আলজাজিরার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের মামলা

জনপ্রিয় অনলাইন
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১
  • ৬৬ বার পঠিত

আলজাজিরার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানের ফেডারেল আদালতে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করেছেন বাংলাদেশি প্রবাসীরা। এ মামলায় বাদি হয়েছেন দুই প্রতিষ্ঠান ও তিন ব্যক্তি। এখন মিশিগান আদালতে মামলাটির কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

গত ২২ ফেব্রুয়ারি মামলাটি যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানের ফেডারেল আদালতে করা হলেও এটি প্রক্রিয়ায় যেতে কিছুটা সময় লাগে। সোমবার স্থানীয় সময় সকালে সেটির কার্যক্রম শুরু হয় এবং ডকেটে উঠে।

মানহানির ধারায় মিশিগানের ফেডারেল আদালতে এ মামলা করা হয়েছে। এতে আসামি করা হয়েছে আলজাজিরার ইংরেজি টিভি, আলজাজিরার মিডিয়া নেটওয়ার্ক, কনক সারওয়ার, ইলিয়াস হোসেন, শায়ের জুলকারনাইন সামি, দেলোয়ার হোসেন ও ডেভিড বার্গম্যানকে।

মামলার বাদিরা হলেন- যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ, এ পরিষদের সভাপতি ড. রাব্বী আলম, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু কমিশন, এ কমিশনের চেয়ারম্যান কৃষিবিদ শেরে আনাম রাসু, বঙ্গবন্ধু কেন্দ্রীয় কমিশনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও স্পেন শাখার সভাপতি রিজভী আলম।  মামলার বাদি ও যুক্তরাষ্ট্রের বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ড. রাব্বী আলম বলেন, বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেছি, একজন বাংলাদেশি আমেরিকান হিসেবে সারা বিশ্বে বাংলাদেশের মান-সম্মানকে সমুজ্জ্বল এবং সমুন্নত রাখার জন্য যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ এবং যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু কমিশন আমরা নিরলস কাজ করছি। সে যে কেউ হোক না কেন- যারা দেশের ভাবমূর্তি লুণ্ঠন করার চেষ্টা করবে এবং জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মান-সম্মানকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে, তাদেরকে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে আইনের ভাষায় জবাব দেব। এ ক্ষেত্রে আমরা কোনো ছাড় দেব না। সেজন্যই আমরা ৫০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করেছি।

সোমবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটে সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতারা।

পরে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে যুক্তরাষ্ট্রের বঙ্গবন্ধু পরিষদ। নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটে সংবাদ সম্মেলনের বিষয়বস্তু তুলে ধরে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মাঈনউদ্দিন বলেন, আলজাজিরার প্রামাণ্যচিত্র সম্পূর্ণ বানোয়াট, মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। তাই আমরা উদ্দেশ্য প্রণোদিত অবমাননাকর বাংলাদেশ রাষ্ট্র ও সরকার এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ঘিরে তাদের যে ষড়যন্ত্রমূলক প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করা হয়েছে এবং এ মামলা গৃহীত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতাকর্মী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ড. রাব্বী আলম ছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের জেষ্ঠ্য উপদেষ্টা হিন্দাল কাদির, সাংগঠনিক প্রধান সমন্বয়কারী ইলিয়ার রহমান এবং যুক্তরাষ্ট্র গোপালগঞ্জ সমিতির সভাপতি মোল্লা মাসুদ।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষমতায় পালাবদলের পর প্রথম সফরে ২২ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে যান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। পরে গত রবিবার রাতে দেশে ফেরেন তিনি।

এর আগে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আলজাজিরার কর্মকর্তা মোস্তফা স্যোউয়াগসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা নেওয়ার আবেদন ফেরত দিয়েছেন আদালত। রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার জন্য সরকারের পূর্বানুমোদন দরকার হয়। সরকারেরর পূর্বানুমোদন না থাকায় মামলা নেওয়ার আবেদন ফেরত দিয়েছেন আদালত। ফৌজদারি কার্যবিধির ১৯৬ ধারা অনুযায়ী, রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার জন্য সরকারের পূর্বানুমোদন প্রয়োজন।

আল-জাজিরায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের জেরে ঢাকার আদালতে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই প্রতিবেদনের সঙ্গে জড়িত শায়ের জুলকারনাইন সামি, ডেভিড বার্গম্যান, তাসনিম খলিলসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে মামলা নেওয়ার আবেদন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি আইনজীবী আবদুল মালেক।

সুত্র. ভোরের কাগজ ।




নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..