ঢাকা ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নোবেলজয়ী ডেসমন্ড টুটু আর নেই

জনপ্রিয় অনলাইন
  • আপডেট সময় : ০২:০১:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ ৪৮৭ বার পড়া হয়েছে

শান্তিতে নোবেলজয়ী, সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্ট এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা আর্চবিশপ ডেসমন্ড টুটু না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ডেসমন্ড টুটুকে বিদেশি পর্যবেক্ষক এবং তার দেশের জনগণ জাতির নৈতিক বিবেক হিসেবে বর্ণনা করেছেন। স্থানীয় সময় রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) তিনি কেপটাউনে মারা গেছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার সমসাময়িক ডেসমন্ড টুটু। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদী ব্যবস্থা বাতিলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার পালন করেছেন।

বর্ণবাদী ব্যবস্থা বাতিলে সংগ্রামী ভূমিকার জন্য তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান।

জানা গেছে, ১৯৩১ সালের ৭ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকার ট্রান্সভালের ক্লের্কড্রপ জন্মগ্রহণ করা টুটু লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে ধর্মতত্ত্বে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন।

পড়াশোনার পাঠ চুকিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরে যান তিনি। এরপর ধর্মতত্ত্ব পড়াতে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। ধীরে ধীরে দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন তিনি।

সূত্র: গার্ডিয়ান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

নোবেলজয়ী ডেসমন্ড টুটু আর নেই

আপডেট সময় : ০২:০১:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২১

শান্তিতে নোবেলজয়ী, সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্ট এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা আর্চবিশপ ডেসমন্ড টুটু না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ডেসমন্ড টুটুকে বিদেশি পর্যবেক্ষক এবং তার দেশের জনগণ জাতির নৈতিক বিবেক হিসেবে বর্ণনা করেছেন। স্থানীয় সময় রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) তিনি কেপটাউনে মারা গেছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার সমসাময়িক ডেসমন্ড টুটু। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদী ব্যবস্থা বাতিলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার পালন করেছেন।

বর্ণবাদী ব্যবস্থা বাতিলে সংগ্রামী ভূমিকার জন্য তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান।

জানা গেছে, ১৯৩১ সালের ৭ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকার ট্রান্সভালের ক্লের্কড্রপ জন্মগ্রহণ করা টুটু লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে ধর্মতত্ত্বে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন।

পড়াশোনার পাঠ চুকিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরে যান তিনি। এরপর ধর্মতত্ত্ব পড়াতে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। ধীরে ধীরে দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন তিনি।

সূত্র: গার্ডিয়ান।