ঢাকা ০১:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

এক ঘণ্টায় দেড়শ’ বিমান হামলা গাজায়, নিহত ৩৩

জনপ্রিয় অনলাইন
  • আপডেট সময় : ০৭:০২:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ মে ২০২১ ৬১৯ বার পড়া হয়েছে

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় টানা সপ্তম দিনের মতো ইসরায়েলি হামলা চলছে। উপত্যকাটিতে আজ রোববার রাতে এক ঘণ্টায় দেড় শতাধিক রকেট ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

এদিন ভোরের হামলায় অন্তত ৩৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেক। ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে হতাহতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। ফিলিস্তিনের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে রোববারের হামলাকে ২০০০ সালে হামলা শুরুর পর এখন পর্যন্ত ‘সবচেয়ে বড় হামলা বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজার আল-ওহেদা শহর লক্ষ্য করে বেশি রকেট ছোড়া হয়েছে। এতে আবাসিক ভবন, অবকাঠামো ও সড়ক ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলায় ১৬ জন নিহত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তবে সংবাদমাধ্যম বলছে, নিহতের সংখ্যা ৩৩ জন।

ইসরায়েলি হামলার পর ধ্বংসস্তূপ থেকে পাঁচ শিশুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ। বেসামরিক প্রতিরক্ষাকর্মী মেদহাত হামদান বলেন, ‘ধ্বংসস্তূপ থেকে এখনও মানুষের চিৎকার শুনতে পাচ্ছি। আমার যেন সব ভয় চলে গেছে। এখন আর বিস্মিত হই না।’

গত সপ্তাহে জেরুজালেমের আল-আকসায় পবিত্র জুমাতুল বিদা আদায়কে কেন্দ্র করে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘর্ষের শুরু। কয়েক বছরের মধ্যে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনা। ওই সংঘর্ষের পর ইসরায়েলি হামলায় এ পর্যন্ত ১৮১ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন হাজারের বেশি মানুষ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

এক ঘণ্টায় দেড়শ’ বিমান হামলা গাজায়, নিহত ৩৩

আপডেট সময় : ০৭:০২:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ মে ২০২১

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় টানা সপ্তম দিনের মতো ইসরায়েলি হামলা চলছে। উপত্যকাটিতে আজ রোববার রাতে এক ঘণ্টায় দেড় শতাধিক রকেট ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

এদিন ভোরের হামলায় অন্তত ৩৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেক। ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে হতাহতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। ফিলিস্তিনের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে রোববারের হামলাকে ২০০০ সালে হামলা শুরুর পর এখন পর্যন্ত ‘সবচেয়ে বড় হামলা বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজার আল-ওহেদা শহর লক্ষ্য করে বেশি রকেট ছোড়া হয়েছে। এতে আবাসিক ভবন, অবকাঠামো ও সড়ক ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলায় ১৬ জন নিহত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তবে সংবাদমাধ্যম বলছে, নিহতের সংখ্যা ৩৩ জন।

ইসরায়েলি হামলার পর ধ্বংসস্তূপ থেকে পাঁচ শিশুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ। বেসামরিক প্রতিরক্ষাকর্মী মেদহাত হামদান বলেন, ‘ধ্বংসস্তূপ থেকে এখনও মানুষের চিৎকার শুনতে পাচ্ছি। আমার যেন সব ভয় চলে গেছে। এখন আর বিস্মিত হই না।’

গত সপ্তাহে জেরুজালেমের আল-আকসায় পবিত্র জুমাতুল বিদা আদায়কে কেন্দ্র করে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘর্ষের শুরু। কয়েক বছরের মধ্যে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনা। ওই সংঘর্ষের পর ইসরায়েলি হামলায় এ পর্যন্ত ১৮১ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন হাজারের বেশি মানুষ।