিতা) নিয়ে সহযোগিতা করেছি।আমাদের মাধ্যমে আজ পর্যন্ত ১০১২ জনের টিকা দেওয়ার ব্যাবস্থা করে দিয়েছি,আমাদের এ ব্যাবস্থা সকল স্তরের প্রবাসীদের জন্য অব্যাহত থাকবে। তিনি আরও বলেন প্রবাসী বাংলাদেশির পাশাপাশি উত্তর আমেরিকা ও দক্ষিণ আমেরিকা সহ মরোক্ক, আফ্রিকা,সেনেগাল, নাইজেরিয়া এসব দেশের মানুষরা ও আমাদের ভালিয়ান্তে বাংলার মাধ্যমে টিকা নিচ্ছেন।

ভালিয়ান্তে বাংলার সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিন সরকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্দেশ্য বলেন ভালিয়ান্তে বাংলা হচ্ছে সকল মানুষের জন্য তাই আপনার কাল বিলম্ব না করে দল মতের ঊর্ধে উঠে এসোসিয়েশন ভালিয়েন্তে বাংলার মাধ্যমে (যারা এখন ও টিকা নেন নাই) সবাইকে টিকা নেওয়ার আহবান জানান।

স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র নিশ্চিত করে আগামী ডিসেম্বরের ভিতরেই স্পেনে শতভাগ করোনার টিকার আওতায় নিয়ে আসবে বলে জানা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মাদ্রিদে ভালিয়েন্তে বাংলার সহযোগিতায় টিকা নিয়েছেন হাজারের অধিক অভিবাসী

আপডেট সময় : ০২:১৬:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অগাস্ট ২০২১

করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে ইউরোপের প্রায় সব দেশেই করোনা টিকা কার্যক্রমে সমাজের বেশিরভাগ মানুষকে সম্পৃক্ত করার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, যার মধ্যে প্রত্যেক দেশে অবস্থানরত অভিবাসীরাও গুরুত্ব পাচ্ছে।

স্পেনে করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে প্রবাসীদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে।

করোনা ভাইরাসের মহামারী কাটিয়ে স্বাভাবিক  অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে স্পেনের জনজীবন।

করোনা ভাইরাসের মহামারি থেকে স্বাভাবিক  অবস্থায় ফিরে যাবার লড়াইয়ে টিকাকেই প্রাধান্য  দিচ্ছে স্পেন সরকার। স্পেনে জনসংখ্যার অর্ধেক লোক কমপক্ষে একটি করে ডোজ পেয়েছে আর সেইসব ডোজ হচ্ছে মডার্ণ,ফাইজার,এবংজনসন। ধারাবাহিক ভাবে সবাই ভ্যাকসিন এর আওতায় আসবে বলে জানা যায়।

স্পেনে করোনার টিকা নিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝেও বেশ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। যারা ভ্যাকসিন ক্যটাগরিতে এসেছেন, তাদেরকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ফোন করে, বার্তা পাঠিয়ে এপয়েন্টমেন্ট দিচ্ছে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিজেরাও এপয়েন্টমেন্ট নিতে পারছেন।

স্পেনের মাদ্রিদে বাংলাদেশি মানবাধিকার সংস্থা ‘এসোসিয়েশন ভালিয়েন্তে বাংলা’ সংগঠনও প্রবাসী বাংলাদেশিদের টিকা গ্রহণে এপয়েন্টমেন্ট (ছিতা)নিতে ব্যাপক সহযোগিতা করছে। সংগঠনটি বিনামূল্যে এ সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

মানবাধিকার সংগঠন ভালিয়ান্তে বাংলার উদ্দ্যেগে প্রবাসীরা ভ্যাকসিন এর আওতায় আসছেন।টিকা দিয়েছেন এমন কয়েক জনের সাথে আলাপ করে জানা যায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রের জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানির তৈরি এক ডোজের ভ্যাকসিন নিরাপদ ও কার্যকর। অন্য টিকার মতো জনসনের টিকায় দুটি ডোজ নেয়ার প্রয়োজন হয় না। ভালিয়ান্তে বাংলার সভাপতি ফজলে এলাহি বলেন আমরা প্রবাসীদের জন্য সব সময় কাজ করছি তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩ ই জুলাই থেকে আমরা ভালিয়ান্তে বাংলার সদস্য এবং কমিউনিটির মানুষের টিকা দেওয়া নিশ্চিত করেছি।প্রতিদিন ৪০/৫০ জন মানুষ ভালিয়ান্তে বাংলার মাধ্যমে টিকা নিচ্ছেন আজ ৪ আগস্ট পর্যন্ত প্রায় হাজারের অধিক মানুষকে আমরা টিকা প্রদানে এপয়েন্টমেন্ট(ছিতা) নিয়ে সহযোগিতা করেছি।আমাদের মাধ্যমে আজ পর্যন্ত ১০১২ জনের টিকা দেওয়ার ব্যাবস্থা করে দিয়েছি,আমাদের এ ব্যাবস্থা সকল স্তরের প্রবাসীদের জন্য অব্যাহত থাকবে। তিনি আরও বলেন প্রবাসী বাংলাদেশির পাশাপাশি উত্তর আমেরিকা ও দক্ষিণ আমেরিকা সহ মরোক্ক, আফ্রিকা,সেনেগাল, নাইজেরিয়া এসব দেশের মানুষরা ও আমাদের ভালিয়ান্তে বাংলার মাধ্যমে টিকা নিচ্ছেন।

ভালিয়ান্তে বাংলার সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিন সরকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্দেশ্য বলেন ভালিয়ান্তে বাংলা হচ্ছে সকল মানুষের জন্য তাই আপনার কাল বিলম্ব না করে দল মতের ঊর্ধে উঠে এসোসিয়েশন ভালিয়েন্তে বাংলার মাধ্যমে (যারা এখন ও টিকা নেন নাই) সবাইকে টিকা নেওয়ার আহবান জানান।

স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র নিশ্চিত করে আগামী ডিসেম্বরের ভিতরেই স্পেনে শতভাগ করোনার টিকার আওতায় নিয়ে আসবে বলে জানা যায়।